শেষ হলো ‘মিউজিক ফর পিস’

প্রকাশ : ১২ এপ্রিল ২০২০, ০০:০০

বিনোদন প্রতিবেদক

গান-কথায় দুর্যোগে আক্রান্ত মানুষের মনে স্বস্তি ছড়িয়ে শেষ হলো গানবাংলা টেলিভিশনের ‘মিউজিক ফর পিস-এফবি লাইভ’। ২৬ মার্চ থেকে শুরু হয়ে টানা ১৬ দিন দেশ-বিদেশের জনপ্রিয় ১৩০ জন তারকার অংশগ্রহণে বর্ণাঢ্য এ আয়োজনটি শেষ হলো গত ১০ এপ্রিল।

গানে গানে বিশ্বশান্তি প্রতিষ্ঠায় সংগীত পরিচালক কৌশিক হোসেন তাপসের ‘মিউজিক ফর পিস’ স্লোগানটি এরই মধ্যে পেয়েছে আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি; ক্রমান্বয়ে এটি হয়ে উঠেছে বিশ্বের নানা প্রান্তের শিল্পীদের একত্রিত হওয়ার প্ল্যাটফরম। করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট দুর্যোগে সারা বিশ্বের মতো বাংলাদেশও যখন আক্রান্ত তখনই সক্রিয় হয় ‘মিউজিক ফর পিস’।

জাতিসংঘের সহায়ক সংস্থা ইউএনডিপির ‘স্টে হোম চ্যালেঞ্জ’-এর পাশে দাঁড়িয়ে গানবাংলা টেলিভিশন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ‘মিউজিক ফর পিস’ শীর্ষক অভিনব লাইভ অনুষ্ঠানটির আয়োজন করে। প্রতিদিন রাত ৯টা থেকে দুই ঘণ্টার এ আয়োজনে জনপ্রিয় শিল্পীদের কণ্ঠে গান শোনা ছাড়াও প্রিয় তারকার মুখে শ্রোতারা জানতে পেরেছেন সচেতনতার নানা বার্তা। অনুষ্ঠানটির সহ আয়োজক টেলি অপারেটর কোম্পানি রবির সহযোগিতায় প্রতিদিন প্রায় পৌনে ২ কোটি মানুষের কাছে পৌঁছেছে সরাসরি এ আয়োজন।

সমাপনী দিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়েছিলেন দেশ ও দেশের বাইরের একঝাঁক তারকা। ঘরে বসেই খালি গলায় গান গেয়ে শ্রোতাদের মাতিয়েছেন তারা। যেন এক হোম কনসার্ট!

কৌশিক হোসেন তাপসের সঞ্চালনায় কথা ও গানে পারফরম করেছেন ভারতের জনপ্রিয় সংগীত পরিচালক ইন্দ্রদ্বীপ দাসগুপ্ত, শিল্পী নন্দিনী দেব, পাকিস্তানি শিল্পী মিকাল হাসান, ফারহিন রাজাসহ দেশের সংগীতাঙ্গনের জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী হামিন আহমেদ, বাপ্পা মজুমদার, হাবিব ওয়াহিদ, মেহরিন, বালাম, হৃদয় খান, ইমরান, অদিত, আরেফিন রুমি, তন্ময় তানসেন, মিজান, জন কবির, পিন্টু ঘোষ, মিলা, কনা, তাশফি ও জেফার।

অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন ইউএনডিপি বাংলাদেশের আবাসিক প্রতিনিধি সুদীপ্ত মুখার্জি ও রবি আজিয়াটার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মাহতাব উদ্দিন আহমেদ।

আয়োজনটি প্রসঙ্গে গানবাংলা টেলিভিশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক কৌশিক হোসেন তাপস বলেন, সংগীত মানুষকে সুস্থ করার সেই পন্থা যা অন্য কোনো ওষুধের পক্ষে সম্ভব নয়। এমন শক্তিকে সঙ্গে নিয়েই এ দুর্যোগে মানুষের মাঝে সচেতনতা তৈরির পাশাপাশি তাদের মানসিক প্রশান্তির উপলক্ষে হয়ে উঠতে চেয়েছি। আয়োজনটি সফল করতে দেশীয় ও আন্তর্জাতিক শিল্পীসহ আয়োজনের সঙ্গে যুক্ত সবাইকে কৃতজ্ঞতা ও ভালোবাসা জানাই।

করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট দুর্যোগটি প্রতিরোধে নানা প্রতিষ্ঠান ও সংস্থা এবং তরুণরা লড়াই করছে জানিয়ে ইউএনডিপি বাংলাদেশের আবাসিক প্রতিনিধি সুদীপ্ত মুখার্জি বলেন, গানবাংলাও খুবই চমৎকার একটি কাজ করেছে। আমি আমার কর্মজীবনের অভিজ্ঞতা থেকে বলতে পারি, এ ধরনের দুর্যোগে আমরা যদি বিপন্ন হয়ে পড়ি তাহলে আমরা এর বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে পারব না। আমাদের অবশ্যই আনন্দে থাকতে হবে, উজ্জীবিত হতে হবে।

রবি আজিয়াটার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মাহতাব উদ্দিন আহমেদ বলেন, সারা পৃথিবীতেই এ ধরনের দুর্যোগ প্রতিরোধে ডিজিটাল মিডিয়ার বিকল্প নেই। টেলি অপারেটর কোম্পানি হিসেবে আমাদের পক্ষে সম্ভব সারা দেশের গ্রাম-গঞ্জের প্রত্যন্ত অঞ্চলে মানুষের কাছে সচেতনতার বার্তা পৌঁছে দেওয়া। তাপসকে ধন্যবাদ জানাই মিউজিক কম্যুনিটির এতগুলো তারকাকে এক করে এমন অনুষ্ঠানটি আয়োজন করায়। তাদের প্রত্যেকেরই ভক্ত-অনুরাগী আছে। আশা করি, দুর্যোগে সচেতনতার বার্তা পৌঁছাতে আয়োজনটি ভূমিকা রেখেছে।

তারকাখচিত সমাপনী অনুষ্ঠানে শিল্পীরা প্রত্যেকেই গান ও আড্ডায় সচেতনতার বার্তা ছড়িয়ে টানা প্রায় সাড়ে তিন ঘণ্টা দর্শকদের মাতিয়ে রাখেন। সবশেষে সম্মিলিতভাবে দাঁড়িয়ে জাতীয় সংগীত পরিবেশনের মাধ্যমে শেষ হয় অনুষ্ঠান।

 

"