ওবায়দুল কাদেরের গল্পে ‘গাঙচিল’-এ ফেরদৌস-পূর্ণিমা

প্রকাশ : ০৮ আগস্ট ২০১৮, ০০:০০

বিনোদন প্রতিবেদক

চিত্রনায়ক ফেরদৌস ও চিত্রনায়িকা পূর্ণিমা একসঙ্গে চলচ্চিত্রে যেমন অভিনয় করে দর্শককে মুগ্ধ করেছেন, ঠিক তেমনি দেশে এবং দেশের বাইরে প্রায় এক শ স্টেজ শোতে একসঙ্গে পারফর্ম করে দর্শককে মুগ্ধ করেছেন। বেশ কয়েকবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানের উপস্থাপনা করার পাশাপাশি দুজন অন্যান্য অনুষ্ঠানেরও উপস্থাপনা করে প্রশংসিত হয়েছেন। গুণী এই দুই অভিনয়শিল্পী দীর্ঘ নয় বছর পর আবারও চলচ্চিত্রে জুটি হয়ে ফিরছেন। সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের উপন্যাস ‘গাঙচিল’ অবলম্বনে আগামী ডিসেম্বর থেকে নির্মাণ করতে যাচ্ছে ‘গাঙচিল’ চলচ্চিত্র। এটি নির্মাণ করবেন নঈম ইমতিয়াজ নেয়ামুল। এই চলচ্চিত্রেই নির্মাতা নেয়ামুলের পছন্দের জুটি হিসেবে আবার পর্দায় দেখা যাবে ফেরদৌস ও পূর্ণিমাকে। ‘গাঙচিল’ প্রযোজনা করতে যাচ্ছে ফেরদৌসের প্রযোজনা সংস্থা ‘নুজহাত ফিল্মস’ এবং নেয়ামুলের প্রযোজনা সংস্থা ‘ইচ্ছেমতো’। গত ৬ আগস্ট রাতে রাজধানীর একটি অভিজাত রেস্টুরেন্টে এই দুই প্রযোজনা সংস্থার ব্যানারে ফেরদৌস ও পূর্ণিমা চুক্তিপত্রে স্বাক্ষর করে আনুুষ্ঠানিকভাবে ‘গাঙচিল’ চলচ্চিত্রের সঙ্গে সম্পৃক্ত হলেন। ‘গাঙচিল’-এ পূর্ণিমাকে নেওয়া প্রসঙ্গে নির্মাতা নেয়ামুল বলেন, ‘গল্পের প্রয়োজনেই পূর্ণিমাকে নেওয়া হয়েছে। ফেরদৌস ভাইয়ের প্রযোজনায় এর আগেও আমি এককাপ চা চলচ্চিত্র নির্মাণ করেছি। এবারও নতুন চলচ্চিত্র নির্মাণে ফেরদৌস ভাই পাশে দাঁড়ালেন।

ফেরদৌস বলেন, ‘অভিনয়ে ম্যাচুউরিটি আসার পর আমাকে এবং পূর্ণিমাকে নিয়ে কেউ চলচ্চিত্র নির্মাণ করেননি। যে কারণে আমার মনে হলো এখনই সঠিক সময় আমাদের দুজনের একটি ভালো মৌলিক গল্পের চলচ্চিত্রে কাজ করা। সেই ভাবনা থেকে গাঙচিলে আমি আর পূর্ণিমা কাজ করতে যাচ্ছি।’

পূর্ণিমা বলেন, ‘ফেরদৌস আমার খুব ভালো বন্ধু। আমরা একসঙ্গে চলচ্চিত্রে, স্টেজ শোতে উপস্থাপনায় কাজ করেছি, করছি। তার প্রযোজনায়, তার গল্পে আমি এর আগে নাটকে অভিনয় করেছি। এবারই প্রথম তার প্রযোজনায় চলচ্চিত্রে অভিনয় করতে যাচ্ছি। আমার চলচ্চিত্র জীবনে এবারই প্রথম চুক্তি স্বাক্ষর করলাম আনুষ্ঠানিকতার মধ্য দিয়ে। আমি ভীষণভাবে আশা করছি, গাঙচিল অনেক ভালো একটি চলচ্চিত্র হবে। ধন্যবাদ নঈম ইমতিয়াজ নেয়ামুলকে আমাকে সঙ্গে রাখার জন্য।’

এদিকে গাঙচিলের চিত্রনাট্য করছেন মারুফ রেহমান ও প্রিয় চট্টোপাধ্যায়। গাঙচিলে ফেরদৌসকে সাংবাদিক সাগর এবং পূূর্ণিমাকে এনজিওকর্মী মোহনা চরিত্রে অভিনয়ে দেখা যাবে। প্রসঙ্গত, ফেরদৌস ও পূর্ণিমা প্রথম এম এ খান সবুজ পরিচালিত ‘মধু পূর্ণিমা’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। এরপর তারা দুজন ‘জীবন চাবি’,‘ দুর্ধর্ষ সম্রাট’, ‘বলো না ভালোবাসি’,‘ রাক্ষুসী’ এবং সর্বশেষ ২০০৯ সালে দেবাশীষ বিশ্বাসের ‘শুভবিবাহ’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছিলেন।

 

"