‘বিস্মিত হয়েছি মুগ্ধ হয়েছি’

প্রকাশ : ০৭ ডিসেম্বর ২০১৮, ০০:০০

বিনোদন প্রতিবেদক

দেশের নাট্যাঙ্গনের এবং চলচ্চিত্রাঙ্গনের কিংবদন্তি অভিনেতা আমিরুল হক চৌধুরী। এরই মধ্যে আমেরিকা ভ্রমণ শেষে দেশে ফিরেছেন। তবে এবার আমেরিকা ঘুরতে যাবার বিষয়টা ছিল তার অভিনয় জীবনের অন্যতম একটি অধ্যায়। কারণ আমেরিকায় তিনি একসঙ্গে তিনটি সম্মাননায় ভূষিত হয়েছেন। ১৯৭১ সালে প্রতিষ্ঠিত বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েসন অব লস অ্যাঞ্জেলেস (বালা}, ‘এই তো আমরা’ এবং লস অ্যাঞ্জেলেস’এর কংগ্রেস ম্যান ব্র্রেইড সে ম্যান কর্তৃক বিশেষভাবে সম্মানিত হয়েছেন আমিরুল হক চৌধুরী। গেল ২১ অক্টোবর তিনি এই তিনটি সম্মাননায় ভূষিত হয়েছেন। সেদিন লস অ্যাঞ্জেলেসের হলিউডের সাইন্টোলজি মিলনায়তনে ‘একজন নূরু মিয়া’ নাটকটি প্রদর্শিত হয়। নাটকটি প্রদর্শনের পর বেশ দীর্ঘ সময় তার অভিনয়ে মুগ্ধ হয়ে দর্শক করতালি দেন এবং তার অভিনয়ের ভূয়সী প্রশংসা করেন। নাটক মঞ্চায়নের পর সেখানে বালার পক্ষ থেকে আমিরুল হককে আজীবন সদস্য করে নেবার পাশাপাশি তাকে সম্মাননা জানানো হয়। একই সময়ে ‘এইতো আমরা’ নামের আরেকটি সংগঠন তাকে ‘আজীবন সম্মাননা’য় ভূষিত করে। ঠিক সে সময়ই লস অ্যাঞ্জেলেসের কংগ্রেস ম্যান’এর পক্ষ থেকে তাকে সম্মাননার কথা ঘোষণা দিয়ে নিমন্ত্রণ জানানো হয়। পরবর্তীতে তিনি কংগ্রেসম্যানের অফিসে গিয়ে কংগ্রেসম্যান ব্রেইপ সে ম্যান’-এর কাছ থেকে সম্মাননাপত্র গ্রহণ করেন। একই সময়ে একসঙ্গে তিনটি সম্মাননা পেয়ে ভীষণ আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন বরেণ্য অভিনেতা আমিরুল হক চৌধুরী।

এ প্রসঙ্গে এই প্রবীণ অভিনেতা বলেন, এটা আমার অভিনয় জীবনের সত্যিই এক বিশেষ স্মরণীয় সময় ছিল। আমি এতটাই আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েছিলাম যে, বলার ভাষা হারিয়ে ফেলেছিলাম। আমার অভিনয়কে, আমাকে দর্শক এ তো ভালোবাসে আমি ভাবতেই পারিনি। আমি বিস্মিত হয়েছি, মুগ্ধ হয়েছি সবার ভালোবাসায়। এই ভালোবাসার ঋণ কোনোভাবেই শোধ করার নয়। শুধু সবার কাছে দোয়া চাই আল্লাহ যেন আমাকে সুস্থ রাখেন, ভালো রাখেন। আরো ভালো ভালো কাজ যেন দর্শককে উপহার দিতে পারি। আর অবশ্যই শুকরিয়া মহান আল্লাহর কাছে, অনেক কৃতজ্ঞতা আমার ভক্ত দর্শকের কাছে। ধন্যবাদ বালা, এইতো আমরা এবং কংগ্রেসম্যান-এর প্রতি। আমিরুল হক চৌধুরী দেশ ফিরেই আবারো অভিনয়ে ব্যস্ত হয়ে উঠেছেন। তার অভিনীত নতুন ধারাবাহিকের মধ্যে রয়েছে আল হাজেনের ‘হুলুস্থূল’ ও ফরিদুল হাসানের ‘কমেডি ৪২০’। তার অভিনীত প্রথম সিনেমা ‘অরুণোদয়ের অগ্নিসাক্ষী’। এরপর তিনি ‘চাকা’, ‘দুখাই’, ‘নিরন্তর’সহ আরো বেশ কিছু সিনেমায় অভিনয় করেছেন। মঞ্চে মানিক বন্দোপাধ্যায়ের ‘প্রাগৈতিহাসিক’ অবলম্বনে নিজের নাট্যরূপে প্রাগৈতিহাসিক নাটকটির নির্দেশনা দেন। পরবর্তীতে এটি টেলিভিশনের জন্যও নির্মাণ করেন তিনি।

"