লোকসভা নির্বাচন ২০১৯

ধ্যানে বসায় মোদির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে ইসিতে চিঠি

প্রকাশ : ২০ মে ২০১৯, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

লোকসভা নির্বাচনের শেষ দফার ভোটের দিনও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করেছেন। উত্তরখন্ডের কেদারনাথ মন্দিরের মোদির যাত্রার খবরাখবর সর্বভারতীয় ও স্থানীয় টেলিভিশন চ্যানেলগুলোতে রোববারও দেখানোয় নির্বাচন কমিশনের কাছে লিখিতভাবে এমন অভিযোগ জানিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস।

ভারতের মুখ্য নির্বাচন কমিশনারকে পাঠানো ওই চিঠিতে রাজ্যসভায় তৃণমূলের পক্ষ থেকে ইসিকে আহ্বান জানানো হয়েছে, যেন তারা প্রধানমন্ত্রী মোদির নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের এই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়।

তৃণমূলের সংসদীয় দলের নেতা ডেরেক ও ব্রায়েন লিখেছেন, ‘শনিবার ১৭ মে সন্ধ্যা ৬টায় শেষ দফার ভোটের প্রচার শেষ হলেও, গত দুদিন ধরে সর্বভারতীয় ও স্থানীয় টেলিভিশন চ্যানেলগুলোতে প্রধানমন্ত্রী মোদির কেদারনাথ যাত্রা খবর ঢালাওভাবে প্রচার করা হচ্ছে। যা নির্বাচনী আচরণবিধির লঙ্ঘন। এটা বন্ধ করতে অবিলম্বে ব্যবস্থা নিন।’

চিঠিতে অভিযোগ তোলা হয়েছে, কেদারনাথ মন্দিরের উন্নয়নের ‘মাস্টার প্ল্যান’ তৈরি হয়েছে বলে ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী। কেদারনাথে গিয়ে জনসভা করেছেন। সাংবাদিক সম্মেলনও করেছেন। এভাবে সরাসরি কিংবা পরোক্ষভাবে মানুষকে প্রভাবিত করার চেষ্টা করা হচ্ছে।

তৃণমূলের দাবি, ‘মোদি সেখানে গেলে তার পেছনে ‘মোদি মোদি’ জয়ধ্বনিও শোনা গেছে। এমনটা কখনোই করা যায় না। আর এটা নির্বাচনী আচরণবিধি অনুযায়ী পুরোপুরি অনৈতিক। তাই বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে নির্বাচন কমিশনকে।’

তাছাড়া গতকালও নির্বাচন কমিশনের সততা এবং নিরপেক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন তুলে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নির্বাচন কমিশনকে (ইসি) কড়া ভাষায় চিঠি দিয়েছেন। তার দাবি, নির্বাচন কমিশন কেন্দ্রের শাসক দলের হয়ে পক্ষপাতিত্বমূলক আচরণ করছে।

ভারতের লোকসভা নির্বাচনে সপ্তম তথা শেষ দফার ভোট শুরু হয়েছে রোববার সকালে। দেশটিতে আজ সাতটি রাজ্য এবং একটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের মোট ৫৯টি লোকসভা আসনের ভোটাররা তাদের পছন্দের প্রার্থী নির্বাচিত করবেন। আজ ভাগ্য নির্ধারণ হবে প্রধানমন্ত্রী মোদির। তিনি উত্তর প্রদেশের বারাণসি আসন থেকে লড়ছেন।

আজকের শেষ দফায় পঞ্জাব এবং হিমাচল প্রদেশের সব লোকসভা আসনের পাশাপাশি বিহার, ঝাড়খ-, মধ্যপ্রদেশ, উত্তর প্রদেশ, পশ্চিমবঙ্গ এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল চ-ীগড়ে ভোট অনুষ্ঠিত হচ্ছে। দেশটির সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনের ভোটগ্রহণ প্রক্রিয়া শেষ হবে সন্ধ্যায়। ভোট গণনা করে ফলাফল প্রকাশ করা হবে আগামী ২৩ মে বৃহস্পতিবার।

 

"