স্বাগত : জনকল্যাণে চিকিৎসাসেবা

প্রকাশ : ১৪ মার্চ ২০১৯, ০০:০০

অনলাইন ডেস্ক

সাদাকে সাদা বলার সংস্কৃতি থেকে আমরা যেন যোজন যোজন দূরে সরে এসেছি। বিষয়টি এক দিনে হয়নি। দীর্ঘ সময়ের অনুশীলনের মধ্য দিয়েই আমাদের এই প্রাপ্তি। এ প্রাপ্তি কারো জন্যই সুখকর কিংবা কল্যাণকর হয়নি। তবু আমরা কালোকে কালো আর সাদাকে সাদা বলতে পারছি না। কথায় আছে মানুষ অভ্যাসের দাস। সাদাকে সাদা না বলার অভ্যাস আমাদের জিনে পরিবর্তন ঘটিয়ে টেনে নামিয়ে এনেছে এক নির্লজ্জ সংস্কৃতিতে। আমরা এখন আর কালোকে কালো বলি না, সাদাকেও তথৈবচ। সংস্কৃতির এই পরিবর্তনেরও একটা পরিবর্তন দরকার। হারিয়ে যাওয়া সেই ইতিবাচক সংস্কৃতিতে ফিরে গিয়ে বলতে চাই, আমরা সাদাকে সাদা বলব, কালোকে কালো। এখানে উল্লেখ না করলেই নয়, কালোকে কালো আর সাদাকে সাদা বলতে পারার সক্ষমতার মধ্য দিয়েই আমরা আমাদের স্বাধীনতাকে ছিনিয়ে আনতে সক্ষম হয়েছি।

আজ আমরা একটি স্বাধীন দেশের নাগরিক। সেই স্বাধীন দেশের প্রধান নির্বাহী বলেছেন, সব সরকারি হাসপাতালে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র বা আইসিইউ স্থাপনের নির্দেশ দিয়েছেন। তিনি আরো বলেছেন, দেশের সরকারি হাসপাতালগুলোর চিকিৎসকরা অফিস সময়ের পর সরকারি হাসপাতালেই যেন প্রাইভেট প্র্যাকটিসের সুযোগ পান, সে ব্যবস্থা গ্রহণেরও নির্দেশ দিয়েছেন স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে। এ ছাড়া রয়েছে আরো একটি ইতিবাচক সংবাদ। প্রধান নির্বাহীর নির্দেশে দেশের আটটি বিভাগে ১০০ শয্যার ক্যানসার সেন্টার নির্মাণ করবে সরকার। ১ হাজার ৬০০ কোটি টাকা ব্যয়ে আটটি সেন্টার নির্মাণে এরই মধ্যে ডেভেলপমেন্ট প্রজেক্ট প্রোফর্মা (ডিপিপি) তৈরি করে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। চলতি বছরের জুলাইয়ে ক্যানসার সেন্টারগুলোর কাজ শুরু হবে বলে আশা করা হচ্ছে। নিঃসন্দেহে নির্দেশ দুটি সর্বসাধারণের জন্য সুখবর, বিশেষ করে ভুক্তভোগীদের। এ দেশে স্বাস্থ্য পরিচর্যার অনেক বিতর্ক এবং সমালোচনা রয়েছে। প্রধান নির্বাহীর এ নির্দেশ যথাযথ পালিত হলে সেই বিতর্ক এবং সমালোচনার মাত্রাকে কিছুটা হলেও কমিয়ে আনবে বলে আমাদের বিশ্বাস। তবে যারা এ কাজে সম্পৃক্ত থাকবেন, তাদের সততার ওপরই নির্ভর করবে এর ফলাফল।

স্বাস্থ্য খাতের উন্নতির অর্থই হলো জাতির মেরুদ-কে শক্তিশালী করা। দেশের প্রধান নির্বাহী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের জন্য অনেক কিছুই করেছেন। করেছেন বলেই সমালোচনাও আছে এবং থাকবে। যারা কাজ করেন তাদের সব কাজই ভালো হবেÑ এমনটা সম্ভব নয়। তবে ভালো কিছু করলে তার প্রশংসা করা থেকে আমরা দূরে থাকতে পারি না। আমাদের বর্তমান সংস্কৃতি হলো ভালোকে আড়াল করে কালোকে উন্মোচিত করা। আমরা সেখান থেকে বেরিয়ে এসে বলতে চাই, প্রধান নির্বাহী যে কাজ করেছেন, ৯৯ শতাংশ মানুষ তাকে আন্তরিকভাবে স্বাগত জানিয়েছেন। সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষের কণ্ঠে কণ্ঠ মিলিয়ে আমরাও বলছি, দেশের প্রধান নির্বাহী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তোমাকে অভিনন্দন।

 

"