সুনামগঞ্জে উচ্চ শিক্ষিতের পাশাপাশি স্বশিক্ষিতরাও প্রার্থী

প্রকাশ : ০৪ ডিসেম্বর ২০১৮, ০০:০০

আব্দুল কাইয়ূম, সুনামগঞ্জ

সুনামগঞ্জে মনোনয়নপত্র দাখিলকৃত প্রার্থীদের মধ্যে উচ্চ শিক্ষার পাশাপাশি স্বশিক্ষিতও প্রার্থী হয়েছেন। উচ্চ শিক্ষিতের মধ্যে সবার উর্ধে আছেন সুনামগঞ্জ-২ (দিরাই ও শাল্লা) আসনে ক্ষমতাশীল আওয়ামী লীগের প্রার্থী বর্তমান সংসদ সদস্য জয়া সেন গুপ্তা। তিনির পিএইচডি সম্পন্ন করেছেন। এর বাইরে আইন বিষয়ে পড়েছে একাধিক প্রার্থী। তবে এই সব শিক্ষিতের পাশে স্বশিক্ষিতের সংখ্যায়ও কম নয়। সব মিলিয়ে জেলায় উচ্চ শিক্ষিতের হারই বেশি।

একাদশ সংদস নির্বাচনের সুনামগঞ্জের ৫টি আসনে মনোনয়নপত্র দাখিল করে ছিলেন ৫২ জন প্রার্থী। গত রোববার চূড়ান্ত যাচাই-বাছাইয়ে শেষে ৪০ জনের মনোনয়ন বৈধ ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন। প্রার্থীদের মনোনয়নপত্রের সঙ্গে জমা দেওয়া হলফনামা থেকে জানা প্রার্থীদের শিক্ষাগত যোগ্যতা জানা যায়।

হলফনামা সূত্রে জানা যায়, বৃহত্তর রাজনৈতিক দলগুলোসহ আলোচিত প্রার্থীদের মধ্যে সবচেয়ে উচ্চ শিক্ষিত হলেন সুনামগঞ্জ-১ (জামালগঞ্জ, ধর্মপাশা ও তাহিরপুর) আসনে বর্তমান সংসদ মোয়াজ্জেম হোসেন রতন শিক্ষাগত যোগ্যতা ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার। বিএনপির মনোনয়ন চিঠি পাওয়াদের মধ্যে নজির হোসেন ও বিএনপির সভাপতি আনিসুল হক বিএসসি উত্তীর্ণ বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

সুনামগঞ্জ-২ (দিরাই ও শাল্লা) আসনে ক্ষমতাশীল আওয়ামী লীগের প্রার্থী বর্তমান সংসদ সদস্য জয়া সেন গুপ্তার পিএইচডি সম্পন্ন করেছেন। এছাড়া বিএনপি প্রার্থী নাছির চৌধুরী শিক্ষাগত যোগ্যতা বিএ বলে হলফনামায় উল্লেখ করেছেন। এই আসনে শুধু গণতন্ত্রী পার্টির প্রার্থী গোলজার আহমেদ শিক্ষাগত যোগ্যতা কম, তিনি এইএসসি উত্তীর্ণ উল্লেখ করেছেন।

সুনামগঞ্জ -৩ (দক্ষিণ সুনামগঞ্জ, জগন্নাতপুর) আসনে আওয়ামী লীগের বর্তমান সংসদ অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এমএ মান্নান। তিনি স্নাতকোত্তর সহ ডিপ্লোমা সম্পন্ন করেছেন। এছাড়া জাকের পার্টি শাহাজান চৌধুরী, ইসলামী আন্দোলন মুহিববুল হক চৌধুরী, গণফোরামের নজরুল ইসলাম নিজেদের স¦-শিক্ষিত বলে হলফনামায় উল্লেখ করেন। এই আসনে সাবেক সংসদ সদস্য জমিয়তের উলামায়ে ইসলামের কেন্দ্রীয় সভাপতি শাহীনুর পাশা চৌধুরী নিজের শিক্ষাগত যোগ্যতা লিখেছেন এমএ হিসেবে।

সুনামগঞ্জ-৪ (সুনামগঞ্জ সদর, বিশ্বম্ভরপুর) আসনে হলফনামা জমাদানকারী প্রার্থীদের মধ্যে ২ জনই নিজেকে স্বশিক্ষিত উল্লেখ করেছেন। এরা হলেন জেএসডির ইস্কানদর রাজা চৌধুরী, ন্যাশনাল পিপলস পার্টির মো. কামরুজ্জামান। এই আসনে বর্তমান এমপি পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ। তিনি এমএ, এলএলএম উত্তীর্ণ। স্বতন্ত্র প্রার্থী জেলা আ.লীগে বর্তমান সভাপতি মতিউর রহমান স্নাতক এবং বিএনপির সাবেক হুইপ মো. ফজলুল হক আসপিয়া এলএলবি। এছাড়া স্বতন্ত্র প্রার্থী ইনান ইসমাম হোসেন এ লেভেল উল্লেখ করন।

সুনামগঞ্জ-৫ (ছাতক, দোয়ারা) আসনে বর্তমান সংসদ মুহিবুর রহমান মানিকের শিক্ষাগত যোগ্যতা এলএলবি উত্তীর্ণ। আর বিএনপি প্রার্থী কলিম উদ্দিন মিলন এমকম, একই সংগঠনের অপর প্রার্থী মিজানুর রহমান চৌধুরীর শিক্ষাগত যোগদ্য বিএ বলে হলফনামায় উল্লেখ করেছেন। এদিকে বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্ট মো. আশরাফ হোসেন এবং বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টির (ন্যাপ) প্রার্থী আব্দুল ওদুদ নিজেদের শিক্ষাগত যোগ্যতা এসএসসি উল্লেখ করেন।

"