ট্রাম্পের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে নিউইয়র্কের আরেক ধনকুবের ব্লুমবার্গ

প্রকাশ : ০৯ নভেম্বর ২০১৯, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

যুক্তরাষ্ট্রের পরবর্তী প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্রেটিক দলের প্রার্থী হওয়ার দৌড়ে নামার কথা ভাবছেন দেশটির ধনকুবের ব্যবসায়ী মাইকেল ব্লুমবার্গ। ২০২০ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্রেটিক দলের পক্ষে যারা প্রার্থী হওয়ার আবেদন করেছেন তাদের কেউই ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে ‘লড়াইয়ে জেতার মতো যথেষ্ট শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বী নন’ উদ্বেগ থেকে নিউইয়র্কের সাবেক মেয়র ব্লমবার্গ ভোটের লড়াইয়ে নামার কথা বিশেষভাবে ভাবছেন বলে জানান তার মুখপাত্র।

মুখপাত্র বলেন, এখন আমাদের সব কাজ গুছিয়ে নেওয়া প্রয়োজন যেন আমরা ট্রাম্পের পরাজয় নিশ্চিত করতে পারি। কিন্তু মাইকের ধারণা এখন পর্যন্ত যে কয়জন ডেমোক্রেটিক প্রার্থীর নাম শোনা যাচ্ছে তাদের কারো অবস্থানই ট্রাম্পকে হারানোর জন্য যথেষ্ট নয় এবং এটা নিয়ে তার উদ্বেগ বাড়ছে।

৭৭ বছরের ব্লুমবার্গ ডেমোক্রেটিক দলের প্রাথমিক প্রার্থী বাছাইয়ে লড়াইয়ে নামতে এ সপ্তাহে আলাবামায় প্রয়োজনীয় কাগজপত্র জমা দিতে পারেন বলেও জানান তিনি। বিবিসি জানায়, এখন পর্যন্ত মোট ১৭ জন প্রার্থী ট্রাম্পের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে নামার ঘোষণা দিয়েছেন। তাদের মধ্যে সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন, ম্যাসাচুসেটসের সিনেটর এলিজাবেথ ওয়ারেন ও ভারমন্টের সিনেটর বার্নি স্যান্ডার্স সম্ভাব্য ডেমোক্রেটিক প্রার্থী হওয়ার লড়াইয়ে এগিয়ে আছেন বলে জানায় বিবিসি।

সম্প্রতি কয়েকটি জনমত জরিপে দেখা গেছে বামপন্থি বাইডেনের মতো ওয়ারেন এবং স্যান্ডার্স দলীয় মনোনয়ন পেলেও ট্রাম্পের বিরুদ্ধে মূল ভোটের লড়াইয়ে হেরে যাবেন। ওয়াল স্ট্রিটের একসময়ের ব্যাংকার ব্লুমবার্গ পরে নিজের নামে মিডিয়া সম্রাজ্য গড়ে তোলেন। মানবহিতৈষী হিসেবেও সুপরিচিত ব্লুমবার্গ শিক্ষা ও চিকিৎসার মতো খাতগুলোতে প্রতি বছর লাখ লাখ ডলার দান করেন।

ডেমোক্রেটিক দলের সদস্য হিসেবে রাজনৈতিক জীবন শুরু করলেও ২০০১ সালে রিপাবলিকান প্রার্থী হিসেবে নিউইয়র্কের মেয়র পদে নির্বাচনী প্রচার শুরু করেন এবং ভোটে জেতেন। তিনি টানা ২০১৩ সাল পর্যন্ত নিউইয়র্কের মেয়র ছিলেন। তবে গত বছর তিনি আবার ডেমোক্রেটিক দলে যোগ দিয়েছেন।

এ বছরের শুরুতে নানা অনুষ্ঠানে তিনি নিজেকে একজন আধুনিক ডেমোক্রেটিক হিসেবে পরিচয় করিয়ে দিয়ে জলবায়ু পরিবর্তনের মতো বিষয়গুলোতে জোর দেওয়ার ওপর গুরুত্বারোপ করেন। তবে তখন তিনি প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার সম্ভাবনাকে উড়িয়ে দিয়েছিলেন। যুক্তরাষ্ট্রের অস্ত্র নিয়ন্ত্রণ বিষয়ক উপদেষ্টা গ্রুপ ‘এভরিটাউন ফর গান সেফটি’র অন্যতম প্রধান তহবিল দাতা ব্লুমবার্গ। তার সহায়তায় ২০১৪ সালে ওই সংগঠনটি প্রতিষ্ঠিত হয়।

"