কষ্ট নেই, তবে আক্ষেপ আছে অরুণার!

প্রকাশ : ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০০:০০

বিনোদন প্রতিবেদক

দেশীয় চলচ্চিত্রের একজন শক্তিমান অভিনেত্রী অরুণা বিশ^াস। একশোরও বেশি সিনেমায় যেমন অভিনয় করেছেন নায়িকা হিসেবে; ঠিক তেমনি দুই শতাধিক সিনেমায় অভিনয় করেছেন ভার্সেটাইল অভিনেত্রী হিসেবে। বর্তমানে সবচেয়ে বেশি ব্যস্ততা তার সেন্সর বোর্ডের সদস্য হিসেবে কাজ করা নিয়ে। তার পরও তিনি চেষ্টা করেন সময় করে পেশাগত কাজ অভিনয়ে ব্যস্ত থাকতে। সেই ধারাবাহিকতায় অরুণা বিশ^াস বর্তমানে দীপ্ত টিভির প্রচার চলতি ধারাবাহিক ‘ভালোবাসার আলো আঁধার’ নাটকে অভিনয় নিয়ে বেশ ব্যস্ত সময় পার করছেন। ধারাবাহিকটির গুরুত্বপূর্ণ একটি চরিত্রে অভিনয় করছেন তিনি। অরুণা বিশ^াস জানান, নাটকটি নির্মাণ করছেন গোলাম সোহরাব দোদুল। এদিকে এখন পর্যন্ত তিন শতাধিক সিনেমায় অভিনয় করলেও জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে ভূষিত হওয়ার সৌভাগ্য হয়নি অরুণা বিশ^াসের। অবশ্য এ নিয়ে তার কোনো দুঃখবোধ নেই। নেই কোনো কষ্ট। তবে আক্ষেপ আছে তার। কারণ জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পাওয়ার মতো চরিত্রে তিনি অভিনয় করেছেন, এটা তার আত্মবিশ^াস। অনেক অনেক সিনেমার নাম বলার প্রয়োজন নেই। খান আতাউর রহমানের ‘পরশ পাথর’, শিবলী সাদিকের ‘সম্মান’, বাবরের ‘দয়াবান’, চাষী নজরুল ইসলামের ‘হাঙ্গর নদী গ্রেনেড’, এমএম সরকারের ‘আত্মসম্মান’ এবং সুভাষ দত্তের ‘আবদার’Ñ এসব সিনেমায় অরুণা বিশ^াস যে অনবদ্য অভিনয় করেছিলেন, তাতে সেই সময়কালে অনেকেরই ধারণা ছিল, জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে হয়তো যুক্ত হবে অরুণার নামটি। কিন্তু বারবার আশাহত হয়েছেন অরুণা, আশাহত হয়েছেন তার ভক্ত-দর্শক। অরুণা বিশ^াস বলেন, ‘আমি বিশ^াস করি বাংলাদেশের সিনেমাপ্রেমী দর্শক আমাকে ভালোবাসেন। আমি বিশ^াস করি, আস্থা রাখি, এক দিন হয়তো সময় হবে, এক দিন হয়তো সৎপথে থাকার বিচার হবে, এক দিন হয়তো অভিনয়ের স্বীকৃতি মিলবে জাতীয় পর্যায়ে। হয়তো সেদিন এই স্বীকৃতির প্রতি কোনো আগ্রহ বা ভালোবাসা থাকবে না। কারণ যখন মানুষের ভালোবাসার প্রয়োজন হয়, যখন মানুষের স্বীকৃতির আকাক্সক্ষা থাকে; তখন যদি ন্যায়বিচার না হয়, সময় পেরিয়ে গিয়ে তার প্রতি আশা রাখা অযথাই মনে হয়।’

 

"