আল-আকসায় আজান হলো প্রতিবাদে কেউ ঢুকলেন না

প্রকাশ : ১৮ জুলাই ২০১৭, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

জেরুজালেমের আল-আকসা মসজিদ খুলে দেওয়ার পরও ভেতরে কেউ নামাজ আদায় করেননি। নিরাপত্তাব্যবস্থার কড়াকড়ির প্রতিবাদে সেখানে নামাজ পড়া থেকে বিরত থাকেন সবাই। ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু গতকাল রোববার আল-আকসা মসজিদ খুলে দেওয়ার নির্দেশ দেন। শুক্রবার জেরুজালেমে সন্ত্রাসী হামলার কারণে দুই দিন বন্ধ ছিল মসজিদটি। মসজিদটি খুলে দেওয়ার পর সেখানে নিরাপত্তার জন্য সিসিটিভি ক্যামেরা ও মেটাল ডিটেক্টর স্থাপন করা হয়। মসজিদ খুলে দেওয়ার পর আজান দেওয়া সত্ত্বেও মসজিদে ঢোকেননি কেউ। তারা বাইরে মসজিদ প্রাঙ্গণে নামাজ আদায় করেন। এ সময় নারীরা চিৎকার করে সবাইকে মসজিদে প্রবেশ না করার জন্য আহ্বান জানান। এ বিষয়ে আল-আকসা মসজিদের পরিচালক শেখ ওমর কিসওয়ানি বলেন, ‘ইসরায়েলি সরকার যে পরিবর্তন এনেছে তা আমরা প্রত্যাখ্যান করেছি। আমরা এই মেটাল ডিটেক্টরের ভেতর দিয়ে প্রবেশ করব না।’ এদিকে মসজিদ বন্ধে বিক্ষোভে ফেটে পড়েন ফিলিস্তিনি মুসলিমরা। ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষের নিয়োগকৃত গভর্নর আদনান হুসিনি এমন ঘটনাকে নজিরবিহীন উল্লেখ করে বলেন, ‘শতকের পর শতক মসজিদটি খোলা ছিল। কখনো বন্ধ করার মতো পরিস্থিতি হয়নি। বর্তমান অবস্থা খুবই বিপজ্জনক।’ আল-আকসা মসজিদ মুসলমান ও ইহুদিদের জন্য পবিত্র স্থান। মুসলমানরা এটিকে আল-হারাম আল-শরিফ বলেন। আর ইহুদিরা স্থানটিকে টেম্পল মাউন্ট বলে থাকেন।

"