বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স : পড়ে যাওয়ার আগে কাঁপছিল

প্রকাশ : ১৩ মার্চ ২০১৯, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

ইথিওপিয়ার যে উড়োজাহাজটি বিধ্বস্ত হয়ে ১৫৭ আরোহী নিহত হয়েছেন সেটি পড়ে যাওয়ার আগে অদ্ভুত ঘর্ঘর শব্দ করছিল এবং পেছনে ধোঁয়া ও পড়তে থাকা জিনিসের লাইন রেখে চড়তে থাকা গরুভর্তি একটি মাঠের ওপর দিয়ে উড়ে গিয়েছিল। প্রত্যক্ষদর্শীরা এ কথা জানিয়েছেন।

গত রোববার স্থানীয় সময় সকাল ৮টা ৩৮ মিনিটে বোয়িং কোম্পানির ৭৩৭ ম্যাক্স ৮ উড়োজাহাজটি ১৪৯ জন যাত্রী ও আটজন ক্রু নিয়ে ইথিওপিয়ার রাজধানী আদ্দিস আবাবা থেকে নাইরোবির উদ্দেশে রওনা হয়েছিল। কিন্তু মাত্র আট মিনিট পর ৮টা ৪৪ মিনিটে ফ্লাইট ৩০২ বিশোফটু শহরের কাছে বিধ্বস্ত হয়। সমস্যায় পড়েছেন জানিয়ে ফিরে আসার অনুমতি চেয়েছিলেন পাইলট, কিন্তু তখন অনেক দেরি হয়ে গিয়েছিল।

যে কৃষি জমিতে উড়োজাহাজটি বিধ্বস্ত হয়েছিল সেখানকার ছয় প্রত্যক্ষদর্শীর সাক্ষাৎকার নিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স, তাদের সবাই উড়োজাহাজটির পেছনে দিয়ে প্রচুর ধোঁয়া বের হওয়ার কথা জানিয়েছেন, আর তাদের মধ্যে চারজন বিকট শব্দ হওয়ার কথা জানিয়েছেন। দুর্ঘটনাস্থল থেকে ৩০০ মিটার দূরে বাস করেন গৃহবধূ ও কৃষক ২৬ বছর বয়সি তুর্ন বুজুনা; তিনি বলেন, বিকট ঘর্ঘর শব্দ হচ্ছিল। মনে হচ্ছিল ধাতুতে ধাতুতে ঘষা ও ঝাঁকুনি লাগছিল। কোনো বিমান থেকে এ ধরনের শব্দ কোনোদিন শুনেনি বলে সবাই জানিয়েছে।

যার খেতে উড়োজাহাজটি বিধ্বস্ত হয়েছে সেই বার্লি ও গমচাষি ৪৭ বছর বয়সি মালকা গালাটো উড়োজাহাজটির পেছনে ধোঁয়া ও অগ্নিস্ফুলিঙ্গ দেখার কথা জানিয়েছেন। তিনি বলেন, বিমানটি মাটির খুব কাছাকাছি চলে এসেছিল, তারপর একটি মোড় নেয়। মাঠে চড়া গরুগুলো আতঙ্কে দৌড়ানো শুরু করে। ওই সময় মাঠ দিয়ে যাচ্ছিলেন ২৫ বছর বয়সি তামিরাত আবেরা। বিমানটি তীক্ষè একটি মোড় নিয়ে পেছনে সাদা ধোঁয়া, কাপড় ও কাগজের মতো বিভিন্ন জিনিস ফেলতে ফেলতে প্রায় ৩০০ মিটার সামনে গিয়ে বিধ্বস্ত হয়।

 

তিনি আরো বলেন, বিমানটি ওপরে ওঠার চেষ্টা করেছিল কিন্তু নাকটি নিচে নেমে এসে পড়ে যায়। সঙ্গে সঙ্গেই আগুন জ্বলে ওঠে ও সাদা ধোঁয়া বের হয়, পরে তা কালো ধোঁয়ায় পরিণত হয়।

বিধ্বস্ত হওয়ার পর উড়োজাহাজটি টুকরো টুকরো হয়ে যায়। সবচেয়ে বড় যে অংশটি অবশিষ্ট ছিল তা হলোÑ একটি চাকা ও থুবড়ে যাওয়া ইঞ্জিন। প্রায় দুটি ফুটবল মাঠের সমপরিমাণ জায়গায় ধ্বংসাবশেষগুলো ছড়িয়ে ছিল।

সেখানে শিশুদের বই, আধপোড়া একটি ফেঞ্চ-ইংলিশ ডিকশনারি, এক নারীর একটি বাদামি হাতব্যাগ যার নিচের অংশটি পোড়া, পারফিউমের একটি খালি বোতল ইত্যাদি ছড়িয়ে-ছিটিয়ে পড়ে ছিল।

গত সোমবার তদন্তকারীরা উড়োজাহাজটির দুটি ব্ল্যাক বক্স রেকর্ডার খুঁজে পেয়েছেন। এই রেকর্ডার দুটি উড়োজাহাজটির চূড়ান্ত মুহূর্তগুলো জানতে সাহায্য করবে বলে মনে করছেন তারা।

স্থানীয় বাসিন্দা নিগুসু তেসেমা নিহতদের ছড়িয়ে-ছিটিয়ে পড়ে থাকা পরিচয়পত্রগুলো সংগ্রহ করে পুলিশের হাতে তুলে দিতে সাহায্য করেছেন।

 

"