ওষুধের জেনেরিক নাম ব্যবহারে রুল জারি ইবির ছায়া আদালতের

প্রকাশ : ০৪ মার্চ ২০২০, ০০:০০

অনলাইন ডেস্ক

ওষুধের বাণিজ্যিক নাম ব্যবহার করে ওষুধ কোম্পানিগুলো। বিভিন্ন কোম্পানির ভিন্ন ভিন্ন দাম। এর ফলে প্রতারিত হচ্ছে সাধারণ মানুষ। এজন্য বাণিজ্যিক নাম ব্যবহার না করে জেনেরিক নাম ব্যবহার করতে রুল জারি করেছে ছায়া আদালত। ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীদের ইন্টার্নশিপ শেষে ছায়া আদালত চলাকালে এ রুল জারি করেন বিচারকরা। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ঝিনাইদহ জেলার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক চাঁদ মোহাম্মাদ আবদুল আলীম। ঝিনাইদহ জেলা প্রশাসক সরোজ কুমার নাথ, চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট (সিজেএম) মো.

হাসানুজ্জামান, যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ মাসুদ আলী।

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় জুরিস্টিক ক্লিনিক জনস্বার্থে মামলাটি দায়ের করলে আদালত এ রুল জারি করে। এ সময় ওষুধের জেনেরিক নাম ব্যবহার করার জন্য বেশ কিছু নির্দেশনাও দেন ছায়া আদালত। জুরিস্টিক ক্লিনিকের পক্ষে রিটটি করেন ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের (এলএলবি) শিক্ষার্থী আনোয়ার হোসেন, আয়েশা ও নাইমুর রহমান। অপরদিকে রাষ্ট্রপক্ষের হয়ে লড়াই করেন নোমান ইবনে বাশার, সাদিয়া আফরিন খান ও নিশাত ইসরাত জাহান। বিভাগের অধ্যাপক, জুরিস্টিক ক্লিনিক ইবির প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক ড. জহুরুল ইসলামের তত্ত্বাবধানে অনুষ্ঠানে অ্যাডভোকেট আবদুল আজিজ, অ্যাডভোকেট আবু তালেবসহ ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের সব শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন। উল্লেখ্য, দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে ইবির আইন বিভাগে প্রথমবারের মতো ইন্টার্নশিপ ব্যবস্থা চালু হয়েছে। বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে ঝিনাইদহ জেলা জজকোর্টে ১৫ দিন ইন্টার্নশিপের সুযোগ পায় তারা। শনিবার মুটিংয়ের মাধ্যমে শেষ হলো তাদের ইন্টার্নশিপ ও স্নাতকের শিক্ষাজীবন। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি।

 

"