চলচ্চিত্রে নাজিরা মৌ সঙ্গে ইন্দ্রনীল

প্রকাশ : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০

বিনোদন প্রতিবেদক

দীর্ঘদিন ধরেই টিভি নাটকে অভিনয় করছেন নন্দিত নাট্যাভিনেত্রী নাজিরা মৌ। অভিনয়ের এই পথচলায় অনেক চলচ্চিত্রেই অভিনয় করার প্রস্তাব পেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু গল্প এবং চরিত্র পছন্দ না হওয়ায় চলচ্চিত্রে অভিনয়ে দেখা যায়নি তাকে। কিন্তু নির্মাতা সোয়াইবুর রহমান রাসেলের কাছ থেকে যখন ‘নন্দিনী’ চলচ্চিত্রে অভিনয়ের প্রস্তাব পান, তখন নাজিরা মৌ অভিনয় থেকে আর নিজেকে দূরে সরিয়ে রাখতে পারেননি। গেল ফেব্রুয়ারিতেই তিনি রাসেলের ‘নন্দিনী’ চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য চুক্তিবদ্ধ হন এবং যথারীতি এই চলচ্চিত্রের নায়ক কলকাতার ইন্দ্রনীল সেনগুপ্তর দেওয়া শিডিউল অনুযায়ী গেল ২০ সেপ্টেম্বর থেকে এর শুটিং শুরু হয়েছে। পরিতোষ বাড়ৈর গল্প এবং সংলাপে নির্মিত হচ্ছে ‘নন্দিনী’ চলচ্চিত্রটি। এই চলচ্চিত্রে নামভূমিকায় অভিনয় করছেন নাজিরা মৌ এবং এতে পলাশ নামক সাংবাদিকের ভূমিকায় অভিনয় করছেন ইন্দ্রনীল সেনগুপ্ত।

গত ২২ ও ২৩ সেপ্টেম্বর রাজধানীর বোটানিক্যাল গার্ডেনে ‘নন্দিনী’র শুটিং হয়। সেখানেই কথা হয় নাজিরা মৌ ও ইন্দ্রনীল সেনগুপ্তর সঙ্গে। মৌ বলেন, ‘নন্দিনীর গল্প আমার এবং আমার মায়ের পছন্দ হওয়ায় এই চলচ্চিত্রে আমার কাজ করা। রাসেলের নির্দেশনায় এর আগে আমি নাটকে অভিনয় করেছি। চলচ্চিত্রে আমি প্রথম কাজ করছি। ইন্দ্রনীল একজন শিল্পী হিসেবে ভীষণ অমায়িক এবং দারুণ সহযোগিতাপরায়ণ। প্রতিটি দৃশ্যে অভিনয়ের আগে ইন্দ্রনীলই আমাকে রিহার্সেলে উদ্বুদ্ধ করছে, যেন অভিনয়টা স্বাভাবিক হয়। সবমিলিয়েই আমার প্রথম চলচ্চিত্রের কাজ অনেক ভালো হচ্ছে। ‘নন্দিনী’ চলচ্চিত্রে অভিনয় প্রসঙ্গে ইন্দ্রনীল সেনগুপ্ত বলেন, ‘এই নিয়ে তৃতীয়বারের মতো ঢাকার চলচ্চিত্রে কাজ করছি। নিঃসন্দেহে ‘নন্দিনী’র গল্পই মূলত আমাকে এই চলচ্চিত্রে কাজ করতে আগ্রহী করে তুলেছে। তাছাড়া আমার চরিত্রটিও বেশ চ্যালেঞ্জিং। বেশ গোছানো ও পরিপাটি একটি ইউনিট। যে কারণে কাজ করেও ভীষণ ভালো লাগছে। আমার প্রধান সহশিল্পী নাজিরা মৌ, তার সঙ্গে প্রথম কাজ করছি আমি। মৌ খুব ভালো অভিনয় করছে। ভীষণ কো-অপারেটিভও মৌ।’

আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর চট্টগ্রামে ট্রেনে যেতে যেতে ‘নন্দিনী’র শুটিংয়ে অংশ নেবেন ইন্দ্রনীল ও নাজিরা মৌ। প্রথম লটের শুটিং শেষে পরের দিন সকালের ফ্লাইটে ঢাকায় ফিরে কলকাতা ফিরে যাবেন ইন্দ্রনীল। ‘নন্দিনী’তে আরো যারা অভিনয় করছেন তারা হচ্ছেনÑফজলুর রহমান বাবু, মুনিরা ইউসুফ মেমী, ইলোরা গহর ও নিকুল কুমার মন্ডল। এর আগে ইন্দ্রনীল সেনগুপ্ত বাংলাদেশে রেদওয়ান রনির ‘চোরাবালি’ এবং মোস্তফা কামাল রাজের ‘সম্রাট’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছিলেন।

"