মায়ের জন্মদিনে কেক বানালেন ইয়াশ রোহান

প্রকাশ : ১৩ এপ্রিল ২০২০, ০০:০০

বিনোদন প্রতিবেদক

ইয়াশ রোহান, এই প্রজন্মের এক জনপ্রিয় নায়ক। এখন পর্যন্ত মুক্তি পেয়েছে তার অভিনীত অরুণ চৌধুরী পরিচালিত ‘মায়াবতী’ ও গিয়াস উদ্দিন সেলিম পরিচালিত ‘স্বপ্নজাল’ সিনেমা দুটি। মায়াবতী সিনেমাতে ইয়াশ রোহান অভিনয় করেছেন ইকবাল চরিত্রে এবং ‘স্বপ্নজাল’ সিনেমাতে অভিনয় করেছেন অপু চরিত্রে। মায়াবতী সিনেমায় তিশার সঙ্গে দুর্দান্ত অভিনয় করেছেন রোহান। অন্যদিকে গিয়াস উদ্দিন সেলিমের ‘মনপুরা’ সিনেমা যতটা ব্যবসা সফল হয়েছিল তার ধারে কাছেও যেতে পারেনি ‘স্বপ্নজাল’। ব্যবসায়িকভাবে ব্যর্থ একটি সিনেমা ‘স্বপ্নজাল’। কিন্তু এই সিনেমাতে নবাগত নায়ক হিসেবে ইয়াশ রোহান তার অভিনয় দিয়ে দর্শকের মন জয় করে নিয়েছিলেন। অপু চরিত্রে অনবদ্য অভিনয় দর্শক এখনো মনে রেখেছেন। একজন নবাগত হিসেবে দর্শকের মনে অপু হয়েই যেন গেঁথে আছেন তিনি।

ইয়াশ রোহান অভিনয়ে ভালো করবেন, এটাই স্বাভাবিক। কারণ তার রক্তে বইছে যে তারকা দম্পতি নরেশ ভূঁইয়া ও শিল্পী সরকার অপুর রক্ত। মূলত মায়ের অনুপ্রেরণাতেই অভিনয়ের পথ ধরে ইয়াশ রোহানের পথচলা। সেই মা শিল্পী সরকার অপুর জন্য এদিন ছিল গতকাল। যেহেতু করোনাভাইরাসের কারণে এখন ঘরের বাইরে যাওয়ার কোনো উপায় নেই। তাই ইয়াশ রোহান জানান, এবারই প্রথম তিনি মায়ের জন্মদিন উপলক্ষে নিজেই কেক বানিয়েছেন। পরিবারের সবাইকে নিয়ে তিনি রাত ১২টায় মাকে সঙ্গে নিয়ে নিজের হাতে তৈরি কেকটি কেটেছেন।

ইয়াশ রোহান বলেন, ‘যেহেতু করোনাভাইরাসের কারণে এখন আমরা সবাই গৃহবন্দি, তাই বাইরে যাওয়ার কোনো উপায় নেই। তাই মায়ের জন্য আমি নিজের হাতে কেক বানিয়েছি। চেষ্টা করেছি মাকে সারপ্রাইজ দেওয়ার জন্য। কারণ ঘরে বসে বসে সবারই মন একটু খারাপই বটে। তবে সবার মঙ্গলের জন্য আমরা সবাই ঘরের মধ্যেই সময় কাটাচ্ছি নতুন দিনের আশায়। অবশ্যই সুসময় ফিরে আসবে আমাদের জীবনে। আমার মায়ের জন্য সবাই আশীর্বাদ করবেন যেন মা সুস্থ থাকেন, ভালো থাকেন।

ইয়াশ রোহানের বড় ভাই রূপাই থাকেন কানাডায়। ছোট ভাই নীদ ঢাকাতেই থাকেন। মায়ের সঙ্গে ছোট্টবেলায় ইয়াশ রোহান প্রথম নাটকে অভিনয় করেন। বগ হয়ে তার অভিনীত প্রথম নাটক ছিল আশফাক নিপুণের পরিচালনায় ‘চাকা’। এতে তার বিপরীতে ছিলেন সাবিলা নূর। মায়ের সঙ্গে প্রথম বিজ্ঞাপনে মডেল হন আশফাক বিপুলের নির্দেশনায় ‘কোকা-কোলা’র বিজ্ঞাপনে। ইয়াশ রোহান অভিনীত মুক্তি প্রতীক্ষিত সিনেমা হচ্ছে রায়হান রাফির ‘পরাণ’ ও আবু তৌহিদের ‘আদম’। ইয়াশ রোহানের গ্রামের বাড়ি নোয়াখালীর নেওয়াজপুর, যেখানে জীবনে তিনি একবারই গিয়েছেন। কিন্তু নানার বাড়ি নেত্রকোনার মালণী রোডে বহুবার গেছেন।

 

"