শেষ হচ্ছে বৈশাখী টেলিভিশনের ঈদের ৬ ধারাবাহিক

প্রকাশ : ২৮ আগস্ট ২০১৮, ০০:০০

বিনোদন প্রতিবেদক
ama ami

আজ ঈদের সপ্তম দিন। শেষ হচ্ছে বৈশাখী টেলিভিশনের ৬ ধারাবাহিক। এবার ঈদ অনুষ্ঠানমালায় ধারাবাহিক, একক, মেগাসহ ২০টি নাটক প্রচার হয়। এসব নাটকের কোনো কোনোটি আবার গত ঈদুল ফিতরে প্রচারিত তুমুল জনপ্রিয়তা পাওয়া নাটকের সিক্যুয়েল। নির্দিষ্ট সময়ে প্রচার হওয়া এসব নাটকের শেষ পর্ব প্রচার হচ্ছে আজ।

ছয়টি ধারাবাহিক নাটকের মধ্যে প্রতিদিন দুপুর ১টা ৩০ মিনিটে প্রচার হয় ‘খোকা কঞ্জুস’। জাহিদ হাসান, দীপা খন্দকার, ছন্দা, জোভান অভিনীত নাটকটি রচনা করেছেন রুহুল আমিন পথিক। পরিচালনায় শাহরিয়ার সুমন। প্রতিদিন সন্ধ্যা ৬টা ২০ মিনিটে ছিল ‘কিপ্টা দুলাভাই’। রচনায় আসাদুজ্জামান সোহাগ। পরিচালনায় রুমান রুনি। অভিনয়ে ছিলেন জাহিদ হাসান, সাজু খাদেম, আরফান, নাদিয়া, মিম, কাজল সুবর্ণাসহ অনেকে। প্রতিদিন রাত ৭টা ৩০টায় প্রচার হয় ‘ব্রেক ফেইল-৪’। টিপু আলম মিলনের গল্পে নাটকটি রচনা ও পরিচালনা করেছেন আকাশ রঞ্জন। অভিনয়ে সাজু খাদেম, মিশু সাব্বির, অহনা, নাজিরা মৌ, মম মোরশেদ, কচি খন্দকারসহ অনেকে।

প্রতিদিন রাত ৯টা ১৫ মিনিটে ছিল সাজিন আহমেদ বাবুর রচনা ও পরিচালনায় ‘কিড সোলায়মান-২’। অভিনয়ে মোশাররফ করিম, জুঁই করিম, মিলন ভট্ট, তারিক স্বপনসহ অনেকে।

প্রতিদিন রাত ১০টা ৩০ মিনিটে প্রচার হয় আদিবাসী মিজানের রচনা ও পরিচালনায় ‘লাল দালান’। নাটকটিতে এই প্রথম অভিনয় করেছেন কণ্ঠশিল্পী কাজী শুভ। তার সঙ্গে রয়েছেন আ খ ম হাসান, শখ, বাবর, জামিল, বড়দা মিঠু, এহছানুল হক মিনু, শামীমা নাজনীন, অনুভব, পাভেলসহ অনেকে।

প্রতিদিন রাত ১১টা ১০ মিনিটে ছিল ‘বউয়ের দোয়া পরিবহন’। আলমগীর আহসানের রচনায় নাটকটি পরিচালনা করেছেন ফরিদুল হাসান। অভিনেতা-অভিনেত্রী হলেন আ খ ম হাসান, জামিল, মৌসুমী হামিদ, আলভী, সানজিদা তন্ময়, রাশেদ সীমান্ত, চিত্রলেখা গুহ, আমিরুল হক চৌধুরীসহ অনেকে।

ঈদ নাটক নিয়ে বলতে গিয়ে বৈশাখী টিভির উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান সম্পাদক টিপু আলম মিলন বলেন, ‘গত ঈদুল ফিতরে বিশ^কাপ ফুটবলের উন্মাদনার মধ্যেও আমাদের নাটকগুলো ব্যাপক জনপ্রিয়তা পায়। বিশ^কাপ ফুটবল সম্প্রচার করা চারটি টিভি চ্যানেলের পর বৈশাখী টিভিই ছিল টিআরপির শীর্ষে। আমাদের মূল উদ্দেশ্য দর্শকদের বিনোদন দেওয়া। এবারও তার ব্যত্যয় যাতে না হয়, সে ব্যাপারে যথেষ্ট সচেষ্ট ছিলাম আমরা। কতটুকু পেরেছি সে বিচারের ভার দর্শকের। তবে এ ধারা যাতে আগামীতেও অব্যাহত থাকে তার জন্য প্রতিনিয়ত কাজ করে যেতে চাই আমরা।’

"