ট্রাম্প-রাশিয়া যোগ

ভাইস প্রেসিডেন্ট পেন্সের আইনজীবী নিয়োগ

প্রকাশ : ১৭ জুন ২০১৭, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

ডোনাল্ড ট্রাম্পের নির্বাচন শিবিরের সঙ্গে রাশিয়ার যোগসাজশ নিয়ে তদন্তের মধ্যে এ বিষয়ে ব্যক্তিগত আইনজীবী নিয়োগ দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স। গত বৃহস্পতিবার পেন্সের মুখপাত্র জেরড অ্যাগেন এক বিবৃতিতে ভাইস প্রেসিডেন্টের আইনজীবী হিসেবে রিচার্ড কুলেনকে নিয়োগ দেওয়ার কথা নিশ্চিত করেন। বিবিসি জানায়, ম্যাকগুয়ারউডস এলএলপি ল ফার্মের চেয়ারম্যান কুলেনের আগে যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেসম্যান টম ডিলে ও গলফ খেলোয়াড় টাইগার উডসের সাবেক স্ত্রী এলিন নর্দেগ্রেনের ব্যক্তিদের আইনজীবী ছিলেন। ইরান-কন্ট্রা এবং ওয়াটারগেট কেলেঙ্কারির তদন্ত দলেও ছিলেন তিনি। কুলেনকে নিয়োগ দেওয়ার আগে আরো কয়েকজনের সাক্ষাৎকার নেওয়া হয় বলেও জানান অ্যাগেন। তিনি বলেন, ‘প্রেসিডেন্টের কর্মসূচিগুলোকে এগিয়ে নেওয়ার পাশাপাশি এ বিষয়ে (ট্রাম্প-রাশিয়া সংযোগ নিয়ে তদন্তে) তার কর্তব্য ও বিষয়টির দ্রুত সমাধানে মনোযোগী হতে পেন্স ব্যক্তিগত আইনজীবী নিয়োগ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।’

গত মাসে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পও রাশিয়াবিষয়ক এফবিআই ও কংগ্রেসের বিভিন্ন কমিটির তদন্তে নিজের অবস্থান ব্যাখ্যা করতে মার্ক কাসোউইৎজকে আইনজীবী হিসেবে নিয়োগ দিয়েছিলেন।

নির্বাচনী প্রচারের সময় থেকেই ডেমোক্রেটরা ট্রাম্প শিবিরের বিরুদ্ধে রাশিয়ার সঙ্গে আঁতাতের অভিযোগ করে আসছিল। নির্বাচনে ট্রাম্পের জয়ের পেছনেও রাশিয়ার হাত ছিল বলে দাবি তাদের। সেই দাবির সত্যতা যাচাইয়ে যুক্তরাষ্ট্র কংগ্রেসের বেশ কটি কমিটি তদন্ত করছে।

সিনেটের এমন একটি তদন্তদলের কাছে গত সপ্তাহে বরখাস্ত হওয়া এফবিআইপ্রধান জেমস কোমি অভিযোগ করে বলেন, দায়িত্ব পাওয়ার পর ট্রাম্প তার জাতীয় নিরাপত্তাবিষয়ক উপদেষ্টা মাইকেল ফ্লিনের সঙ্গে রাশিয়ার যোগসাজশ নিয়ে এফবিআই যে তদন্ত চালিয়ে আসছে, তা বন্ধের কথা বলেছিলেন। সিনেট কমিটিকে দেওয়া সাক্ষ্যে কোমি আরো বলেন, রাশিয়ার সঙ্গে ট্রাম্পশিবিরের যোগাযোগ নিয়ে তদন্ত ধামাচাপা দিতেই তাকে এফবিআইপ্রধানের পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে বলে তার বিশ্বাস। যুক্তরাষ্ট্রে সাধারণত দায়িত্বরত প্রেসিডেন্টরা ফৌজদারি অভিযোগে বিচারের মুখোমুখি হন না; তবে বিচারের পথে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টির অভিযোগ প্রমাণিত হলে ট্রাম্পবিরোধীরা প্রেসিডেন্টকে অভিশংসনের প্রস্তাব আনতে পারবে। যদিও এই প্রস্তাব আনার জন্য কংগ্রেসের প্রতিনিধি পরিষদের অনুমতি লাগবে, যেখানে ট্রাম্পের দল রিপাবলিকানরাই সংখ্যাগরিষ্ঠ। ট্রাম্প অবশ্য শুরু থেকেই রাশিয়ার সঙ্গে যোগসাজশের অভিযোগ অস্বীকার করে আসছেন। বিচারে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টির যে অভিযোগে তার বিরুদ্ধ তদন্ত চলছে, তাকে ‘জঘন্য গল্প’ হিসেবেও অভিহিত করেছেন তিনি।

"