মার্কিন নিষেধাজ্ঞায় ইরানি পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সম্মান বেড়েছে

প্রকাশ : ১৬ আগস্ট ২০১৯, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

লেবাননের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হিজবুল্লাহ’র মহাসচিব হাসান নাসরুল্লাহ বলেছেন, মার্কিন নিষেধাজ্ঞার কারণে ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মাদ জাওয়াদ জারিফের অবস্থান ও মর্যাদা আগের চেয়ে বেড়েছে। গত বুধবার ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মাদ জাওয়াদ জারিফের কাছে পাঠানো এক বার্তায় তিনি এ মন্তব্য করেন।

ওই বার্তায় হাসান নাসরুল্লাহ ইরানি পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বিরুদ্ধে মার্কিন নিষেধাজ্ঞার নিন্দা জানিয়ে বলেন, মার্কিন নিষেধাজ্ঞার কারণে পররাষ্ট্রমন্ত্রী জারিফের সম্মান ও মর্যাদা বেড়েছে এবং তিনি আরো বেশি শক্তি নিয়ে বিশ্বের নির্যাতিতদের পাশে থাকবেন।

জারিফকে লেখা বার্তায় হাসান নাসরুল্লাহ বলেছেন, মার্কিন শাসকগোষ্ঠী যখন আপনার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে এবং আপনাকে সম্মানিতদের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করে তখনি আমরা আপনার প্রতি সংহতি ও সম্মান জানিয়ে বার্তা পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছি। কিন্তু আমি এই বার্তা দেওয়ার জন্য গত বুধবার পর্যন্ত অপেক্ষা করেছি। কারণ এ দিনেই লেবাননের প্রতিরোধ যোদ্ধারা ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের পরিপূর্ণ সমর্থন ও সহযোগিতায় আমেরিকা ও ইহুদিবাদী ইসরায়েলকে পরাজিত করতে সক্ষম হয়।

লেবাননের হিজবুল্লাহ মহাসচিব বলেন, ওই অন্যায় যুদ্ধের পরিকল্পনাকারী এবং সিদ্ধান্তগ্রহণকারী ছিল আমেরিকা। ইসরায়েলি সেনারা কেবল ওই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে। তখন জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে মার্কিন প্রতিনিধির দায়িত্ব পালন করছিলেন জন বোল্টন। তিনি আরব বিশ্বের একজন আরব কর্মকর্তাকে তখন বলেছিলেন, এই যুদ্ধে কূটনৈতিক তৎপরতার কোনো স্থান নেই, কারণ এই যুদ্ধ হিজবুল্লাহর ধ্বংস বা আত্মসমর্পণ ছাড়া আর কোনোভাবেই শেষ হবে না, কিন্তু এর কয়েক সপ্তাহ পরই বোল্টন ওই আরব কর্মকর্তাকে বলেন, এই মুহূর্তে যুদ্ধ বন্ধ করতে হবে।

 

"