মান্নানের উল্টো পথে হেঁটে মমতাকে সমর্থন সুস্মিতার

প্রকাশ : ১৮ মে ২০১৯, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

দলের নেতার আবেদনের ভিত্তিতেই সারদাসহ অন্যান্য টিটফান্ড কেলেঙ্কারির তদন্ত করছে সিবিআই। গতকাল শুক্রবার সুপ্রিম কোর্টের রায়, গ্রেফতার করে জেরা করা যাবে রাজ্য সরকার নিযুক্ত সিটের প্রধান রাজীব কুমারকে। তবে তার আগে আগাম জামিনের জন্য সাত দিন সময় পাবেন কলকাতার সাবেক নগরপাল। এই ইস্যুতে অবশ্য মমতা সরকারের বিরুদ্ধে মুখ খুললেন না কংগ্রেস সংসদ সদস্য সুস্মিতা দেব। জানিয়ে দিলেন এই মামলায় আইন আইনের পথেই চলবে।

তদন্তের স্বার্থে এ বছরের ৩ ফেব্রুয়ারি রাজীব কুমারের সরকারি বাসভবনে পৌঁছায় সিবিআইর ৪০ সদস্যের একটি দল। কিন্তু কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার আধিকারিকদের কাছে প্রয়োজনীয় অনুমতি না থাকায় তাদের কলকাতার নগরপালের সরকারি বাড়িতে প্রবেশে বাধা দেয় পুলিশ। মোদি সরকারের বিরুদ্ধে সিবিআইকে ব্যবহারের অভিযোগ তুলে ধর্মতলায় ধর্নায় বসেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মমতার সেই পদক্ষেপকে সমর্থন করে রাহুল গান্ধীসহ বিজেপি বিরোধী রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধিরা।

এক দিকে কংগ্রেসের প্রদেশ নেতার আবেদনের ভিত্তিতে সিবিআই তদন্ত, অন্যদিকে রাজীবের পক্ষে কথা বলে মমতাকে সমর্থন রাহুলের। এক্ষেত্রে কংগ্রেসের অবস্থান কী? অসমের শিলচরের কংগ্রেস সাংসদ সুস্মিতা দেবের ব্যাখ্যায়, ধর্না যোকেনও রাজনৈতিক দলের রাজনৈতিক হাতিয়ার। তাকে সমর্থন করা একটা ইস্যু।

 

"