ফোক ফেস্টের দ্বিতীয় দিন আজ

প্রকাশ : ১৬ নভেম্বর ২০১৮, ০০:০০

তুহিন খান নিহাল

সান ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে চতুর্থবারের মতো শুরু হয়েছে দক্ষিণ এশিয়ার সবচেয়ে বড় লোকসংগীতের উৎসব ‘ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ফোক ফেস্ট’। গতকাল রাজধানীর বাংলাদেশ আর্মি স্টেডিয়ামে আনুষ্ঠানিকতার মধ্যে দিয়ে এই অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করা হয়। প্রথম দিনের এই আয়োজনে দর্শকদের মনোমুগ্ধকর পরিবেশনা উপহার দেন বাংলাদেশের বাউলশিল্পী আব্দুল হাই দেওয়ান, ভাবনা নৃত্যদল, পোল্যান্ড থেকে আগত দিকান্দা, ভারতের ওয়াদালি ব্রাদার্স ও

সাত্যকি ব্যানার্জি। আজ ফোক ফেস্টের দ্বিতীয় দিন। এদিন বাংলাদেশের দুই শিল্পী মমতাজ ও স্বরব্যাঞ্জো ব্যান্ডের পরিবেশনা ছাড়াও থাকছে ভারতের রাঘু দিক্সিত, যুক্তরাষ্ট্র থেকে আগত লস টেক্সমেনিয়াক্স ও বাহ্রাইনের মাজায ব্যান্ড দলের পরিবেশনা। এদিকে ‘ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ফোক ফেস্টে’র টেলিভিশন সম্প্রচারে রয়েছেন মাছরাঙা টেলিভিশন। এ ছাড়াও গ্রামীণফোনের অনলাইন ভিডিও স্ট্রিমিং সার্ভিসের বায়োস্কোপ লাইভে থাকছে অনুষ্ঠানটি লাইভ দেখার সুযোগ।

এক নজরে দ্বিতীয় দিনের পরিবেশনা

মমতাজ

বাংলা লোকগানের জনপ্রিয় শিল্পী মমতাজ। ভিন্নধারার গান পরিবেশনের জন্য বাংলাদেশের মানুষের কাছে সুর স¤্রাজ্ঞী নামেও বহুল পরিচিত এই শিল্পী। সংগীত জীবনের শুরুতে তার বাবা মধু বয়াতির কাছে তার সংগীতের হাতেখড়ি। পরবর্তীতে তিনি রাজ্জাক দেওয়ান এবং শেষে আব্দুর রশীদ সরকারের কাছে গান শিখেন। দুই দশকেরও বেশি সংগীত জীবনে এই শিল্পীর ৭০০টিরও বেশি একক অ্যালবাম প্রকাশ পেয়েছে। পাশাপাশি তিনি বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের সদস্য হিসেবেও সবার কাছে পরিচিত।

মাজায

অ্যারাবিয়ান উপদ্বীপ ছোট্ট আইল্যান্ড বাহ্রাইনের প্রগ্রেসিভ ফিউশন ব্যান্ড মাজায গঠিত হয় ২০১৩ সালে। প্রথমদিকে ব্যান্ডটি ‘মাযাজ’ নামে গঠিত হলেও পরবর্তীতে সৃজনশীল এবং সাদৃশ্যের কারণে নাম বদলে করা হয় ‘মাজায’। এরপর টানা কয়েকবছর লাইভ পারফরম্যান্স দিয়ে দর্শকদের মন জয় করার পর ২০১৬ সালের অক্টোবর মাসে মুক্তি পায় তাদের প্রথম

সিঙ্গেল অ্যালবাম। ২০১৭ সালের শুরু দিকে তাদের স্টুডিও রেকর্ড

‘রিহালা’ প্রশংসিত হয় বিশ্বব্যাপী। ইনস্ট্রুমেন্টের অসাধারণ মিশ্রণের সঙ্গে ফোক প্রগ্রেসিভ মিউজিক মাজাযকে এনে দেয় বিশ্বব্যাপী পরিচিত এবং পরিণত করে বাহ্রাইনের অনন্য মিউজিক গ্রুপ হিসেবে। মাজায সাম্প্রতিকালে অংশগ্রহণ করে বাহ্রাইনের সবচেয়ে বড় মিউজিক ফেস্টিভ্যাল ‘স্প্রিং অব কালচার’ এ। বর্তমানে এই ব্যান্ডে রয়েছেন জীহাদ আল হালাল- চেলো, আবদুল্লাহ্ ফয়সাল- পারকাশানস্, সালাহ্ শারাখাত- বেস এবং হামিদ আল সাঈদ -গিটার।

