ঢাকা লিট ফেস্টে মনীষা

প্রকাশ : ১০ নভেম্বর ২০১৮, ০০:০০

বিনোদন প্রতিবেদক

বলিউডের নন্দিত অভিনেত্রী মনীষা কৈরালা। গতকাল ঢাকা লিট ফেস্টের দ্বিতীয় দিনে বাংলা একাডেমিতে বেলা সোয়া ১১টায় ‘ব্রেকিং ব্যাড’ অধিবেশনে ক্যানসারজয়ী এই অভিনেত্রী জীবনের নানা বিষয়সহ নিজের লেখা প্রথম বই ‘দ্য বুক অব আনটোল্ড স্টোরিজ’ প্রসঙ্গেও কথা বলেন। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন ঢাকা লিট ফেস্টের পরিচালক সাদাফ সায্।

মিডিয়া ট্রায়ালে বিশ্বাসী নন বলে উল্লেখ করে এই বলিউড অভিনেত্রী নির্ধারিত আলোচনার পর দর্শকের এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, হ্যাশ ট্যাগ মি টু ভারতে যেমন তোলপাড় করছে, তেমনি বাংলাদেশেও এর আভাস পাওয়া যাচ্ছে। বলিউডের প্রখ্যাত অভিনেতা নানা পাটেকার, নির্মাতা সাজিদ খানের বিরুদ্ধেও উঠেছে একই অভিযোগ। যারা ভুক্তভোগী, তাদের সঙ্গে কথা না বলে এসব অভিযোগের বিরুদ্ধে তদন্তের বিষয়টিকে কীভাবে দেখেন- এমন প্রশ্নের জবাবে মনীষা কৈরালা বলেন, ‘নারীর ক্ষমতায়নে আমি বিশ্বাসী। কিন্তু আমি সোশ্যাল মিডিয়া ট্রায়ালে বিশ্বাসী না। দায়ীদের বিরুদ্ধে যথাযথ তদন্ত করে বিচারের আওতায় নিয়ে আসায় আমি বিশ্বাসী। একজন নারী হিসেবে আমি নিজেকে কখনোই ভুক্তভোগী মনে করি না। আমি নিজেকে একজন সার্ভাইভার মনে করি। আমি একজন যোদ্ধা।’ মনীষা আরো বলেন, ‘নারীদের শক্ত হতে শিখতে হবে। অবিচার আমার কাছে অগ্রহণযোগ্য। সেটা যেখানেই হোক।’ চলচ্চিত্রে নিজের অভিজ্ঞতা থেকে মনীষা বলেন, ৯০-এর দশকে দেখতাম একই ধরনের ছবি নির্মাণের প্রবণতা বেশি। আমি এর বাইরে কিছু করতে চাইতাম। আমি এই গ-ির বাইরে যেতে চাইতাম। নিজের মতো করে অভিনয় করার মধ্যেও এক ধরনের প্রশান্তি কাজ করে। এর বাইরে আমি সিরিয়াস ধাঁচের সিনেমাও করেছি। আমি সৌভাগ্যবান ছিলাম কারণ আমি কতগুলো গুণী নির্মাতাকে আমার আশপাশে পেয়েছি। তাদের কাছ থেকে সুযোগগুলোর উৎস হওয়ায় আমার সিদ্ধান্ত নিতে সুবিধা হয়েছে। তিনি আরো বলেন, ‘আমার মনে হয়েছিল যে আমার চ্যালেঞ্জগুলো নিতে হবে। মানুষের মনমানসিকতা বুঝতে পারাটাও একটা বড় বিষয়। অন্যের প্রেক্ষাপট নিজের আয়ত্তে নিয়ে আসাও একটা বড় চ্যালেঞ্জ।

 

"