প্রিয় শিক্ষক সম্মাননা অনুষ্ঠান

আজীবন সম্মাননা পেয়েছেন জগদীশ চন্দ্র ঘোষ

প্রকাশ : ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ০০:০০

অনলাইন ডেস্ক

বয়স ৯১ বছর, বসনে শ্বেতশুভ্র। সব সময় এ রঙের পোশাকই পরেন। কারণ, তিনি চান, তার সামনের ছাত্রটি যেন এ শুভ্রতাকে ধারণ করে। সে যেন এই স্নিগ্ধ রংকে মনন গঠনের রং হিসেবে বেছে নেয়। তার রুচি যেন হয় মানবতার পক্ষে। এই ‘তিনি’ হলেন জগদীশ চন্দ্র ঘোষ। ফরিদপুরের সবাই তাকে চেনে তারাপদ স্যার নামে। দীর্ঘ শিক্ষকতা জীবনে নানা ঘাত-প্রতিঘাত পেরিয়ে মানুষটি এখন সর্বজন শ্রদ্ধেয়।

৪ অক্টোবর শুক্রবার আইপিডিসি-প্রথম আলো প্রিয় শিক্ষক সম্মাননা অনুষ্ঠানে আজীবন সম্মাননা পেয়েছেন জগদীশ চন্দ্র ঘোষ। রাজধানীর হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালের রূপসী বাংলা গ্র্যান্ড বলরুমে আয়োজিত অনুষ্ঠানে শারীরিক অসুস্থতার কারণে উপস্থিত থাকতে পারেননি। তার পক্ষে এ সম্মাননা গ্রহণ করেছেন নাতনি মৌমিতা ঘোষ।

অনুষ্ঠানে আরো ১১ শিক্ষককে সম্মাননা জানানো হয়। তারা হলেন- যশোর সম্মিলনী ইনস্টিটিউশনের সাবেক শিক্ষক তারাপদ দাস, ময়মনসিংহের বিদ্যাময়ী সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নাছিমা আক্তার ও রণসিংহপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মফিজ উদ্দিন, রাঙামাটি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক নিরুপা দেওয়ান, সাতক্ষীরার ৩০ নম্বর আলীপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষক আব্দুস সালাম, টাঙ্গাইলের আউলিয়াবাদ মাজার দাখিল মাদরাসার শিক্ষক আবুল হাশেম মিয়া, বাগেরহাটের কাড়াপাড়া শরৎচন্দ্র প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আসাদুল কবির, গাইবান্ধা শিবরাম আদর্শ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক নূরুল আলম, ব্রাক্ষণবাড়িয়া ফতেহপুর কেজি বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শাহজাহান কবীর এবং চট্টগ্রামের জামালখান কুসুমকুমারী সিটি করপোরেশন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক লুৎফুন্নিছা খানম ও সরকারি কলোনি উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক সফিক উল্ল্যা।

অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় অধ্যাপক ড. আনিসুজ্জামান, বাংলাদেশ জাতীয় ওয়ানডে ক্রিকেট দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা, প্রথম আলোর সম্পাদক মতিউর রহমান, আইপিডিসি ফাইন্যান্স লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী মুমিনুল ইসলাম প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে ড. আনিসুজ্জামান বলেন, আজ যারা সম্মানিত হয়েছেন, তারা দেশের বিভিন্ন এলাকায় শিক্ষা ক্ষেত্রে নিজের জীবন কাটিয়েছেন। নিবেদিত প্রাণ শিক্ষক হিসেবে ছাত্রদের মনে দাগ এঁকেছেন। আজ শুধু ১২ জনকে নয়, বাংলাদেশের সারা শিক্ষক সমাজকে সম্মানিত করা হয়েছে। এর আগে, অনুষ্ঠানের শুরুতে রবীন্দ্রসংগীত পরিবেশন করেন শিল্পী অদিতি মহসিন। গত ২৫ আগস্ট আইপিডিসি-প্রথম আলো প্রিয় শিক্ষক সম্মাননার কার্যক্রম শুরু হয়। এরপর সারা দেশ থেকে আবেদন জমা পড়ে মোট ১ হাজার ৬৭৪টি। সেখান থেকে বাছাই করে একটি আজীবন সম্মাননা ও ১১টি সম্মাননা দেওয়া হয়েছে। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি।

"