লস টেক্সমেনিয়াক্স

তেহানো মিউজিক থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে ম্যাক্স বাকা ১৯৯৭ সালে লস্ টেক্সমেনিয়াক্স ব্যান্ডটি গঠন করেন। পরবর্তীতে ব্লুস, ফোক, কান্ট্রি, জ্যাজ এবং রক মিউজিকের প্রভাব পাওয়া যায় টেক্সাস শহরে গড়ে ওঠা এই ব্যান্ডটির গানে। ২০১০ সালে ‘বেস্ট তেহানো অ্যালবাম বিভাগে জয় করেন সংগীতের সবচাইতে বড় পুরস্কার গ্রামি অ্যাওয়ার্ড। এ ছাড়াও দুবার স্মিথসোনিয়ান ফোকলাইফ ফেস্টিভালে অংশগ্রহণ করেন লস্ টেক্সমেনিয়াক্স। ব্যান্ড সদস্যদের মধ্যে ম্যাক্স বাকাকে বলা হয় বিশ্বের অন্যতম বাহো সেক্সতো বাদক। অপরদিকে জশ বাকা অসাধারণ অ্যাকোর্ডিয়ান বাজানোর সঙ্গে ‘তেহানো মিউজিক’ এর মে?লিক বিষয়গুলো নিজের মাঝে রপ্ত করে নিয়েছেন নিজ ভাষায়। এর নাম দিয়েছেন ‘টেক্সাস গামবো’। ড্রামার ও মাল্টি ইনস্ট্রুুমেন্টালিস্ট লরেনযো মার্টিনেয ব্যান্ডের গানে এনেছেন মেক্সিকান-চিকানো আমেরিকান প্রভাব। নোয়েল হার্নান্দেয ‘তেহানো মিউজিক’ চর্চার প্রধান স্থান রিও গ্রান্দে ভ্যালিতে বড় হবার কারণে ব্যান্ডে তার ভূমিকা অপরিসীম। এছাড়াও লস্ টেক্সমেনিয়াক্স এ আছে উইল জে.লস, ফ্লাকো ইয়েমিনেয।

রাঘু দিক্সিত

রাঘুপতি দ্বারকানাথ দিক্সিত, গায়ক-সুরকার, মিউজিক প্রযোজক বর্তমান সময়ে ভারতের লোকসংগীত শিল্পীদের মাঝে জনপ্রিয় নাম। ১৯৭৪ সালে ১১ই নভেম্বর এই গুণি শিল্পীর জন্ম। ২০০৫ সালে তিনি তৈরি করেন রাঘুদিক্সিত প্রজেক্ট নামে একটি ব্যান্ড। মর্ডান এবং আন্তর্জাতিক সুরকে সঙ্গী করে রাঘু দিক্সিত প্রজেক্ট পরিবেশন করেন ভারতের বিভিন্ন অঞ্চলের লোকজসংগীত। রঙিন লুঙ্গি এবং ফতুয়া পরে মঞ্চ মাতানো এই দলটির গানে পাওয়া যায় কান্নাড়া কবিতার অনুপ্রেরণা। রাঘুদিক্সিত প্রজেক্টের গানে পাওয়া যায় গ্লোবাল মিউজিকের সুর, শব্দ যা কিনা বলে ভারতের শেকড়, সাংস্কৃতির ঐতিহ্য এবং আবেগের কথা। বিবিসির ‘লেটার উইথ জুলস হল্যান্ড’, ‘গ্যাস্টনব্যারি’ ফেস্টিভ্যালের মতো বিশ্বের বিভিন্ন বড় বড় মিউজিক ফেস্টিভ্যাল মাতিয়েছে তিনি। সাম্প্রতিককালে ব্যান্ডটি সিডনি অপেরা হাউসে তাদের শেকড় সন্ধানী গান পরিবেশন করেন। বর্তমানে রাঘুদিক্সিত প্রজেক্ট ব্যান্ডের সদস্যরা হলেন- রাঘুপতি দ্বারকানাথ দিক্সিত, নেরেশ নাথান, জো জ্যাকব, নাভিন

থমাস।

স্বরব্যাঞ্জো

রাজশাহীর স্বরব্যাঞ্জো, যারা প্রথম বাংলাদেশে ‘কপিলেফট মুভমেন্টের’ অভিষেক করেছে। এটি একটি ফোকফিউসন ব্যান্ড এবং এই ব্যান্ড তাদের সব গান অব্যবসায়িকভাবে শেয়ার করে থাকে ক্রিয়েটিভ কমন লাইসেন্সের মাধ্যমে। ২০১৪ সালে গঠিত হওয়া এই ব্যান্ডের সদস্য বেড়েই চলেছে। বর্তমান এই ব্যান্ড সদস্য, ভোকাল: বগা তালেব, রপক আহমেদ, আসিফ হাসান নিলয়, রাতুল সরকার।

"