চলতি বছরেই ডক্টরেট ডিগ্রি

প্রকাশ : ১২ জুলাই ২০১৯, ০০:০০

বিনোদন প্রতিবেদক

নন্দিত রবীন্দ্রসংগীত শিল্পী অণিমা রায় চলতি বছরেই ডক্টরেট ডিগ্রি অর্জন করতে যাচ্ছেন। বিগত তিন বছরেরও বেশি সময় ধরে তিনি ‘পঞ্চ গীতিকবির গানে স্বদেশ চেতনা’ বিষয়ে গবেষণা করছেন। রবীন্দ্র বিশ^বিদ্যালয়ে বর্তমান ভাইস চ্যান্সেলর বিশ^জিৎ ঘোষ ও লীনা তাপসী খানের গাইডে তিনি পিএইচডির বিষয়ে গবেষণা করছেন। অণিমা রায় আশা করছেন চলতি বছরের শেষপ্রান্তে তিনি ‘পঞ্চ গীতিকবির গানে স্বদেশ চেতনা’ বিষয়ে তার ভাবনার উপস্থাপন করতে পারবেন। যদি যথাযথভাবে তিনি গবেষণাপত্র উপস্থাপন করতে পারেন; তা হলে চলতি বছরের শেষপ্রান্তেই অণিমা রায় ডক্টরেট ডিগ্রি অর্জন করবেন। বিষয়টি নিয়ে অণিমা রায় নিজেও পুলকিত, আনন্দিত। তবে তিন বছরের বেশি সময় ধরে তার সময় যাচ্ছে বেশ চ্যালেঞ্জের মধ্য দিয়ে। কারণ, এই গবেষণা কাজ নিয়ে তার এত বেশি ব্যস্ত থাকতে হচ্ছে যে, পেশাগত অনেক কাজ থেকে তাকে বিরত থাকতে হচ্ছে। সাধারণত বড় বড় অনুষ্ঠানেই অংশগ্রহণ করতে পারছেন তিনি। এরই মধ্যে অবশ্য জগন্নাথ বিশ^বিদ্যালয়ের সংগীত বিভাগের চেয়ারম্যান হিসেবে গেল তিন বছর দায়িত্ব পালন শেষে গত ৯ জুলাই সেই দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি পান তিনি। বিভাগের একজন সহকারী অধ্যাপক হিসেবে এখন তার ব্যস্ততা। কিন্তু তার পরও অণিমা জানান, গবেষণার জন্য তিনি বিশ^বিদ্যালয় থেকে ছুটি নেবেন।

অণিমা রায় বলেন, ‘গবেষণা অনেক কঠিন একটি কাজ। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর এবং কাজী নজরুল ইসলামের গানেরই এত ব্যাপ্তি, তাদের কোনটা ছেড়ে কোনটা নিয়ে গবেষণা করবÑ সেটাই অনেক ক্ষেত্রে ভাবনার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। তবে আমি আমার গবেষণায় অনেক শ্রম দিয়ে, অনেক কষ্ট করে, একটি যথাযথ ভাবনাই উপস্থাপন করার চেষ্টা করছি। আমার দুজন গাইড বিশ^জিৎ স্যার এবং লীনা তাপসী ম্যাডাম আমাকে আন্তরিকভাবে সহযোগিতা করছেন। এখন যেহেতু গবেষণা একদম শেষ পর্যায়ে তাই ভাবছি শেষের কাজটা একটু বেশি আন্তরিকতা নিয়ে করব। তাই কটা দিন টানা ছুটিতে যাব। সবার কাছে দোয়া চাই, যেন ভালোভাবে গবেষণাটা শেষ করতে পারি।’

এদিকে ছোট্ট একটি দুর্ঘটনার মুখোমুখি হয়ে অণিমা রায় ও তার পুত্রসন্তান অমিয় কিছুটা আঘাতপ্রাপ্ত হয়ে বিশ্রামে আছেন। আর এই বিশ্রামের মধ্যেই আজ তার জন্মদিন উদ্যাপিত হবে। তার স্বামী সাংবাদিক তানভীর তারেকের উদ্যোগেই সাধারণত জন্মদিন বিশেষভাবে উদ্যাপিত হয়ে থাকে। গেল বছরের জন্মদিনটি ছিল তার স্বামীর উদ্যোগে জীবনের অন্যতম শ্রেষ্ঠ এক জন্মদিন। কিন্তু এবার কী হবে, তা তিনি জানেন না। জন্মদিন এলে অণিমা খুব মিস করেন তার বাবা কমল রায়, মা মিষ্ট রায়, বড় বোন রুমা রায়, ছোট বোন শ্যামল রায়কে। কলকাতার ‘রিইউনিয়ন’ সিনেমায় জয় সরকারের নতুন সংগীতায়োজনে অণিমার গাওয়া ‘হৃদয়ের একুল ওকুল’ গানটি কলকাতায় বেশ সাড়া ফেলে।

 

"