চবিতে মাদকমুক্ত দিবসের সভায় ভিসি

তরুণ প্রজন্মকে মাদকের সম্পর্কে সামাজিক আন্দোলন করতে হবে

প্রকাশ : ০৮ জুলাই ২০১৮, ০০:০০

অনলাইন ডেস্ক

জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদ কর্তৃক ঘোষিত মাদকদ্রব্যের অপব্যবহার ও অবৈধ পাচারবিরোধী আন্তর্জাতিক দিবস উপলক্ষে ‘মাদকমুক্ত ক্যাম্পাস প্রতিষ্ঠাই আমাদের অঙ্গীকার’Ñসেøাগানকে ধারণ করে মাদক অপরাধ দমন এবং মাদকাসক্তি প্রতিরোধে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত মাদক নিয়ন্ত্রণে ‘জিরো টলারেন্সনীতি’ অনুসরণের লক্ষ্যে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের নির্দেশনায় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ২৬ জুন মঙ্গলবার উপাচার্য দফতরের সভাকক্ষে মাদকবিরোধী এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী।

প্রফেসর ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী বলেন, বর্তমান সরকার দেশে শান্তিশৃঙ্খলা সমুন্নত রাখতে এবং সাধারণ জনগণের জীবনযাপন স্বাভাবিক, শান্তিময় ও নিরাপত্তা সুরক্ষায় অত্যন্ত সাহসিকতার সঙ্গে মাদক নির্মূলে যে অভিযান পরিচালনা করছে, তা বিশ্বব্যাপী প্রশংসিত হয়েছে। দেশের সাধারণ জনগণ এ অভিযানকে সাদরে গ্রহণ করে সাধুবাদ জানিয়েছে।

তিনি বলেন, মাদক বৈশ্বিক সমস্যা। মাদক-জঙ্গি-সন্ত্রাসমুক্ত দেশ ও জাতি বিনির্মাণে তরুণ প্রজন্মকে মাদকের সুফল-কুফল এবং ব্যবহার-অপব্যবহার সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধিকল্পে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলার পাশাপাশি আমাদের সন্তানদের পারিবারিক পর্যায়ে আদর-স্নেহ, মায়া-মমতা সুনিশ্চিত করতে হবে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শ্রেণিকক্ষে মাদকের অপব্যবহার সম্পর্কে অবহিতকরণসহ তরুণসমাজকে মানবিক-নান্দনিক মূল্যবোধসম্পন্ন সুনাগরিক হয়ে গড়ে উঠতে একাডেমিক কার্যক্রমের অংশ হিসেবে ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক কর্মকা-ে সম্পৃক্ত করতে হবে।

উপাচার্য বলেন, মাদকমুক্ত ক্যাম্পাস চাইÑএ প্রতিপাদ্যকে ধারণ করে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়কে মাদকের আগ্রাসন থেকে মুক্ত রাখতে ইতোমধ্যে উচ্চক্ষমতাসম্পন্ন কমিটি গঠনসহ কাউন্সেলিং সেল গঠন করা হয়েছে। মাননীয় উপাচার্য মাদক নির্মূলে স্ব-স্ব অবস্থানে সবার আন্তরিক সহযোগিতা কামনা করেন।

এতে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. শিরীণ আখতার, সমাজবিজ্ঞান অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. ফরিদউদ্দিন আহামেদ, ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. শংকর লাল সাহা, আইন অনুষদের ডিন প্রফেসর এ বি এম আবু নোমান, শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক প্রফেসর ড. অলক পাল, ব্যবস্থাপনা বিভাগের সভাপতি প্রফেসর ড. মুহাম্মদ মুয়াজ্জম হোসেন এবং প্রক্টর মোহাম্মদ আলী আজগর চৌধুরী। সভায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিন, রেজিস্ট্রার, প্রভোস্ট, বিভাগীয় সভাপতি ও ইনস্টিটিউটের পরিচালক, সহকারী প্রক্টর, শিক্ষক সমিতি, অফিসার সমিতি, কর্মচারী সমিতি ও কর্মচারী ইউনিয়নের নেতা এবং অফিস প্রধানরা উপস্থিত ছিলেন। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি।

"