আজও আক্কাসকে মনে পড়ে ববিতার

প্রকাশ : ০৯ এপ্রিল ২০২০, ০০:০০

বিনোদন প্রতিবেদক

১৯৭৩ সালটা ছিল আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন নায়িকা ববিতার অভিনয় জীবনের সেরা বছর। কারণ সেই বছরই ববিতা অভিনীত অস্কারজয়ী চলচ্চিত্র পরিচালক সত্যজিৎ রায়ের ‘অশনি সংকেত’ সিনেমা মুক্তি পায়। এই সিনেমাতে তিনি ‘অনঙ্গ বউ’ চরিত্রে অনবদ্য অভিনয় করে দেশ-বিদেশে বেশ প্রশংসা কুড়িয়েছিলেন। পরবর্তী সময়কালে ববিতা যত সিনেমাতেই অভিনয় করেছেন একটু ভেবে চিন্তে অভিনয় করেছেন। গল্প শুনেছেন মন দিয়ে, পাশাপাশি চরিত্রের গভীরতা বুঝার চেষ্টাও করেছেন তিনি।

উপমহাদেশের প্রখ্যাত গীতিকবি, চলচ্চিত্র পরিচালক গাজী মাজহারুল আনোয়ারের প্রযোজনা সংস্থা থেকে নির্মিত দিলীপ বিশ^াস পরিচালিত ‘বন্ধু’ সিনেমাতে অভিনয়ের মধ্যদিয়ে গাজী মাজহারুল আনোয়ারের পরিবারের সঙ্গে ববিতার সম্পৃক্ততা গড়ে উঠে। পরবর্তী সময়ে ১৯৮৪ সালের ২ মার্চ মুক্তিপ্রাপ্ত ‘শাস্তি’ সিনেমাতে অভিনয় করেন ববিতা। এ সিনেমার নির্দেশক ছিলেন গাজী মাজহারুল আনোয়ার। পরের বছরই ববিতা অভিনয় করেন গাজী মাজহারুল আনোয়ারের ‘চোর’ সিনেমায়। ১৯৮৫ সালের ২৬ জুলাই ‘চোর’ সিনেমাটি দেশের ২৮টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পায়। প্রায় ৩৫ লাখ টাকা ব্যয়ে নির্মিত সেই ‘চোর’ সিনেমা ব্যবসা করে সাড়ে পাঁচ কোটি টাকার ওপরে, জানান গাজী মাজহারুল আনোয়ারের ছেলে সরফরাজ আনোয়ার উপল। ‘চোর’ সিনেমায় আক্কাস নামের একজন পকেটমারের চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন ববিতা। সেই সময় তার মাথায় ক্যাপ এবং প্যান্ট শার্ট পরিহিত স্টাইলিস্ট ববিতার অনবদ্য অভিনয় দর্শকদের দারুণ সাড়া ফেলেছিল। ওই সিনেমাতে আরো অভিনয় করেছিলেন প্রয়াত নায়ক রাজ রাজ্জাক, সূচন্দা, সোহেল রানা, প্রয়াত নায়ক জাফর ইকবাল, আড়ালে থাকা নায়িকা রানী, প্রয়াত রাজ, নাসির খানসহ আরো অনেকে। এ সিনেমাতে ববিতার লিপে ‘আমার টাকা আছে ভাই পাবলিকের পকেটে’ গানটি সেই সময় দেশে ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি করে। গানটি লিখেছিলেন গাজী মাজহারুল আনোয়ার এবং সুর-সংগীত করেছিলেন সত্য সাহা। গানটি গেয়েছিলেন বহুবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত শিল্পী সাবিনা ইয়াসমিন। এ গানটি ছাড়াও এই সিনেমার ‘কেঁদে কেঁদে জীবন যাবে’, ‘ও বাবারে দেইখা যারে ডিসকো ঘোড়ার লাফ’, ‘শোনরে শোনরে আরো শোন, এক চোরের ছেলে বড় হয়ে বাপ-মা গেল ভুলে’ সহ বাকি গানগুলোও দারুণ জনপ্রিয়তা পায়। তবে এই মুহূর্তে ববিতা অনেকটাই টেনশনে আছেন। কারণ তার একমাত্র ছেলে আছেন কানাডায়। দুই ভাই ও বোন সূচন্দা আছেন আমেরিকায়। তাদের জন্য তিনি দোয়া চেয়েছেন যেন তারা সুস্থ থাকেন, ভালো থাকেন। ‘চোর’ সিনেমাতে আক্কাস চরিত্রে অভিনয় প্রসঙ্গে ববিতা বলেন, ‘চোর সিনেমাতে অভিনয়ের আগেই গাজী ভাইয়ের প্রযোজনায় এবং নির্দেশনায় আমি অভিনয় করি। ‘শাস্তি’ সিনেমাতে তার নির্দেশনাতেই অভিনয় করি। পরবর্তী সময়ে ‘চোর’ সিনেমাতে আক্কাস চরিত্রটি চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়েই অভিনয় করি। নিজেকে আক্কাসের মতো করে গড়ে তুলতে একটু সময় নিয়েছিলাম। গেট আপ, মেক আপ সবমিলিয়ে আক্কাসই যেন আমার মধ্যে পরিপূর্ণ হয়ে উঠেছিল। আর অভিনয়ে কোনোরকম ছাড় দেইনি আমিও। গাজী ভাইও যথেষ্ট সহযোগিতা করেছিলেন। সিনেমাটি মুক্তির পর চারদিক থেকে আক্কাস চরিত্রটির জন্য বেশ প্রশংসা পেয়েছিলাম। এখনো মাঝে মাঝে টিভিতে, কিংবা ইউটিউবে সিনেমাটি দেখে অনেকেই আক্কাস চরিত্রটির জন্য বেশ আবেগাপ্লুত হয়ে কথা বলেন। এটা সত্যি শুধু আক্কাসই নয়, এমন আরো অসংখ্য চরিত্র করেছি যার জন্য এখনো দর্শকের কাছ থেকে সাড়া পাচ্ছি। তবে এই মুহূর্তে আল্লাহর কাছে একটি প্রার্থনাই করছি, আল্লাহ যেন আমাদের করোনা থেকে মুক্ত রাখেন, আমাদের দেশে করোনা যেন খুব বেশি প্রভাব ফেলতে না পারে। সাধারণ মানুষ যেন যথাযথভাবে তাদের সাহায্য সহযোগিতা পেয়ে বেঁচে থাকতে পারে। আল্লাহ সবাইকে সুস্থ রাখুন, ভালো রাখুন, আমিন।

 

"