‘দহন’ শেষে বালি গেলেন মম

প্রকাশ : ০৯ জুলাই ২০১৮, ০০:০০

বিনোদন প্রতিবেদক

ঈদের আগে থেকে পর পর্যন্ত টানা বেশ কয়েকদিন ঈদের নাটক, টেলিফিল্মে এবং রায়হান রাফি পরিচালিত ‘দহন’ সিনেমার শুটিং করে ভীষণ ক্লান্ত হয়ে পড়েছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত অভিনেত্রী জাকিয়া মম। সেই ক্লান্তি দূর করতে এবং কয়েকটি নাটক টেলিফিল্মের শুটিং করতে গতকাল রাতের ফ্লাইটে ইন্দোনেশিয়ার বালির উদ্দেশে রওনা হয়েছেন মম। সেখানে তিনি নিজের মতো করে সময় কাটানোর পাশাপাশি বিশ্রাম নেবেন এবং বি ইউ শুভর নির্দেশনায় বেশ কয়েকটি নাটক টেলিফিল্মে, সাখাওয়াত মানিকের নির্দেশনাতেও নাটকে অভিনয় করবেন। এসব নাটকে মমর বিপরীতে থাকবেন জিয়াউল ফারুক অপূর্ব, এসএন জনি। আজ থেকে মম বালিতে নাটকের শুটিংয়ে অংশ নেবেন।

বালি যাওয়ার আগে দহন প্রসঙ্গে মম বলেন, ‘দহন’-এর গল্পটাই হচ্ছে এ সিনেমার নায়ক। যে কারণে আমি কাজটা খুব আন্তরিকতা নিয়ে করতে পেরেছি। আমার কাছে কাজটি করে অনেক ভালো লেগেছে। আমি খুব আশাবাদী দহন নিয়ে।

বালি যাওয়ার আগে গত ৬ ও ৭ জুলাই সুমন আনোয়ারের রচনা ও নির্দেশনায় মম ‘সাদা ফুল’ নাটকের কাজ শেষ করেছেন। সুমন আনোয়ারের নির্দেশনায় অভিনয় করে ভীষণ তৃপ্ত জাকিয়া বারী মম। তিনি বলেন, ‘সুমন ভাই এত চমৎকার গল্প লেখেন এবং এত সুন্দর সংলাপ লেখেন যে অভিনয় মন থেকেই চরিত্রানুযায়ী সংলাপ বলার সময় বেরিয়ে আসে। তার ইউনিটের সবচেয়ে বড় পজিটিভ দিক হলো শুটিংয়ের পুরোটা সময় ইউটিন এত শান্ত আর চুপচাপ থাকে, মন দিয়ে অভিনয় করার জন্য এমনিতেই পরিবেশ তৈরি হয়ে যায়। যদি প্রত্যেক ইউনিটে এমন পরিবেশ পাওয়া যেত, তাহলে অভিনয়শিল্পীদের কাছ থেকে আরো ভালো অভিনয় বের করে নিয়ে আসতে পারতেন নির্মাতারা।’

চলতি মাসের শেষপ্রান্তে জাকিয়া বারী মম বালি থেকে ঢাকায় ফিরে নজরুল ইসলাম রাজু, সকাল আহমেদ, হিমেল আশরাফ, ইমরাউল রাফাতের নির্দেশনায় কোরবানির ঈদের নাটকের কাজ শুরু করবেন। আগামী সেপ্টেম্বরে মম ‘বালিঘর’ চলচ্চিত্রের শুটিংয়ে অংশ নেবেন। গত ঈদে শিহাব শাহীন পরিচালিত ‘শেষ পর্যন্ত’ নাটকে তার অভিনয় বেশ প্রশংশিত হয়। এ নাটকে তার বিপরীতে ছিলেন জিয়াউল ফারুক অপূূর্ব। প্রেমের গল্পের অন্য রকম এক উপস্থাপনা ছিল ‘শেষ পর্যন্ত’তে। নাটকটিতে মম ও অপূর্বর সঙ্গে আরো অভিনয়ে ছিলেন মাজনুন মিজান, সুষমা সরকার, খালেকুজ্জামান ও সাবিহা আজিজ।

"