গণবিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মশালায় বক্তারা

ভারত থেকে গরু না এনে চাহিদা পূরণ সম্ভব

প্রকাশ : ১০ আগস্ট ২০১৭, ০০:০০

অনলাইন ডেস্ক

সাভার গণবিশ্ববিদ্যালয়ে ভেটেরিনারি অ্যান্ড অ্যানিমেল সায়েন্সেস অনুষদের আয়োজনে ‘বেসরকারি পর্যায়ে ভেটেরিনারি শিক্ষার প্রসার’ শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ৫ আগস্ট শনিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের আইকিউএসির সভাকক্ষে এ কর্মশালায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রাণিসম্পদ অধিদফতরের মহাপরিচালক ডা. মো. আইনুল হক। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ভেটেরিনারি কাউন্সিলের সভাপতি ডা. মো. মঞ্জুর কাদির, এফএও, ইসিটিএডির বাংলাদেশ টিম লিডার ড. এরিক ব্রুম, এফএওর ওয়ান হেলথ কো-অর্ডিনেটর অধ্যাপক নিতীশ চন্দ্র দেবনাথ।

প্রধান অতিথি ডা. মো. আইনুল হক বলেন, সরকারি কিংবা বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডিগ্রি অর্জন বড় কথা নয়, বিশ্বমানের ভেটেরিনারিয়ান তৈরির দিকে আমাদের নজর দিতে হবে। তাহলেই আমাদের শিক্ষার্থীরা সব সেক্টরে কাজ করার সুযোগ পাবে। বর্তমানে বাংলাদেশ প্রাণিসম্পদ সেক্টরে আমদানিকারক দেশ থেকে রফতানিকারক দেশে পরিণত হয়েছে। আমরা চাইলেই কোরবানির সময় ভারত থেকে গরু না এনেও দেশের চাহিদা মেটাতে পারি।

বাংলাদেশ ভেটেরিনারি কাউন্সিলের সভাপতি ডা. মো. মঞ্জুর কাদির বাংলাদেশে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে প্রথম গণবিশ্ববিদ্যালয়ে ভেটেরিনারি ও অ্যানিমেল সায়েন্সেস অনুষদ চালুর উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, গণবিশ্ববিদ্যালয়ের ভেটেরিনারি অ্যান্ড অ্যানিমেল সায়েন্সেস অনুষদকে কাউন্সিলের শিডিউলভুক্ত করা হয়েছে। এ কারণে এখানকার শিক্ষার্থীদের রেজিস্ট্রেশন পেতে আর কোনো বাধা নেই। অন্যদিকে অধ্যাপক নিতীশ চন্দ্র দেবনাথ বলেন, ‘দেশে-বিদেশে ভেটেরিনারি সেক্টরকে এগিয়ে নেওয়ার অনেক সুযোগ রয়েছে। আমাদের দরকার সরকারের পাশাপাশি আরো বেশি বেসরকারি উদ্যোগ।’

কৃষিনির্ভর এই দেশে ভেটেরিনারি খাতের উন্নয়ন অতি জরুরি উল্লেখ করে কর্মশালায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মো. দেলওয়ার হোসেন। কর্মশালায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ভেটেরিনারি অ্যান্ড অ্যানিমেল সাইন্সেস অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মো. মোস্তাফিজার রহমান। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য (চলতি দায়িত্ব) অধ্যাপক ডা. লায়লা পারভীন বানুর সভাপতিত্বে কর্মশালায় গণবিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীসহ বিভিন্ন অনুষদের ডিন, বিভাগীয় প্রধানগণ এবং শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি।

"