ইউল্যাবে ‘স্কিলস ফর লাইফ’ শীর্ষক সেমিনার

প্রকাশ : ২৫ জুলাই ২০১৯, ০০:০০

অনলাইন ডেস্ক

ইউনিভার্সিটি অব লিবারেল আর্টস বাংলাদেশ (ইউল্যাব) ক্যাম্পাসের সেমিনার হলে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল ‘স্কিলস ফর লাইফ : থিংস দ্যাট মেইক এ ডিফারেন্স’ শীর্ষক সেমিনার। গত ১১ জুলাই বৃহস্পতিবার ইউল্যাব সাস্টেইনেবল ডেভেলপমেন্ট ক্লাব ও ইয়ুথ এমপাওয়াামেন্ট ফোরাম-ইউল্যাব চ্যাপ্টারের যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত সেমিনারে বক্তব্য দেন বিশিষ্ট অভিনেত্রী ও সমাজকর্মী বন্যা মির্জা, নারী উদ্যোক্তা ও তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক ম্যাগাজিন টেক-ওয়ার্ল্ডের সম্পাদক নাজনীন নাহার ও ইয়ুথ এমপাওয়ারমেন্ট ফোরামের (ওয়াইইএফ) চেয়ারম্যান ও প্রতিষ্ঠাতা কাজী হাসান রবিন। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ইউল্যাবের সহকারউ অধ্যাপক রুমানা সুলতানা এবং প্রভাষক জয় ভৌমিক।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ওয়াইইএফের পরিচালনা পরিষদের ভাইস প্রেসিডেন্ট জুবায়রা আলম, হেড অব লিগ্যাল অ্যাফেয়ার্স জোবায়দা ইউসুফ, জেনারেল সেক্রেটারি জোনাইদ হোসাইন, অ্যাসিস্ট্যান্ট জেনারেল সেক্রেটারি আশরাফুল আলম রাহাত ও সাদিয়া ইসলাম ইরা এবং ওয়াইইএফের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের চ্যাপ্টার অ্যাম্বাসেডরসহ ইউল্যাবের শিক্ষার্থীরা।

বন্যা মির্জা বলেন, ‘নিজেকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য, আত্ম-উন্নয়নের জন্য ও নিজেকে বিকশিত করার লক্ষ্যে নিজেকেই এগিয়ে আসতে হবে।’ টেক-ওয়ার্ল্ডের সম্পাদক নাজনীন নাহার তার অভিজ্ঞতা থেকে উদাহরণ দিয়ে তুলে ধরেন কীভাবে কর্মক্ষেত্রে জীবন দক্ষতার অভাব মানুষকে পিছিয়ে দেয়।

পরিশেষে ফোরামের প্রতিষ্ঠাতা কাজী হাসান রবিন তার বক্তব্যে বলেন, ‘নিজের জীবনকে সুন্দরভাবে গড়ে তোলার লক্ষ্যে জীবনের সঠিক লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য খুঁজে নিতে হবে এবং একটি সুন্দর সমাজ বিনির্মাণে তরুণরাই পারে অগ্রগামী ভূমিকা পালন করতে। তাই তিনি জীবনের জন্য একটি সঠিক ম্যাপ তৈরি করার ওপরে গুরুত্ব আরোপ করেন।

উল্লেখ্য, ইয়ুথ এমপাওয়ারমেন্ট ফোরামের উদ্দেশ্য হচ্ছে সমাজের উন্নয়নে অবদান রাখতে দক্ষতা বিকাশে সহায়তা করার জন্য কমিউনিটি ভিত্তিক শিক্ষা, পরামর্শদান এবং কর্মসংস্থান প্রস্তুতি প্রোগ্রামের মাধ্যমে দেশের তরুণদের সহায়তা করা। ‘স্কিলস ফর লাইফ’ সেমিনার সিরিজটি ওয়াইইএফের অন্যতম একটি প্রোগ্রাম। এর আওতায় বাংলাদেশের প্রতিটি বিশ্ববিদ্যালয়ে তরুণদের সক্ষমতা উন্নয়নকল্পে এই সেমিনারটি নিয়মিত আয়োজন করা হচ্ছে।

অনুষ্ঠান শেষে আয়োজিত কুইজ প্রতিযোগিতার মাধ্যমে বিজয়ীদের হাতে ‘সম্ভাবনার স্বপ্নযাত্রা’ বইটি পুরস্কার হিসেবে তুলে দেওয়া হয়। এর পাশাপাশি বিজয়ীদের এক বছরের জন্য টেকওয়ার্ল্ড ম্যাগাজিন সৌজন্য সংখ্যা উপহার দেওয়ার ঘোষণা দেওয়া হয়। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি।

"