এগিয়ে যাবে ফেনী ইউনিভার্সিটি বিচারপতি এস এম মুজিবুর

প্রকাশ : ১৮ নভেম্বর ২০১৯, ০০:০০

অনলাইন ডেস্ক

ফেনী ইউনিভার্সিটি অনেক দূর এগিয়ে যাবে বলে মন্তব্য করেছেন সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট ডিভিশনের বিচারপতি এস এম মুজিবুর রহমান। গত বৃহস্পতিবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয় প্রাঙ্গণে ফেনী ইউনিভার্সিটির আইন বিভাগের সপ্তম, অষ্টম, নবম ও দশম ব্যাচের বিদায় এবং ১৮, ১৯ ও ২০তম ব্যাচের নবীনবরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।

এস এম মুজিবুর রহমান বলেন, ফেনী আমার অনেক স্মৃতির জায়গা। এখানে এমন একটি বিশ্ববিদ্যালয় হওয়াতে আমি খুবই খুশি। যারা এর স্বপ্নদ্রষ্টা, তাদের আমি সাধুবাদ জানাই। এখান থেকে যারা আইন নিয়ে পড়াশোনা করেছেন, তাদের সবাইকে আমি সুপ্রিম কোর্টে দেখতে চাই। বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে এলএলএম (মাস্টার্স) কোর্স চালুর ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) জটিল মারপ্যাঁচের সমালোচনা করে তিনি বলেন, ইউজিসি বলে এলএলএম কোর্স চালুর জন্য নাকি বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের অনুমতি লাগবে। কিন্তু বার কাউন্সিলের কোন ধারায় এমনটা লেখা আছে? যদি এমন কোনো ধারা লেখা থাকে, তাহলে আমি কিছু বলব না। আর যদি না থাকে, বার কাউন্সিলের অনুমোদনের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে হয়রানি করা ইউজিসির অন্যায়। এটা বন্ধ করতে হবে।

ফেনী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি ড. মো. সাইফুদ্দিন শাহর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান পৃষ্ঠপোষক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ফেনী ইউনিভার্সিটির ট্রাস্টি বোর্ডের সভাপতি আলাউদ্দিন আহমেদ চৌধুরী নাসিম।

পৃষ্ঠপোষক হিসেবে আরো উপস্থিত ছিলেন- বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি আবদুস সাত্তার, বোর্ড অব ট্রাস্টিজের নির্বাহী কমিটির মেম্বার সেক্রেটারি ডা. তবারক উল্লাহ চৌধুরী বায়োজিদ।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার প্রফেসর তায়বুল হক, বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার এ এস এম আবুল খায়ের, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন অনুষদের ডিন ও ফেনী ইউনিভার্সিটির আইন বিভাগের উপদেষ্টা প্রফেসর এ বি এম আবু নোমান এবং বাংলাদেশ নৌবাহিনীর সাবেক কমোডর ও বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালের (বিইউপি) সাবেক প্রোভিসি জসীম উদ্দিন।

এছাড়া অনুষ্ঠান আয়োজক কমিটির আহ্বায়ক, আইন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ও প্রক্টর মো. মনিরুজ্জামান, বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসা প্রশাসন অনুষদের চেয়ারম্যান ও চেয়ারম্যান কমিটির আহ্বায়ক সহযোগী অধ্যাপক মোহাম্মদ আবুল কাশেম, আইন বিভাগের চেয়ারম্যান সিনিয়র প্রভাষক মো. আয়াতুল্লা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। বিদায়ী শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন- দশম ব্যাচের শিক্ষার্থী সাইদ ইশতিয়াক ও নবম ব্যাচের শুভেচ্ছা ভৌমিক। নবীন শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন ২০তম ব্যাচের সাবরিনা আক্তার বৃষ্টি। পরে স্থানীয় ও জাতীয় শিল্পীদের নিয়ে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি।

"