চাঁদের মাটি স্পর্শ করবই : মোদি

প্রকাশ : ০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

ভারতের চন্দ্রযান-২-এর অভিযান ব্যর্থ হওয়ার পর দেশটির মহাকাশ গবেষণা সংস্থাÑ ইসরোর বিজ্ঞানীদের উৎসাহ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তিনি গবেষকদের বলেন, ‘আমরা চাঁদের মাটিকে স্পর্শ করবই। সেই সময় আসতে বেশি বাকি নেই। আমরা আমাদের সেরা সময়ের খুব কাছাকাছি চলে এসেছি।’ প্রধানমন্ত্রী গতকাল শনিবার সকালে বেঙ্গালুরুতে ইসরোর সদর দফতরে এসে বিজ্ঞানীদের সঙ্গে দেখা করে এসব কথা বলেন। দেশটির সম্প্রচারমাধ্যম এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য আসছে।

সম্প্রতি চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে চন্দ্রযান-২ পাঠায় ভারত। গত শুক্রবার স্থানীয় সময় রাত ১টা ৫৫ মিনিটে চাঁদের পিঠে অবতরণের কথা ছিল। কিন্তু শেষ মুহূর্তে নিয়ন্ত্রণকক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে চন্দ্রযান-২। সংশ্লিষ্ট বিজ্ঞানীরা জানিয়েছিলেন, চাঁদের পৃষ্ঠে অবতরণের কয়েক সেকেন্ড আগেই এটি বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে নিজের গতিবেগ কমাতে ব্যর্থ হয় চন্দ্রযান-২। ঘণ্টায় প্রায় ৬ হাজার কিলোমিটার গতিবেগে চাঁদের ভূ-পৃষ্ঠে আছড়ে পড়ে চন্দ্রযানের ল্যান্ডার। যেখানে সাত কিমি গতিবেগ থাকার প্রয়োজন ছিল। ফলে সফল অবতরণ হয়নি বলে প্রতীয়মান হয়। কন্ট্রোল রুমে বসে লাইভ দেখছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তাকে পরিস্থিতি সম্পর্কে জানিয়েছিলেন ইসরোর বিজ্ঞানীরা।

চন্দ্রযান-২ এর ব্যর্থতার পর ইসরোর বিজ্ঞানীদের উৎসাহিত করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা চাঁদের মাটিকে স্পর্শ করবই। সেই সময় আসতে বেশি বাকি নেই। আমরা আমাদের সেরা সময়ের খুব কাছাকাছি চলে এসেছি।’ ইসরোর প্রধান বিজ্ঞানী ডক্টর কে সিভানকে জড়িয়ে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আপনি দেশের জন্য অক্লান্ত পরিশ্রম করছেন। নিজেদের সুখ-স্বাচ্ছন্দ্য-স্বপ্ন ত্যাগ করে দেশকে শীর্ষে নিয়ে যেতে নিদ্রাহীন রাত কাটাচ্ছেন। আপনাদের এই শ্রম বৃথা যাবে না। আমি আপনার মনের অবস্থা বুঝতে পারছি। আপনার ব্যথায় ব্যথিত আমি। আমি জানি, আপনি এই ব্যর্থতার জন্য সারা রাত ঘুমাতে পারেননি।’

যে এলাকায় এর অবতরণের কথা ছিল, সেখানে এখন পর্যন্ত কোনো যান নামেনি। যেগুলো চাঁদের গিয়েছে, সেগুলো হয় উত্তরাংশে না হলে নিরক্ষীয় অঞ্চলে। এতদিন সমস্ত অভিযান চাঁদের উত্তর মেরু এবং নিরক্ষীয় অঞ্চলে হয়েছে। এর আগে চীন থেকে পাঠানো এক মহাকাশ যান চাঁদের উত্তরের অংশে অবতরণ করেছিল। পরে অবতরণ করে রাশিয়ার লুনা মিশন। চন্দ্রযান-২ সফল হলে যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া ও চীনের পর চাঁদে পৌঁছানো দেশ হিসেবে ভারত চতুর্থ স্থানে উঠে আসত।

 

"