‘অ্যাসাঞ্জের নথি’ প্রকাশের হুমকির মুখে উইকিলিকস ‘অ্যাসাঞ্জের নথি’ প্রকাশের হুমকির মুখে উইকিলিকস

প্রকাশ : ১২ এপ্রিল ২০১৯, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

সাড়া জাগানো বিকল্প সংবাদমাধ্যম উইকিলিকস জানিয়েছে, তাদের ব্লাকমেইল করা হচ্ছে। প্রতিষ্ঠানটির দাবি, লন্ডনে নিযুক্ত ইকুয়েডর দূতাবাসে জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জের ফুটেজ নিজেদের হাতে রয়েছে এমন ‘কয়েকজন রহস্যময়’ ব্যক্তি তাদের হুমকি দিচ্ছে।

২০১২ সালের জুন থেকে লন্ডনের ইকুয়েডর দূতাবাসে রাজনৈতিক আশ্রয়ে আছেন উইকিলিকস প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জ। ৪ এপ্রিল উইকিলিকসের টুইটে বলা হয়, ইকুয়েডর সরকারের উচ্চপর্যায়ের দুটি সূত্র থেকে তারা নিশ্চিত হয়েছে যে কয়েক ঘণ্টা থেকে কয়েক দিনের মধ্যে অ্যাসাঞ্জকে দূতাবাস থেকে তাড়ানো হতে পারে। ইকুয়েডরের বর্তমান প্রেসিডেন্ট মোরেনো গত মঙ্গলবার স্থানীয় একটি রেডিওতে দেওয়া সাক্ষাৎকারে বলেন, ‘কারো ব্যক্তিগত অ্যাকাউন্ট হ্যাক বা ফোনে আড়ি পাতার অধিকার অ্যাসাঞ্জের নেই। আমরা অ্যাসাঞ্জ ও তার আইনজীবীদের সঙ্গে যে চুক্তি করেছিলাম তিনি অনেকবার তা লঙ্ঘন করেছেন।’ সম্প্রতি ইকুয়েডর অভিযোগ তুলছে, দেশটির প্রেসিডেন্ট লেনিন মোরেনোর ব্যক্তিগত নথি ফাঁস ও ছড়িয়ে দিচ্ছে উইকিলকস।

উইকিলিকসের প্রধান সম্পাদক ক্রিস্টিন হ্রাফনসনের অভিযোগ, ইকুয়েডর কর্তৃপক্ষই অ্যাসাঞ্জের হাজার হাজার ছবি ও ভিডিও সংগ্রহ করেছে। সেগুলে স্পেনের একটি চক্রের কাছে পৌঁছায়। তারাই প্রকাশ না করার শর্তে উইকিলিকসের কাছে ৩০ লাখ ডলার দাবি করেছে। লন্ডনে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি বলেন, আমরা জানতে পেরেছি স্পেনের একটি চক্র তথ্য ছড়াচ্ছে। তাদের কাছে প্রচুর নথি আছে এবং সেগুলো দূতাবাস থেকেই সংগ্রহ করা। ক্রিস্টিন বলেন, তাদের কাছে কী নথি আছে জানতে চাইলে তারা ই-মেইল করে জানায় যে, এগুলোর দাম পরিশোধ করতে হবে। ওই নথির মধ্যে অ্যাসাঞ্জের অনেক ছবি ও ভিডিও আছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে অ্যাসাঞ্জ তার আইনজীবীদের সঙ্গে কথা বলছেন, চিকিৎসকরা তার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করছেন।

 

"