ঢাবি সাংবাদিকতা বিভাগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে ভিসি

অসত্য সংবাদে সমাজ ও দেশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়

প্রকাশ : ১২ আগস্ট ২০১৮, ০০:০০

অনলাইন ডেস্ক

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ২ আগস্ট বৃহস্পতিবার উদ্যাপিত হয়েছে। এ বছর দিবসটির প্রতিপাদ্য ছিল ‘গণমাধ্যম, গণমানুষ, গণতন্ত্র’। দিবসটি উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে দিনব্যাপী কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়। কর্মসূচির মধ্যে ছিল র‌্যালি, আলোচনা সভা ও কৃতী শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদান। উল্লেখ্য, ১৯৬২ সালে গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের যাত্রা শুরু হয়। বিভাগের ৫৬ বছর পূর্তি উপলক্ষে মোজাফ্ফর আহমদ চৌধুরী মিলনায়তনে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের চেয়ারপারসন অধ্যাপক ড. কাবেরী গায়েনের সভাপতিত্বে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আলোচনা সভায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। ‘গণমাধ্যম, সমাজব্যবস্থা ও গণমানুষের মুক্তি’ শীর্ষক মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ইংরেজি বিভাগের ইমেরিটাস অধ্যাপক ড. এ এফ সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী। উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান মানবকল্যাণ ও সত্য প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে বস্তুনিষ্ঠ সাংবাদিকতা করার জন্য গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষার্থীদের প্রতি আহ্বান জানান। তিনি বলেন, অসত্য সংবাদ সমাজে বিভ্রান্তি ছড়ায়। এতে প্রতিষ্ঠান ও দেশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়। ‘গণমাধ্যম, সাংবাদিকতা ও বিশ্ববিদ্যালয়ের মৌলিক দর্শন এক ও অভিন্ন’ উল্লেখ করে উপাচার্য বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজ জ্ঞান সৃষ্টি ও সত্য উদ্ঘাটন করা। গণমাধ্যমও সত্য উদ্ঘাটনে কাজ করে। মানবকল্যাণ সাধনই উভয়ের লক্ষ্য। মানবিক মূল্যবোধে উদ্বুদ্ধ হয়ে গণমানুষের চাহিদা মেটাতে স্ব-স্ব অবস্থান থেকে কাজ করার জন্য তিনি শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও গণমাধ্যমকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানান। পরীক্ষায় কৃতিত্বপূর্ণ ফলাফলের জন্য মেধাবী শিক্ষার্থীদের বৃত্তি দেওয়া হয়।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি।

"