অভূতপূর্ব সাড়া ওমর সানীর

প্রকাশ : ১১ আগস্ট ২০১৮, ০০:০০

বিনোদন প্রতিবেদক

বিগত তিন-চার বছরে নতুন নতুন বেশ কয়েকটি বিজ্ঞাপনে মডেল হিসেবে কাজ করে বেশ আলোচনায় এসেছেন চিত্রনায়ক ওমর সানী। বিজ্ঞাপন নির্মাতারাও তাকে নিয়ে বিজ্ঞাপন নির্মাণের ক্ষেত্রে একটু ভিন্নভাবে উপস্থাপনের কথাই ভাবছেন। অবশ্য ওমর সানীও নতুন বিজ্ঞাপনে কাজ করার আগে পণ্য, নির্মাতা এবং বিজ্ঞাপনের গল্পের প্রতিও বিশেষভাবে মনোযোগ দেওয়ার চেষ্টা করছেন। যে কারণে হরহামেশা বিজ্ঞাপনে মডেল হিসেবে তাকে দেখা যাচ্ছে না। তবে গেল ঈদের কয়েকদিন আগে তিনি ও তার সহধর্মিণী অভিনেত্রী মৌসুমীর সঙ্গে নতুন একটি বিজ্ঞাপনে মডেল হিসেবে কাজ করেন। গল্প অনুযায়ী বিজ্ঞাপনের অধিকাংশ ক্ষেত্রেই ওমর সানীর উপস্থিতি রয়েছে। ওমর সানী ও মৌসুমীর নতুন বিজ্ঞাপনটি গত বুধবার থেকে দেশের প্রায় সবগুলো চ্যানেলেই একযোগে প্রচার শুরু হয়েছে।

বিজ্ঞাপনটির শুরুতেই মৌসুমীর মুখের সংলাপটি ছিল এমন, ‘হাই সানী বেস্ট অব লাক’...। এরপর সানী টিফিন ক্যারিয়ারে করে স্ত্রী মৌসুমীর রান্না করা খাবার নিয়ে অফিসে যান। কিন্তু অফিসে যেতে যেতে যত স্থানে তিনি সবার মুখোমুখি হন, সবাই তার খাবারের সুগন্ধি পেয়ে যান। স্ত্রীর হাতের রান্না করা খাবার অফিসে নিয়ে যেতে যেতে পথে পথে ওমর সানীর অভিনয়ে ছিল এবার একেবারেই ব্যতিক্রম, যা দর্শককে মুগ্ধ করেছে। সবার মুখে মুখে সানী ভাই, সানী ভাই সংলাপটিও দর্শকের ভালো লেগেছে। বিজ্ঞাপনটি প্রচার শুরু হয়েছে মাত্র তিন দিন। কিন্তু এই তিন দিনেই ওমর সানী যে সাড়া পেয়েছেন, তার অন্যান্য বিজ্ঞাপনের চেয়ে বহু গুণে বেশি বলে দাবি করেছেন তিনি।

ওমর সানী বলেন, কিসলুর কাজের প্রতি আমার আত্মবিশ্বাস ছিল বলেই কাজটি করেছি। জানতাম যে একটি ভালো কাজ হয়েছে। কারণ গল্পটা অসাধারণ ছিল। কিন্তু বিজ্ঞাপনটি প্রচারের পর যে এত সাড়া পাব, আমি সত্যিই ভাবতে পারিনি। বিজ্ঞাপনের আদলেই সবাই এখন আমাকে সানী ভাই, সানী ভাই বলে ডাকেন। অবশ্য আমারও বেশ ভালো লাগছে। কারণ, একটি বিজ্ঞাপন দর্শকের কতটা ভালো লাগলে তার প্রভাব পড়তে পারে, তাদের আহ্বানে। ধন্যবাদ বিজ্ঞাপনের পুরো ইউনিটকে। কারণ তারা অনেক কষ্ট করেছেন। ধন্যবাদ আমার সহধর্মিণী মৌসুমীকে, তার অনুপ্রেরণাই সব সময়ই নতুন নতুন কাজে আমি নিজেকে ভিন্নভাবে উপস্থাপনের চেষ্টা করি।

এদিকে এরই মধ্যে ওমর সানী মৌসুমী কলকাতায় ‘নোলক’ সিনেমার কাজ শেষ করেছেন। গত ঈদে ওমর সানী অভিনীত উত্তম আকাশ পরিচালিত ‘চিটাগাংইয়া পোয়া নায়াখাইল্যা মাইয়া’ চলচ্চিত্রটি মুক্তি পায়। তার আগে একই পরিচালকের ‘আমি নেতা হবো’ চলচ্চিত্র মুক্তি পায়। প্রসঙ্গত, গত ২ আগস্ট ওমরসানী মৌসুমী বিবাহিত জীবনের দুই যুগে পা রাখেন।

 

"