মৌসুমী, শাবনূরের মতো হওয়ার স্বপ্ন অধরার

প্রকাশ : ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০০:০০

বিনোদন প্রতিবেদক

গত বছরের শেষপ্রান্তে নবাগত নায়িকা অধরা খান অভিনীত দুটি সিনেমা মুক্তি পায়। একটি শাহীন সুমনের ‘মাতাল’ এবং অন্যটি ইস্পাহানী আরিফ জাহানের ‘নায়ক’। দুটি সিনেমাতেই অধরার অভিনয় বেশ প্রশংসিত হয়। যে কারণে এরই মধ্যে এ দুই সিনেমার পরিচালকই তাকে নিয়ে আবার নতুন দুটি সিনেমা নির্মাণের ঘোষণা দিয়েছেন। পরিচালক শাহীন সুমন অধরা খানকে নিয়ে আগামী এপ্রিলে নির্মাণ করতে যাচ্ছেন ‘বখাটে’ নামের একটি সিনেমা। তবে এ সিনেমাতে নায়ক হিসেবে কে থাকবেন, তা এখনো চূড়ান্ত হয়নি। আবার আগামী মার্চ মাসের মাঝামাঝি সময়ে ইস্পাহানী আরিফ জাহানের নির্দেশনায় ‘সুন্দরীতমা’ সিনেমায় অভিনয় করতে যাচ্ছেন অধরা। এতে তার বিপরীতে থাকবেন রোশান। বর্তমানে দুটি সিনেমাতে অভিনয়ের জন্য প্রস্তুতি নিয়েই ব্যস্ত অধরা খান।

অধরা বলেন, ধন্যবাদ দিতে চাই বখাটে এবং সুন্দরীতমা সিনেমার শ্রদ্ধেয় পরিচালকদের। কারণ তারা আমার প্রতি বিশ্বাস রেখে আবার আমাকে নিয়ে সিনেমা নির্মাণ করতে যাচ্ছেন। এটা আমার জন্য সত্যিই অনেক বড় প্রাপ্তি। আমি বখাটে এবং সুন্দরীতমায় অভিনয়ের জন্য এখন নিজেকে তৈরি করছি। সত্যি বলতে কী অভিনয়ে আমি নিজেকে এমন একটি অবস্থানে নিয়ে যেতে চাই, দর্শক যেন আমাকে মৌসুমী আপু, শাবনূর আপুর মতো শ্রদ্ধা নিয়ে মনে রাখেন। একটি সময়ের পরও যেন তারা আমাকে আমার অভিনয়ের জন্যই ভালোবাসেন। নিজেকে একজন অভিনত্রেী হিসেবে ভাবতেই স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন অধরা খান।

অধরা আরো বলেন, নায়িকা একটি উপাধি। সিনেমাতে নায়িকা হিসেবে কাজ করছি আমি। তবে এটা সত্যি যে, আমার নিজেকে অভিনয়ে প্রমাণ করেই নায়িকা উপাধি ধরে রাখতে হবে। তাই আমি শুরু থেকেই অভিনয়ের প্রতিই বেশি মনোযোগ দিচ্ছি। অভিনয় দিয়েই আমি দর্শকের মন জয় করে এগিয়ে নিতে চাই নিজেকে। আমি কৃতজ্ঞ যাদের সিনেমাতে কাজ করেছি, সেসব শ্রদ্ধেয় পরিচালকের কাছে। কারণ তারাই মূলত আমাকে অভিনয় শিখিয়েছেন। কৃতজ্ঞ আমার সব সহশিল্পীর কাছে।

বিয়ে নিয়ে আপাতত তেমন কোনো পরিকল্পনা নেই অধরা খানের। প্রেমও করছেন না তিনি। অধরা বলেন, পর্দায় প্রেম করা নিয়েই তো ব্যস্ত থাকতে হয়। বাস্তবে প্রেম করার সময় নেই। তাছাড়া আমি মনে করি, প্রেম করার জন্য অফুরন্ত সময়ের প্রয়োজন। সেই সময়ও আমার নেই। কারণ আমি নিজেকে পুরোপুরি অভিনয়ের মধেই মগ্ন রাখতে চাই। শরীতপুরের সখিপুরের মেয়ে অধরা খানের অভিনয়ের সবচেয়ে বড় অনুপ্রেরণা তার মা। অধরার প্রিয় নায়ক রাজ্জাক ও আলমগীর।

"