পদ্মা সেতুর দ্বিতীয় স্প্যান জাজিরায় বসতে পারে কাল

প্রকাশ : ২৪ জানুয়ারি ২০১৮, ০০:০০

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি

পুরোদমে এগিয়ে চলছে পদ্মা সেতু প্রকল্পের কাজ। সেতুর ৩৮ ও ৩৯নং পিলারের ওপর দ্বিতীয় স্প্যান ৭বি (সুপার স্ট্রাকচার) বসাতে ভাসমান ক্রেন এখন জাজিরায়। পরিবেশ অনুকূলে থাকলে আগামীকাল বৃহস্পতিবার স্প্যানটি বসানো হবে। এর আগে গত সোমবার রাতে পদ্মা সেতুর ৩৫নং পিলার এলাকায় তিন হাজার ৬০০ টন ধারণ ক্ষমতার ‘তিয়ান ই’ ক্রেনে ১৫০ মিটার দৈর্ঘ্য ও ৩ হাজার ১৪০ টন ওজনের স্প্যানটি আসে।

গত ২০১৭ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর ৩৭ ও ৩৮ নম্বর পিলারের মধ্যে পদ্মা সেতুর প্রথম স্প্যান বসানো হয়। এর পাঁচ মাসের ভেতর আরেকটি স্প্যান বসতে যাচ্ছে। দ্বিতীয় স্প্যানটি বসানো হলে সেতুর ৩০০ মিটার দৃশ্যমান হবে।

পদ্মা সেতুর প্রকৌশলীরা বলেন, গত শুক্রবার ধূসর রঙের স্প্যানটি জাজিরা প্রান্তে যাওয়ার কথা থাকলেও ক্রেনের ত্রুটির কারণে যাওয়া স্থগিত করা হয়। আর গত শনিবার বিকেল ৪টার দিকে স্প্যানটি মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলার মাওয়ার কুমারভোগ কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ড থেকে রওনা হয়। পদ্মা সেতুর পাইল ড্রাইভের কাজের জন্য নদীতে রাখা ভারি যন্ত্রাংশ ও ক্রেনের কারণে গত রোববার সকালে নোঙর করে ১৩ ও ১৪নং পিলার এলাকায় রাখা হয় স্প্যানটি।

পদ্মা সেতু প্রকল্পের পরিচালক শফিকুল ইসলাম জানান, ইতোমধ্যে দ্বিতীয় স্প্যান বসানোর কাজ শুরু হয়েছে। পরিবেশ অনুকূলে থাকলে আগামী বৃহস্পতিবার স্প্যানটি ৩৮ ও ৩৯নং পিলারে ওপর বসানো হবে। স্টিলের স্প্যানটির ওজন প্রায় ৩ হাজার ১৪০ টন। এটি শক্তিশালী ক্রেন দিয়ে মাওয়া প্রান্ত থেকে আনা হয়েছে। জাজিরার নাওডোবা প্রান্তে পিলারটি বসানো হবে। আগের স্প্যানটিও জাজিরার নাওডোবা প্রান্তে বসানো হয়।

তিনি জানান, কুয়াশার কারণে স্প্যান বসানোর কাজে কিছুটা ব্যাঘাত হয়েছে। ১২টি স্প্যান প্রকল্প এলাকায় আছে। তৃতীয় স্প্যানটিও বসানোর মতো অবস্থায় আছে। এখন কাজ দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে।

এদিকে, পদ্মা সেতু প্রকল্পের সর্বাধিক অগ্রগতি ৫১ দশমিক ৫ শতাংশ ও মূল কাজের অগ্রগতি ৫৬ শতাংশ হয়েছে বলে জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এ সেতুতে ৪২ পিলারের ওপর বসবে ৪১টি স্প্যান। পদ্মা বহুমুখী সেতুর মূল আকৃতি হবে দোতলা। কংক্রিট ও স্টিল দিয়ে নির্মিত হচ্ছে এ সেতুর কাঠামো এবং সেতুর মোট পিলারের সংখ্যা ৪২টি।

"