কলকাতায় এবার শুরু মূর্তি গড়ার রাজনীতি

প্রকাশ : ১৮ মে ২০১৯, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহের মতোই মোদি ও অভিযোগ করেন, গত মঙ্গলবার কলকাতার বিদ্যাসাগর কলেজে ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভেঙেছে ‘তৃণমূলের গুন্ডারা’। বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙা নিয়ে দেশজুড়ে ক্ষোভ ও ধিক্কারের মধ্যেই এবার শুরু হলো মূর্তি গড়ার রাজনীতি। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি গত বৃহস্পতিবার উত্তরপ্রদেশে প্রচারসভায় বলেন, তার সরকার বিদ্যাসাগর কলেজে ভেঙে দেওয়া মূর্তির জায়গায় পঞ্চধাতুর নতুন মূর্তি করে দেবে। তৎক্ষণাৎ মথুরাপুরের জনসভা থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পাল্টা জবাব, ভিক্ষা চাই না। আমাদের টাকা আছে। বানিয়ে নেব। কিন্তু তারা ২০০ বছরের হেরিটেজ ফিরিয়ে দিতে পারবে তো?

বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহের মতোই মোদি ও অভিযোগ করেন, গত মঙ্গলবার কলকাতার বিদ্যাসাগর কলেজে ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভেঙেছে ‘তৃণমূলের গুন্ডারা’। মথুরাপুরের সভায় তার আরো অভিযোগ, রাজ্য সরকার প্রমাণ লোপাটের চেষ্টা করছে।

প্রত্যুত্তরে মুখ্যমন্ত্রী মমতার হুশিয়ারি, তৃণমূল বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভেঙেছে প্রমাণ করতে না পারলে কান ধরে লাখ বার উঠবস করাব। তোমায় জেলে ঢোকাব। আমার কাছে তথ্য আছে, ভিডিও আছে, তোমরা কিভাবে মূর্তি ভেঙেছো। কলকাতায় গত মঙ্গলবার শাহের রোড শো থেকে বিদ্যাসাগর কলেজে বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙার অভিযোগ উঠে। পর দিন গত বুধবার ওই ঘটনায় তৃণমূলের দিকে পাল্টা আঙুল তোলেন শাহ। কিন্তু ওইদিন এ রাজ্যে প্রচারে এলেও মূর্তি ভাঙা প্রসঙ্গে নীরব ছিলেন মোদি । গত বৃহস্পতিবার সকালে উত্তরপ্রদেশের মউয়ে ভোটপ্রচারে গিয়ে মোদি বলেন, অমিত শাহের রোডশোয়ের সময় বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভেঙেছে তৃণমূলের গুন্ডারা। যারা এ কাজ করেছে, তাদের কঠোর শাস্তি দেওয়া উচিত। বিদ্যাসাগরের মতাদর্শে বিশ্বাস রাখি। তাই তৃণমূলের গুন্ডাদের জবাব দিতে ওই জায়গাতেই বিদ্যাসাগরের পঞ্চধাতুর মূর্তি তৈরি করবে আমাদের সরকার।

 

"