নেত্রকোনা-৩

আ.লীগ ও বিএনপিতে মুখোমুখি সাবেক দুই ছাত্রনেতা

প্রকাশ : ০৯ ডিসেম্বর ২০১৮, ০০:০০

কেন্দুয়া (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি

নেত্রকোনা-৩ (কেন্দুয়া-আটপাড়া) আসনে ভোটের মাঠে মুখো মুখি লড়াবেন হবে দুই সাবেক ছাত্রনেতা। নৌকা প্রতীকে ছাত্রলীগে সাবেক নেতা অসীম কুমার উকিল এবং ধানের শীষ প্রতীকে ছাত্র দলের সাবেক নেকা ড. রফিকুল ইসলাম হিলালী।

আ.লীগ প্রার্থী অসীম কুমার উকিল ছাত্রলীগ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সাবেক সাধারন সম্পাদক, কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। পরে তিনি ছাত্র রাজনীতি শেষে জাতীয় রাজনীতিতে অংশ নিয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের দুইবার উপ-প্রচার সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। বর্তমানে তিনি আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক পদে আছেন।

ধানের শীষ প্রতীক ড. রফিকুল ইসলাম হিলালী ছাত্রদল চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক সভাপতি ছিলেন। বর্তমান তিনি কেন্দ্রীয় বিএনপির সদস্য এবং কেন্দুয়া উপজেলা বিএনপির সভাপতি পদে আছেন। নবম সংসদ নির্বাচনে বিএনপির মনোনীত প্রার্থী ড. রফিকুল ইসলাম হিলালী তখনকার নৌকার মনোনীত প্রার্থী সাবেক এমপি মঞ্জুর কাদের কোরায়শীর সঙ্গে প্রতিদ্বন্ধিতা করে পরাজিত হন। ড. রফিকুল ইসলাম আগামী একাদশ সংসদ নির্বাচনে ঘুরে দাড়াতে মরিয়া হয়ে মাঠে কাজ করেছেন বলে জানান কেন্দুয়া পৌর বিএনপির সভাপতি জয়নুল আবেদীন। তিনি আরও জানান, সাধারন জনগন যদি স্বতস্ফুর্তভাবে ভোট দিতে পারে তাহলে এ আসনে বিএনপি রেকর্ড পরিমান ভোটে জয়যুক্ত হবে। কেন্দুয়া পৌর আ.লীগ সভাপতি কামরুল হাসান ভূঞা বলেন, অসীম কুমার উকিল এ আসনে জনসভা, গণসংযোগ, পথসভা, উঠোন বৈঠকের মাধ্যমে সাধারন মানুষের সঙ্গে নিবীরভাবে যোগাযোগ স্থাপনের মাধ্যমে সরকারের সাফল্য তুলে ধরছেন। আবারও নৌকায় ভোট দিয়ে শেখ হাসিনাকে ক্ষমতায় আনতে আহ্বান জানাচ্ছেন। তিনি আরও বলেন, ৩০ শে ডিসেম্বর নির্বাচনে দেশের উন্নয়ন অব্যাহত রাখতে সাধারন জনগণ নৌকাকে বিপুল ভোটে জয় করবে বলে তিনি জানান।

কেন্দুয়া ও আটপাড়া উপজেলার একটি পৌরসভা ও ২০টি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত নেত্রকোনা-৩ আসন। এখানে ১৯৯১ সালে জয় পায় আওয়ামী লীগ। ১৯৯৬ ও ২০০১ সালে টানা জয় পান বিএনপির প্রার্থী। ২০০৮ সালে আসনটি দখলে নেয় আওয়ামী লীগ। সর্বশেষ ২০১৪ সালের নির্বাচনে জাতীয় পার্টির প্রার্থীকে হারায় ক্ষমতাসীন দল।

"