ঢাবি কলা অনুষদ বৃত্তি পেলেন ৪২ শিক্ষার্থী

প্রকাশ : ১২ মার্চ ২০১৯, ০০:০০

অনলাইন ডেস্ক

পড়ালেখায় অসাধারণ সাফল্যের জন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কলা অনুষদভুক্ত বিভিন্ন বিভাগের ৪২ জন মেধাবী শিক্ষার্থীকে বৃত্তি প্রদান করা হয়েছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান ২৫ ফেব্রুয়ারি সোমবার আর সি মজুমদার আর্টস মিলনায়তনে এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে শিক্ষার্থীদের হাতে বৃত্তির চেক তুলে দেন।

কলা অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. আবু মো. দেলোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বৃত্তি কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. আবদুল বাছির স্বাগত বক্তব্য দেন। এ সময় বিভিন্ন বিভাগের চেয়ারম্যান ও বৃত্তি ফান্ডের দাতারা উপস্থিত ছিলেন। উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান অসচ্ছল শিক্ষার্থীদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য সমাজের বিত্তবানদের প্রতি আহ্বান জানান। মেধা বৃত্তিপ্রাপ্তরা হলেন মু. আব্দুল্লাহ আল মামুন, মির্জা সাউদ সালেহ (আরবি), আকলিমা আক্তার ইমি (ফারসি ভাষা ও সাহিত্য), মুর্শিদা রহমান, নাহিদা আনোয়ার, তাসলিমা আক্তার, কুমারী মুক্তা কর্মকার (দর্শন), শিউলী আক্তার (ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি) ও চিরঞ্জিত সাহা (সংগীত)। সাধারণ বৃত্তিপ্রাপ্তরা হলেন এমটি বিথী খাতুন, তামান্না ফেরদৌস (বাংলা), আয়শা আক্তার সুমি, মো. রিদওয়ান ইসলাম (ইংরেজি), শরিফুজ্জামান, হাসমত আলী (আরবি), নায়েবা রিফাত রওশনী (ফারসি ভাষা ও সাহিত্য), সীমা আক্তার (উর্দু), মো. বেলাল মিয়া (সংস্কৃত), পুষা রতন ত্রিপুরা (পালি অ্যান্ড বুদ্ধিস্ট স্টাডিজ), মো. আল-আমিন, মো. জিলানী আহম্মেদ মাফরুহা রওশন (ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি), ফারুক হাওলাদার, মোছা. নাজমা খাতুন (ইসলামিক স্টাডিজ), মোছা. লাবনী আক্তার (তথ্যবিজ্ঞান ও গ্রন্থাগার ব্যবস্থাপনা), শুক্লা রানী বর্মন (ভাষাবিজ্ঞান), প্রিয়াংকা দেবনাথ (সংগীত) এবং মো. রিমু হাসান (বিশ্বধর্ম ও সংস্কৃতি)।

কুদসিয়া চৌধুরী বৃত্তিপ্রাপ্তরা হলেন খাইরুল বাশার (আরবি), বাদল মিয়া (ফারসি ভাষা ও সাহিত্য), ভিনসেন্ট কেরকেটা (সংস্কৃত) এবং শাহানাজ পারভীন (ভাষাবিজ্ঞান)। অধ্যাপক ড. সুকোমল বড়–য়া বৃত্তিপ্রাপ্তরা হলেন আলমগীর হোসেন (পালি অ্যান্ড বুদ্ধিস্ট স্টাডিজ) ও শিখা রানী দাস (বিশ্বধর্ম ও সংস্কৃতি)। আনোয়ারা খাতুন-রমজান হোসেন বৃত্তিপ্রাপ্তরা হলেন আফছার হোসাইন (দর্শন) ও মো. ফুলচান মিয়া (ইসলামিক স্টাডিজ)। আফরোজা আকবর স্মৃতি বৃত্তিপ্রাপ্তরা হলেন মোছা. আরিফা খাতুন (বাংলা) এবং সানজিদা ইমু (দর্শন)। আব্দুস ছামাদ ভূঁইয়া বৃত্তিপ্রাপ্তরা হলেন মো. সুমন হাসান ও ফারজানা আক্তার (ইতিহাস)। অনুসন্ধান ৮৩ বৃত্তিপ্রাপ্তরা হলেন মো. আব্দুল্লাহ আল মামুন (ইতিহাস) এবং সানজিদা পারভীন (নৃত্যকলা)।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি।

 

"