ইবিতে জন্মাষ্টমী উদযাপিত

প্রকাশ : ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০

অনলাইন ডেস্ক

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে মহাসমারোহে উদযাপিত হয়েছে। ২ সেপ্টেম্বর রোববার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ে পরমেশ্বর ভগবান শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টমী উদযাপন পরিষদের আয়োজনে টিএসসিসির বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমান মিলনায়তনে এ আয়োজন অনুষ্ঠিত হয়।

এতে প্রধান অতিথি ছিলেন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. হারুন-উর-রশিদ আসকারী। প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, অসাম্প্রদায়িক চেতনাকে লালন করে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়তে চাই। ধর্ম যার যার দেশটা সবার। এখানে সব ধরনের অন্যায়, অবিচার, পাপাচার, দুর্নীতি, সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়ে কল্যাণ ও সুন্দরকে প্রতিষ্ঠিত করতে হবে।

তিনি বলেন, ভগবান শ্রীকৃষ্ণ সহাস্য ধরাধামে আবির্ভাব হয়েছিলেন এবং হাসির মধ্য দিয়ে ধরাধাম থেকে বিদায় নিয়েছিলেন। যেকোনো মানুষের দিনের শুরুটা যদি হাসির মাধ্যমে হয়, তবে এতে করে পরিবার, সমাজ ও দেশের অনেক উপকার হবে। শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টমী উপলক্ষে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। ব্যবস্থাপনা বিভাগের শিক্ষক সহযোগী অধ্যাপক ড. ধনঞ্জয় কুমারের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন প্রো-ভিসি প্রফেসর ড. মো. শাহিনুর রহমান। ট্রেজারার প্রফেসর ড. মো. সেলিম তোহা, ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. অরবিন্দ সাহা। বক্তব্য দেন বাংলা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক তপন কুমার রায়। জন্মাষ্টমীর ওপর ধর্মালোচক হিসেবে বক্তব্য উপস্থাপন করেন কেন্দ্রীয় বিবেকানন্দ শিক্ষা ও সংস্কৃতি পরিষদের সদস্য ড. মিলন কুমার বসু। স্বাগত বক্তব্য দেন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টমী উদযাপন পরিষদের সদস্যসচিব বিপ্লব দাশ বাবুই। অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন প্রক্টর প্রফেসর ড. মাহবুবর রহমান, প্রফেসর ড. জাকারিয়া রহমান, প্রফেসর ড. পরেশ চন্দ্র বর্মণ, প্রফেসর ড. আজগর হোসেন, ড. আলতাফ হোসেন, রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) এস এম আবদুল লতিফ, লিটন বরন শিকদারসহ হিন্দুধর্মাবলম্বী সব শিক্ষক, ছাত্রছাত্রী। আলোচনা সভা শেষে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি।

"