প্রশংসিত অপূর্ব ছেলে আয়াশ

প্রকাশ : ৩১ আগস্ট ২০১৮, ০০:০০

বিনোদন প্রতিবেদক

জনপ্রিয় অভিনেতা জিয়াউল ফারুক অপূর্ব ও তার সহধর্মিণী নাজিয়া হাসান অদিতির একমাত্র ছেলে আয়াশ। ২০১৪ সালের ২৭ জুন জন্ম নেয় জায়ান ফারুক আয়াশ। কিন্তু আয়াশের বেড়ে ওঠার সঙ্গে সঙ্গে কখনোই অপূর্ব কিংবা অদিতির আয়াশকে ঘিরে অভিনয়ের বিষয়টা তাদের ভাবনায় ছিল না। অনেকটা হঠাৎ করেই আয়াশের অভিনয়ে আসা। আয়াশের শরীরে অপূর্বর রক্তই প্রবাহিত হচ্ছে বলে অভিনয়টাও যেন তাকে শিখে আসতে হয়নি। আর তাই গেল ঈদে শিহাব শাহীন পরিচালিত ‘বিনি সুতোর টান’ টেলিছবিতে বাবার সঙ্গে আয়াশের অভিনয় দর্শক প্রাণভরে উপভোগ করেছেন। এতদিন অপূর্ব তার নিজের নাটকের জন্য দর্শকের কাছ থেকে প্রশংসা পেতেন, আর বিগত এক সপ্তাহেরও বেশি সময় ধরে অপূর্ব প্রতিদিন তার ছেলে আয়াশের অভিনয়ের জন্য প্রশংসা শুনছেন। শুধ অপূর্বই নন, আয়াশের আম্মু অদিতিও প্রতিদিন অনেক মেসেজ পাচ্ছেন, আয়াশের জন্য দর্শক মন থেকে দোয়া করছেন। অদিতি সবার মেসেজের উত্তরও দিতে পারছেন না। নাট্যাঙ্গনেও আয়াশের অভিনয় নিয়ে আলোচনা হচ্ছে।

মূলকথা অভিনয় আঙিনার আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়েছে ছোট্ট আয়াশ। আয়াশ নিজেও জানেনা তার অভিনয় কেমন হয়েছে। কিন্তু যখন তাকে প্রশ্ন করি, তোমার কেমন লেগেছে অভিনয় করতে? জবাবে আয়াশ বলে, ‘পাপার সঙ্গে অভিনয় করতে আমার খুবই ভালো লেগেছে।’ আয়াশের আম্মু অদিতি জানান, আয়াশ তো আসলে বুঝতে পারেনি যে এটা অভিনয়। তাই আয়াশ নিজেও যখন টেলিছবিটি দেখে, তখন বাবার কাছ থেকে তাকে নিয়ে যাওয়ার দৃশ্য দেখে আয়াশও কাঁদছিল। আয়াশের অভিনয়ে মুগ্ধ সারা দেশের দর্শক।

এ প্রসঙ্গে আয়াশের আম্মু অদিতি বলেন, ‘সত্যি বলতে কী আয়াশ অভিনয় করবে এটা আমি কিংবা অপূর্ব কখনো ভাবিনি। আবার এটাও ভাবতাম যে আয়াশ বড় হয়ে যদি অভিনয়ের সঙ্গে নিজেকে সম্পৃক্ত না রাখতে চায়, এ কারণে ছোটবেলায় এমন একটা চরিত্রে তাকে দিয়ে অভিনয় করিয়ে রাখি সে যেন বড় হয়ে দেখতে পারে। সেই ভাবনায় এই টেলিছবিতে অভিনয় করা। কিন্তু প্রচারের পর দর্শকের কাছ থেকে এত সাড়া পাব, ভাবতেও পারিনি। আমি মা হিসেবে অনেক গর্বিত।’

মুঠোফোনে নেপাল থেকে অপূর্ব বলেন, ‘বাবা হিসেবে আমি আজ সত্যিই গর্বিত। আমাদের আয়াশের জন্য সবাই দোয়া করবেন।’

 

"