উত্তর কোরিয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা বাস্তবায়নে কাজ করবে চীন

প্রকাশ : ০৯ আগস্ট ২০১৭, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে ঘনিষ্ঠ বাণিজ্যিক সম্পর্কের কারণে দেশটির ওপর আরোপিত জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞায় সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হবে চীনের। তার পরও চীন জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞা বাস্তবায়নে সব সময় কাজ করে যাবে বলে নিশ্চিত করেছেন দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াংয়ি।

গত শনিবার জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ সর্বসম্মতভাবে উত্তর কোরিয়ার ওপর নতুন নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে, এতে দেশটির বার্ষিক ৩০০ কোটি ডলারের রফতানি বাণিজ্যের এক-তৃতীয়াংশ হ্রাস পেতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। গতকাল মঙ্গলবার চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, সোমবার ফিলিপাইনের রাজধানী ম্যানিলায় এক আঞ্চলিক নিরাপত্তা সম্মেলনে বক্তৃতাকালে ওয়াং বলেছেন, নতুন নিষেধাজ্ঞা দেখিয়েছে চীন এবং বিশ্ব সম্প্রদায় উত্তর কোরিয়ার ধারাবাহিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার বিরোধী। ‘ঐতিহ্যগতভাবেই চীনের সঙ্গে উত্তর কোরিয়ার বাণিজ্যিক সম্পর্ক আছে। নিষেধাজ্ঞা আরোপে প্রধানত চীনকেই মূল্য চুকাতে হবে।’

‘কিন্তু আন্তর্জাতিক অস্ত্র-বিস্তার রোধ পদ্ধতিকে সুরক্ষা দেওয়ার জন্য ও আঞ্চলিক শান্তি এবং স্থিতিশীলতা বজায় রাখার স্বার্থে আগের মতোই সংশ্লিষ্ট নিষেধাজ্ঞার সব ধারা পুরোপুরি ও কঠোরভাবে মেনে চলবে চীন,’ বিবৃতিতে প্রকাশিত উদ্ধৃতিতে বলেছেন ওয়াং।

চীন সব সময় উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে জাতিসংঘের উত্তরোত্তর কঠোর নিষেধাজ্ঞা মেনে চলার প্রতিশ্রুতি দিয়ে আসছে, তবে পাশাপাশি এ-ও বলেছে, উত্তর কোরিয়ার সাধারণ নাগরিকদের ওপর এসব নিষেধাজ্ঞার প্রভাব পড়া উচিত নয় এবং এ উদ্দেশ্যে দেশটির সঙ্গে ‘স্বাভাবিক’ বাণিজ্য সম্পর্ক বজায় রাখবে তারা। জাতিসংঘের সর্বশেষ প্রস্তাবে উত্তর কোরিয়ার কয়লা, লোহা, লৌহ আকরিক, সিসা, সিসার আকরিক ও সি-ফুড রফতানির ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। পাশাপাশি যেসব দেশে উত্তর কোরিয়ার শ্রমিকরা কর্মরত আছে, সেখানে দেশটির শ্রমিক সংখ্যা বৃদ্ধির ওপর নিষেধাজ্ঞা, উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে যৌথভাবে কোনো প্রকল্প গ্রহণ এবং চলমান প্রকল্পগুলোতে নতুন বিনিয়োগের ওপর নিষেধাজ্ঞাও আরোপ করা হয়েছে।

"