উত্তপ্ত ভেনিজুয়েলা পরিস্থিতি

সরকার ও বিরোধী পক্ষের পাল্টাপাল্টি সমাবেশ

প্রকাশ : ১১ মার্চ ২০১৯, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরো ও বিরোধীদলীয় নেতা হুয়ান গুইদোর ডাকে ভেনিজুয়েলায় সরকারপন্থি ও বিরোধীদের পাল্টাপাল্টি সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার থেকে ভেনিজুয়েলা জুড়ে ব্যাপক বিদ্যুৎ বিভ্রাট চলছে, তার মধ্যেই শনিবার দুপক্ষের পাল্টাপাল্টি এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয় বলে খবর বিবিসির। রাজধানী কারাকাসে গুইদোর কিছু সমর্থক পুলিশের সঙ্গে ধস্তাধস্তিতে জড়িয়ে পড়ার পর পুলিশ পেপার স্প্রে ব্যবহার করে তাদের পিছু হটিয়ে দেয়।

গুইদো ২৩ জানুয়ারি নিজেকে ভেনিজুয়েলার ‘অন্তর্র্বর্তী প্রেসিডেন্ট’ হিসেবে ঘোষণা করেন, তারপর থেকে প্রেসিডেন্ট মাদুরোর সঙ্গে দেশের কর্তৃত্ব নিয়ে বিবাদে জড়িয়ে পড়েছেন তিনি।

কারাকাসে যেখান দিয়ে বিরোধী দলের মিছিল সমাবেশস্থলের দিকে গেছে সেসব জায়গায় বিপুলসংখ্যক পুলিশ মোতায়েন ছিল। কিছু বিক্ষোভকারী দাঙ্গা পুলিশকে ধাক্কা দিয়ে ‘খুনি’ বলে চিৎকার করে, এ সময় তাদের থামাতে পুলিশ কর্মকর্তারা পেপার স্প্রে ব্যবহার করে।

সমাবেশে গুইদো তার সমর্থকদের ‘একতাবদ্ধ’ থাকার আহ্বান জানান। ‘খুব শিগগিরই’ কারাকাসে বড় ধরনের একটি সমাবেশ করবেন বলে এ সময় ঘোষণা দেন তিনি। সারা দেশের সমর্থকদের কারাকাসের ওই সমাবেশে যোগ দেওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

অপরদিকে রাজধানীর প্রেসিডেন্ট প্রাসাদের সামনে অনুষ্ঠিত এক সমাবেশে প্রেসিডেন্ট মাদুরো তার প্রতি অনুগত থাকার জন্য সেনাবাহিনীকে ধন্যবাদ জানান। বিরোধী দলের অভ্যুত্থানের একটি উদ্যোগ তারা রুখে দিয়েছেন বলে ভাষণে বলেছেন তিনি। এ সময় বিরোধীদলীয় নেতা গুইদোকে যুক্তরাষ্ট্রের ‘ভাঁড় ও পুতুল’ বলে উল্লেখ করেন তিনি।

মাদুরো বলেন, সামরিক অভ্যুত্থানের জন্য সশস্ত্র বাহিনীকে আমন্ত্রণ জানিয়েছিল ওরা, ষড়যন্ত্রকারীদের পরাজিত করে তারা (সশস্ত্র বাহিনী) এর পরিষ্কার জবাব দিয়েছে। মাদুরো অভিযোগ করেন, সা¤্রাজ্যবাদী যুক্তরাষ্ট্রের সাহায্যে গুইদো তার বিরুদ্ধে একটি অভ্যুত্থানের চেষ্টা করছেন। গুইদো ভেনিজুয়েলার বিরোধী দল নিয়ন্ত্রিত জাতীয় পরিষদের স্পিকার। বিশ্বের ৫০টিরও বেশি দেশ তাকে দেশটির ‘অন্তর্র্বর্তী প্রেসিডেন্ট’ হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে। অপরদিকে দেশের সামরিক বাহিনী এবং রাশিয়া ও চীনের সমর্থন ধরে রেখেছেন প্রেসিডেন্ট মাদুরো।

 

"