ঈদের পর পূবাইলে একদিন...

প্রকাশ : ১৭ জুন ২০১৯, ০০:০০

তুহিন খান নিহাল

হঠাৎ গন্তব্য গাজীপুরের পুবাইলে। ঈদের পর আবারও শুটিংয়ে জমজমাট পূবাইল। সেটা দেখতেই গেল শুক্রবার এখানে আসা। যে কখনো গ্রাম দেখেনি তার কাছে এ জায়গাগুলো স্বর্গের একটা ছায়া বলে মনে হবে। যখন ভাদুন এলাকার ভেতর দিয়ে ঢুকছিলাম তখন হৃদয়ের ভেতর আপনিতে অনুরণিত হতে থাকে রবি ঠাকুরের সেই গান ‘গ্রাম ছাড়া ঐ রাঙা মাটির পথ অমায় মন ভুলায়রে... ’। কারণ গ্রামটা অনেক সুন্দর। আর পূবাইলে যত শুটিং হয় তার প্রায় বেশির ভাগই হয় এ গ্রামে। পূবাইল রেলগেট থেকে হাতের বাঁয়ে এবং ডানে যে পথ দুটি চলে গেছে তার পুরোটাই সবুজ-শ্যামলে আচ্ছাদিত। নীরব আঁকা-বাঁকা ডানপাশের পথটিতে বেশ কয়েকটি শুটিংবাড়ি। পথের পাশেই ‘হাসনাহেনা’ শুটিং স্পট। বিশাল জায়গাজুড়ে অত্যন্ত গোছানো ও পরিপাটি একটি রিসোর্ট। যেখানে গেলেই মন জুড়িয়ে যায়। সেদিন ঢুকতেই চোখে পড়ে শুটিংয়ের আমেজ। পরিচালক নিয়াজ মাহবুব বলছেন অ্যাকশন, ক্যামেরার অপর পাশে তানভীর ও রিমি করিম অভিনয় করছেন। পাশাপাশি ক্যামেরার কারসাজিটাও করছেন নিয়াজ মাহবুব। খোঁজ নিয়ে জানা গেল, এখানে একটি ধারাবাহিক নাটকের শুটিং চলছে। পান্থ শাহরিয়ারের রচনায় ‘জলকুমারি’ শিরোনামের এই ধারাবাহিকটি বিটিভিতে প্রচারিত হবে। শুটিংবাড়ির এক কোণে অবস্থিত মেকাপ রুমে দেখা মিলল অভিনেত্রী মৌটুসী বিশ্বাসের সঙ্গে। তিনি এই নাটকে একজন বিধবা নারীর চরিত্রে অভিনয় করছেন। নাটকটিতে জলকুমারি চরিত্রে রয়েছেন শারমিন জোহা শশী। এছাড়াও রয়েছেন মামুনুর রশীদ, সোলায়মান খোকা, শতাব্দী ওয়াদুদ, তুষার খান, মৌটুসী বিশ্বাস, তানভীর, রিমি করিম, পান্থ আফজাল, বিশাখা শ্যামলীসহ অনেকে। এখান থেকে বেরিয়ে আবারও পূবাইল স্টেশন রোড। সেখান থেকে রিকশায় চড়ে গন্তব্য ছিল হারুনের বাড়ি শুটিং স্পট। কিন্তু কিছু দূর যেতেই দেখা গেল কিছুটা দর্শক সমাগম। একটি বাড়ি থেকে ভেসে আসছে অ্যাকশন-কাট শব্দ। এগোতেই দেখা গেল, ফজলুর রহমান বাবু ও সালাউদ্দিন লাভলু শর্ট দিচ্ছেন। ক্যামেরার পেছনে অ্যাকশন বলছেন নির্মাতা সাগর জাহান। সেখানে ‘সোনার খাঁচা’ শিরোনামের একটি ধারাবাহিক নাটকের শুটিং চলছে। বৃন্দাবন দাসের রচনায় নাটকটি প্রতি সপ্তাহের বৃহস্পতিবার, শুক্রবার ও শনিবার রাত ৮টা ২০ মিনিটে এনটিভিতে প্রচারিত হচ্ছে। এ নাটকে অভিনয় করছেন চঞ্চল চৌধুরী, তানজিকা আমিন, নাবিলা ইসলাম, আল মনসুর, ফজলুর রহমান বাবু, আ খ ম হাসান, শাহানাজ খুশি, শানু, আরফান আহমেদ প্রমুখ। নির্মাতা সাগর জাহান জানালেন, সামনেই শুটিং করছেন মোশাররফ করিম। চিকন একটি রাস্তা ধরে সামনে চললাম। পাশেই চিৎকার হচ্ছে মনে হবে কেউ মারামারি করছেন। রীতিমতো ঘাবড়ে ওঠার মতো। দূর থেকে মনে হলো শুটিং হচ্ছে। একটু এগোতেই দর্শকদের সমাগম। প্রোডাকশন থেকে বলা হলো সামনে যাওয়া যাবে না। পরিচয় দেওয়াতে মিলল সামনে এগোবার অনুমতি। তখনো মেকাপ নিচ্ছেন একজন বৃদ্ধ মানুষ। পরনে ধবদবে সাদা পাঞ্জাবি, গালে পাকা দাড়ি, দেখে যে কারোরই মনে হবে ৬০ বছরের কোনো এক বৃদ্ধ; তিনিই মোশাররফ করিম। একটু এগোতোই মোশারফ করিম জিজ্ঞেস করলেন কিরে কেমন আছিস? তারপরই শর্ট শুরু। সেখানে অরণ্য আনোয়ারের রচনা ও পরিচালনায় ধারাবাহিক নাটক ‘ফুল এইচডি’র শুটিং চলছে। নাটকটি প্রচারিত হচ্ছে মাছরাঙ্গা টেলিভিশনে। এতে হরেন দয়াল চরিত্রে অভিনয় করছেন মোশাররফ করিম। এছাড়াও আরো অভিনয় করেছেন সানজিদা প্রীতি, ফজলুর রহমান বাবু, মৌসুমী নাগ, আমিরুল হক চৌধুরী, শহিদুজ্জামান সেলিম, শামীমা নাজনীন, আরফান আহমেদ, জুঁই করিম, ইলোরা গহর, উজ্জ্বল মাহমুদ, আহসান আলমগীরসহ আরো অনেকে। এভাবে গোটা একদিন শুটিং দেখতে দেখতে পুবাইল থেকে বেরিয়ে এলাম। শেষে ছুুটে চললাম রাজধানী ঢাকায়।

 

"