ঢাবি এবং ইউনান বিশ্ববিদ্যালয় আয়োজিত চিত্র প্রদর্শনী

সংস্কৃতি বিনিময়ের মাধ্যমে মৈত্রীর বন্ধন সুদৃঢ় হবে

প্রকাশ : ০৫ আগস্ট ২০১৮, ০০:০০

অনলাইন ডেস্ক

চীনা সাংস্কৃতিক মাস উপলক্ষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এবং চীনের ইউনান বিশ্ববিদ্যালয় আয়োজিত ‘বর্ণিল মেঘে ঢাকা সিল্ক রোড’ শীর্ষক পাঁচ দিনব্যাপী প্রদর্শনী ২৬ জুলাই বৃহস্পতিবার চারুকলা অনুষদের জয়নুল গ্যালারিতে শেষ হয়েছে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে সমাপনী অনুষ্ঠানে সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর প্রধান অতিথি এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. নাসরীন আহমাদ ও বাংলাদেশে নিযুক্ত চীনা রাষ্ট্রদূত ঝাং ঝো বিশেষ অতিথি ছিলেন। স্বাগত বক্তব্য দেন চারুকলা অনুষদের ডিন অধ্যাপক নিসার হোসেন। ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন অঙ্কন ও চিত্রায়ণ বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিশির কুমার ভট্টাচার্য। অনুষ্ঠান সঞ্চালন করেন আধুনিক ভাষা ইনস্টিটিউটের পরিচালক অধ্যাপক ড. শিশির ভট্টাচার্য্য।

সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর বাংলাদেশ এবং চীনের মধ্যে বিরাজমান বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ককে ঐতিহাসিক হিসেবে বর্ণনা করেন। শিল্প, সাহিত্য ও সংস্কৃতি বিনিময়ের মাধ্যমে দুদেশের জনগণের মধ্যে মৈত্রীর এই বন্ধন ভবিষ্যতে আরো সুদৃঢ় হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এবং চীনের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে যৌথ শিক্ষা ও গবেষণা কার্যক্রম চলমান রয়েছে। এসব কার্যক্রমের মাধ্যমে দুদেশের সম্পর্ক ক্রমেই নিবিড় হচ্ছে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

চীনা রাষ্ট্রদূত ঝাং ঝো বলেন, বাংলাদেশের জাতীয় সংগীত এবং চীনের জাতীয় সংগীতের মর্মার্থ এক ও অভিন্ন। সোনার দেশ গড়ে তোলা দুদেশেরই স্বপ্ন। এ অঞ্চলের জনগণের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে দুদেশ একযোগে কাজ করে যাবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। অঞ্চলিক সম্পর্ক জোরদারের লক্ষ্যে ‘এশিয়ান কালচারাল কমিউনিটি’ গঠনের ওপরও তিনি গুরুত্বারোপ করেন।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি।

"