ঘরে থেকেই আমাদের যুদ্ধটা করতে হবে

ফেরদৌস

প্রকাশ : ২৬ মার্চ ২০২০, ০০:০০

বিনোদন প্রতিবেদক

বিশ^ আজ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত। বহু দেশ এর ভয়াবহতায় বিপর্যস্ত। প্রতিনিয়তই হাজার হাজার মানুষ মারা যাচ্ছে বিশ^ব্যাপী। বাংলাদেশে প্রথম করোনাভাইরাস রোগীর খবর প্রকাশিত হয় গত ৮ মার্চ নারী দিবসে। এরপর থেকে একের পর এক রোগীর সংখ্যা বাড়ছেই। এ অবস্থায় সবাই যার যার অবস্থানে থেকে নিজেদের সচেতন রাখার পাশাপাশি পাশের জনকেও সচেতন করার চেষ্টা করছেন। অনেক তারকাও দেশের মানুষদের সচেতন করতে নানা ধরনের পদক্ষেপ নিচ্ছেন। সেই ধারাবাহিকতায় এগিয়ে এলেন দেশের জনপ্রিয় অভিনেতা ফেরদৌস। দেশে করোনাভাইরাসের খবরে নিজেকে গত ১৩ মার্চ থেকেই গৃহবন্দি করে রেখেছেন তিনি। মা, স্ত্রী ও সন্তানকে নিয়ে বনানী ডিওএইচএসের বাসায় পারিবারিকভাবে সময় কাটাচ্ছেন। তবে প্রতি মুহূর্তে তিনি দেশবাসীর জন্য ভীষণ উদ্বেগ-উৎকণ্ঠার মধ্যে সময় পার করছেন।

দেশের সবার প্রতি বিনীত অনুরোধ করে ফেরদৌস বলেন, ‘সত্যি বলতে কী, এ মুহূর্তে শুধু আমাদের দেশ নয়, সারা বিশ^ এক বিশাল মহামারিতে আক্রান্ত। করোনাভাইরাসের মতো শক্তিশালী এই ভাইরাসের বিরুদ্ধে আমাদের যুদ্ধ করতে হবে। আর সেই যুদ্ধটা করতে হবে আমাদের নিজেদের ঘরের মধ্যে থেকেই। আমরা কেউ কোথাও যাব না খুব ইমার্জেন্সি কোনো কিছু দরকার না হলে। ঘরের মধ্য থেকেই নিজের পরিবারকে নিরাপদে রাখতে হবে। পাশাপাশি অন্য পরিবারকেও নিরাপদ রাখতে হবে। আমি বিশেষত তরুণদের বলব, তারা ঘরের মধ্যে থাকতে চায় না। কারণ তারা প্রায়ই বলে, ঘরের মধ্যে এতটা সময় কাটানো যায় কি-না। তাদের উদ্দেশে বলব, সত্যি বলতে কী, একজন তরুণের কারণে যদি করোনাভাইরাস তার পরিবারের সবার মধ্যে ছড়িয়ে পড়ে, সেটা রোধ করা হয়তো আর কোনোভাবেই সম্ভব হবে না। হয়তো সেই তরুণ ছেলেটি বা মেয়েটি কোনো না কোনোভাবেই সেই পরিস্থিতি থেকে সুস্থ হয়ে উঠল। কিন্তু বাসার অন্য বয়স্করা হয়তো আর সুস্থ হয়ে নাও উঠতে পারেন। তাই নিজের পরিবারের সবার কথা ভেবে তরুণদের ঘরের মধ্যে নিজেকে গৃহবন্দি করে রাখাটাই আমি শ্রেয় মনে করি। এভাবে আমরা প্রত্যেকেই যদি নিজেদের অবস্থানে সচেতন হই, তাহলেই করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে আমরা যুদ্ধে জয়ী হতে পারবো। পরিশেষে আমি বলব, আমরা এখন নিজেদের পরিবারকে সময় দিই, নিজেরা সচেতন থাকি, দেশকে, দেশের মানুষকে সুরক্ষা করি। সবাই সম্মিলিতভাবে এ মুহূর্তে দেশের আইন কঠোরভাবে মেনে চলি, বেঁচে থাকলে ইনশাআল্লাহ আমাদের সুন্দর ভবিষ্যৎ আমরা উপভোগ করতে পারব।’

 

"