আইইউবিএটিতে রবীন্দ্র-নজরুল জন্ম উৎসব পালন

প্রকাশ : ০৬ আগস্ট ২০১৯, ০০:০০

অনলাইন ডেস্ক

নাচ, গান, কবিতা আর অভিনয়ের বর্ণিল আয়োজনের মধ্য দিয়ে বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ও জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের জন্মজয়ন্তী পালন করেছে ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস এগ্রিকালচার অ্যান্ড টেকনোলজি (আইইউবিএটি)। ২১ জুলাই রোববার সন্ধ্যায় আইইউবিএটির ওপেন অডিটরিয়ামে ‘রবীন্দ্র-নজরুল জন্ম উৎসব’ শিরোনামে এ অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন আইইউবিএটির উপাচার্য অধ্যাপক ড. আবদুর রব।

আইইউবিএটির কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক সেলিনা নার্গিসের তত্ত্বাবধায়নে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষার্থীরা এ জমকালো উৎসবে অংশগ্রহণ করেন। তাদের সংগীতের মূর্ছনায় মুখরিত হয়ে ওঠে উপস্থিত শ্রোতারা। শুরুতেই সমবেত কণ্ঠে রবীন্দ্রসংগীত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে মূল অনুষ্ঠান শুরু হয়। আইইউবিএটির অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষার্থী রাফার আনন্দলোক গানের সঙ্গে সুর মিলিয়ে শ্রোতারাও হারিয়ে গিয়েছিলেন রবীন্দ্র সুরের ভুবনে।

আবারও সমবেত কণ্ঠে নজরুলের জাগরণের গান ‘কা-ারী হুশিয়ার’ পরিবেশনের মাধ্যমে তুলে ধরা হয় আমরা অন্যায়ের কাছে মাথা নত করার জাতি নই। এরপর রবীন্দ্রনাথের জনপ্রিয় মায়াবন বিহারিণী গানটি পরিবেশন করেন ভারতীয় নাগরিক আইইউবিএটির শিক্ষক দম্পতি অধ্যাপক ড. সৌমেন্দ্র সাহা ও অধ্যাপক ড. শ্রীলেখা সাহা। ফাগুন হাওয়ায় গানের সঙ্গে কম্পিউটার ইঞ্জিয়ারিং বিভাগের শিক্ষার্থী রুবিনার একক নৃত্য দোলা দেয় উপস্থিত দর্শক শ্রোতাদের মনে। অনুষ্ঠানটি আরো বর্ণিল হয়ে ওঠে সিভিল ইঞ্জিয়ারিং বিভাগের শিক্ষার্থী রায়নার গাওয়া রবীন্দ্র সংগীত আমার হিয়ার মাঝে লুকিয়ে ছিলে দেখতে তোমায় পাইনি এবং সুমাইয়া, হুমায়ারা, কারিভা, স্বর্ণার নৃত্যের ছন্দে। এরপর একে একে গান ও আবৃত্তি পরিবেশন করেন উদয়, নাবিলসহ অন্যান্য শিক্ষার্থীরা। রবীন্দ্র-নজরুল জন্ম উৎসবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন অনুষদের ডিন, রেজিস্ট্রার, কো-অর্ডিনেটর, শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি।

 

"