ঈদ উৎসবে ‘বিশ্বরঙ’ ২০১৯

প্রকাশ : ০৪ জুন ২০১৯, ০০:০০

জীবনযাপন প্রতিবেদক

ঈদ মানেই অনাবিল আনন্দ, তাই ঈদকে কেন্দ্র করে ‘বিশ্বরঙ’-এর ব্যাপক প্রস্তুতি চলছে সারা বছরজুড়ে। কেননা ঈদ ঘিরেই আমাদের দেশের মূল ফ্যাশন সংস্কৃতি গড়ে উঠেছে। সারা বছরজুড়ে ফ্যাশন নিয়ে যত নতুন ধরনের পরীক্ষা-নিরীক্ষা হয়, তার বহিঃপ্রকাশ ঘটে প্রতিবারের ঈদে। তাই সুদীর্ঘ ২৩ বছর ধরে নিত্যনতুন ট্রেন্ড নিয়ে ‘বিশ্বরঙ’ ঈদ আয়োজন করে থাকে।

এবারের ঈদ প্রচন্ড গরমের পরপরই বর্ষার মধ্যে হওয়ায়, বিশ্বরঙ বর্ষার বৈশিষ্ট্যকে ধারণ করে সাজিয়েছে এবারের ঈদ আয়োজন। পোশাকের ধরনটা এবং কী ধরনের উপকরণ ব্যবহার করা হবে বিশ্বরঙ আগে থেকেই চিন্তাভাবনা করে রেখেছে। বিশ্বরঙ চেষ্টা করেছে ঈদ উৎসবে আরামটাকে কীভাবে বেশি দেওয়া যায়। এজন্য সুতি কাপড় প্রাধান্য দেওয়া হয়েছে।

এ ছাড়া উৎসবে অনেকেই জমকালো পোশাক পছন্দ করে সেক্ষেত্রে ক্রেতাসাধারণের চাহিদা অনুসারে এন্ডি, এন্ডি সিল্ক, সিল্ক, মসলিন, রেশমি কটনের পোশাকে, সাধারণ ও ভরাট নকশার সূক্ষ্ম কাজ করা হয়েছে। সালোয়ার-কামিজের কাটিং এবং প্যাটার্নে অনেক নতুনত্ব আনা হয়েছে, প্যাটার্নে রয়েছে লেয়ার কাট, লং লেয়ার কাট, কোটি, ড্রাপিং টেংনিক, পিনটাক ছাড়াও থাকছে নিরীক্ষামূলক কাজের ভিন্ন ভিন্ন প্রয়াস। বরাবরই রঙের সমাহারকে বিশ^রঙ বেশি প্রাধান্য দিয়েছে।

রং বৈচিত্র্যে বর্ষার নীল রং ছাড়াও হালকা বা উজ্জ্বল সব রঙের কম্বিনেশন ব্যবহৃত হয়েছে। এ ছাড়া সেলফ সুতার লাইট ও ডিপ কালার ব্যবহার করা হয়েছে একই পোশাকে। এ ছাড়াও বিশ^রঙের বৈশিষ্ট্য উজ্জ্বল রঙের ট্রেন্ড বা ধারা বজায় রয়েছে। বিভিন্ন ধরনের নকশা ব্যবহার করা হয়েছে। ব্লক, টাইডাই, স্ক্রিনপ্রিন্ট, অ্যাপলিক, এমব্রয়ডারি, কারচুপি, আড়ি, হাতের ভরাট কাজ, লেস, কাতানপাড় ইত্যাদি মিডিয়া হিসেবে ব্যবহার করে ভিন্ন এক নান্দনিকতার রূপ দেওয়া হয়েছে প্রতিটি পোশাকে।

তাঁতের এক্সক্লুসিভ শাড়ির পাশাপাশি হাফসিল্ক, জামদানি, কাতান, মসলিন, রেশমি কটন শাড়ি নিয়ে কাজ করা হয়েছে। এ ছাড়াও আধুনিক সৌন্দর্য চেতনাকে সামনে রেখে পোশাকের পাশাপাশি আনস্টিচ থ্রিপিস, মগ, ওড়না, ব্লাউজ পিস, রুমাল, বিছানার চাদর, কুশন কভার, ফ্যাশনেবল ব্যাগ ও নানা রকম বৈচিত্র্যময় সুন্দর ও প্রয়োজনীয় গৃহস্থালি পসরা বসেছে বিশ্বরঙের সব শোরুমে।

বিশ^রঙের যেকোনো পণ্য আপনি কিনতে পারেন অনলাইনেও www.bishworang.com ।

ঘরে বসে সামগ্রী পেতে ব্যবহার করুন হোম ডেলেভারি সার্ভিস, ফোন করুন ০১৮১৯২৫৭৭৬৮।

"