কমে যাচ্ছে খেলাপি ঋণ

প্রকাশ : ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০০:০০

অনলাইন ডেস্ক

তেলে মাথায় আরো তেল ঢালা হলো। অথবা বলা যায়, কানের পানি নামাতে আরো পানি ঢালা হলো। যে যেভাবেই ব্যাখ্যা করুক না কেন, ঋণখেলাপিদের আরো সুযোগ-সুবিধা দেওয়া হলো। শিথিল করা হলো ঋণ অবলোপনের নীতিমালা। ফলে কাগজ-কলমে কমে যাবে খেলাপি ঋণ। নতুন এ নীতিমালা অনুযায়ী, ব্যাংকগুলো চাইলে তিন বছরের মন্দমানের খেলাপি ঋণকে আর্থিক হিসাব থেকে বাদ দিতে পারবে। আর এতেই ব্যাংকগুলোর জন্য খেলাপি ঋণ কম দেখানোর সুযোগ তৈরি হবে। এ ছাড়া দুই লাখ টাকা ঋণ অবলোপনের ক্ষেত্রে মামলারও প্রয়োজন পড়বে না। পরিশেষে এসব ঋণের ওপর নিরাপত্তা সঞ্চিতিরও প্রয়োজন হবে না বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। ঋণগ্রহীতাদের এবং ব্যাংকগুলোকে এমন সুযোগ দিয়ে সাধারণ মানুষের কতটা লাভ হলো, তা এ মুহূর্তে বলা সম্ভব নয়। নীতিমালা যারা তৈরি করেছেন, নিশ্চয়ই তারা সার্বিক দিক বিবেচনা করেই এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। আগেই বলেছি, এ যেন তেলের মাথায় আরো তেল ঢালা হলো অথবা কানের পানি নামাতে আরো পানি ঢালা হলো। যদি প্রথমটি করা হয়, তাহলে সাধারণ মানুষের কোনো লাভ হবে না। আর যদি দ্বিতীয়টি করা হয়, তাহলে ফলাফলের জন্য অপেক্ষায় থাকতে হবে। সাধারণ মানুষ একটু ভালো থাকার প্রত্যাশায় অনেক অপেক্ষা করেছে। এবার না হয় আরো একটু অপেক্ষায় থাকল।

একই সময়ে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, খেলাপি ঋণ অবশ্যই একটি অপরাধ। তিনি আরো বলেছেন, ঋণ নিয়ে পুরোপুরি ব্যবহার করতে না পারলে সেটি গ্রহীতার ব্যর্থতা। তবে এ ক্ষেত্রে ব্যবসায়ী ও অসাধু ব্যবসায়ীদের আলাদা করে চিহ্নিত করার প্রয়োজন রয়েছে। চিহ্নিত অসাধু ব্যবসায়ীদের কোনো ছাড় নেই। এ ছাড়া ব্যাংক কর্মকর্তাদের যারা অসাধু ব্যবসায়ীদের অর্থাৎ ঋণখেলাপিদের সহায়তা করেছেন, তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে। পাশাপাশি প্রতিটি ব্যাংককে বিশেষ নিরীক্ষার আওতায় আনা হবে। এতে ভয় পাওয়ার কিছু নেই। যারা ঋণ নিয়েছেন তারা কারা? তারা যে দরপত্র খুলে মূলধনি যন্ত্র এনেছেন, তা কোথায় বসিয়েছেন, তাও দেখা হবে। তিনটি নিরীক্ষা প্রতিষ্ঠানকে নিরীক্ষার দায়িত্ব দেওয়া হবে। এরা খতিয়ে দেখবেন এ ক্ষেত্রে কতটা সততা বজায় রাখা হয়েছে।

এ ক্ষেত্রেও বলতে হয়, আমরা ফলাফলের দিকে তাকিয়ে রইলাম এবং আশা করি, নতুন নীতিমালাকে অনুসরণ করে নতুন সরকার নিশ্চয়ই একটি চমকপ্রদ এবং ইতিবাচক ফলাফল আমাদের উপহার দিতে সক্ষম হবেন। খেলাপি ঋণের মাত্রা শূন্যের কাছাকাছি এসে দাঁড়াবে।

 

"