বর্জ্য ব্যবস্থাপনা বিষয় চবির সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের ওয়েইস্ট টেকনোলজির সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষর

প্রকাশ : ২২ অক্টোবর ২০১৮, ০০:০০

অনলাইন ডেস্ক

যুক্তরাষ্ট্রের ওয়েইস্ট টেকনোলজি, এলএলসির ফাউন্ডার এবং প্রেসিডেন্ট ড. মইনুদ্দীন সরকার ও তার সহধর্মিণী উক্ত টেকনোলজির কো-চেয়ারম্যান ড. আরজুমান আরা ১১ অক্টোবর বৃহস্পতিবার বিকাল ৪টায় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরীর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন এবং ওয়েইস্ট ম্যানেজমেন্ট বিষয়ে একটি সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষর করেন।

এ সময় চবি রসায়ন বিভাগের সভাপতি প্রফেসর ড. মনির উদ্দিন, একই বিভাগের প্রফেসর ড. শামিম আক্তার, প্রফেসর বেনু কুমার দে, প্রফেসর ড. সৈয়দা খুরশীদা বেগম, সহযোগী অধ্যাপক ড. ফয়সল ইসলাম চৌধুরী, কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রফেসর ড. মো. হানিফ সিদ্দিকী এবং প্রধান প্রকৌশলী মো. আবু সাঈদ হোসেন উপস্থিত ছিলেন। উপাচার্য অতিথিবৃন্দকে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় সবুজ ক্যাম্পাসে স্বাগত জানান। তিনি অতিথিবৃন্দকে এ বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ও প্রশাসনিক কার্যক্রমের একটি সংক্ষিপ্ত পরিচিতি তুলে ধরেন। বিশেষকরে বিগত তিনবছরের একাডেমিক ও প্রশাসনিক কার্যক্রমের সাফল্যের আলোকে বর্তমানে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় দেশের শীর্ষ বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে। এটি এ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন, বর্তমান এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে যুক্ত সংশ্লিষ্ট সকলের জন্য অত্যন্ত আনন্দের ও গৌরবের। তিনি বলেন, ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য একটি সবুজ পৃথিবী গড়তে পরিবেশ দূষণ রোধ একটি অন্যতম কার্যক্রম। এ লক্ষ্যে বর্জ্য ব্যবস্থাপনা অত্যন্ত জরুরী। আমাদের পরিবেশ বিজ্ঞানীদের জ্ঞান-গবেষণা ও উদ্ভাবনী শক্তির মাধ্যমে প্রযুক্তির সর্বোচ্চ ব্যবহারের ফলে এ বর্জ্যের সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে পরিবেশ দূষণের হাত থেকে সুরক্ষার পাশাপাশি এ বর্জ্যকে প্রক্রিয়াজাত করণের মাধ্যমে সম্পদে রূপান্তর করছে। এরই ধারাবাহিকতায় সম্মানিত অতিথির সাথে চট্টগ্রাম বিশ^বিদ্যালয়ের এ সমঝোতা চুক্তির ফলে আমাদের শিক্ষক-গবেষক এবং শিক্ষার্থীদের জ্ঞান-গবেষণায় আরও সমৃদ্ধি অর্জন করবে এবং কর্মসংস্থানের সৃষ্টি হবে উপাচার্য এ প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন। উপাচার্য যুক্তরাষ্ট্রের উক্ত প্রতিষ্ঠানের সাথে সমঝোতা চুক্তির আলোকে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে বিজ্ঞান অনুষদের অধীনে গ্রীণ কেমিস্ট্রি এবং বর্জ্য ব্যবস্থাপনা বিষয়ে একটি বিভাগ খোলার ব্যাপারে চবি রসায়ন বিভাগের সভাপতি প্রফেসর ড. মনির উদ্দিনকে একটি প্রস্তাবনা পেশ করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ প্রদান করেন। এ চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে চবি’র পক্ষে রসায়ন বিভাগের সভাপতি প্রফেসর ড. মনির উদ্দিন এবং উক্ত প্রতিষ্ঠানের পক্ষে ড. মইনুদ্দীন সরকার স্বাক্ষর করেন। উল্লেখ্য, চবি রসায়ন বিভাগে গ্রীণ কেমিস্ট্রি ও সেফটি এন্ড ল্যাবরেটরি হ্যাজার্জ নামে ২টি কোর্স অন্তর্ভূক্ত করে গত দুই বছর ধরে সম্মানিত অতিথির সাথে যোগাযোগ করে আসছেন চবি রসায়ন বিভাগের সভাপতি প্রফেসর ড. মনির উদ্দিন। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি।

"