সন্ধ্যা নামলেই চোখে রক্তের ধারা

প্রকাশ : ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

সন্ধ্যা নামলেই দুই চোখ বেয়ে রক্ত ঝরে। শুধু চোখ দিয়েই নয় বরং নাক, ঠোঁট দিয়েও রক্তক্ষরণ শুরু হয়। এমন অসুখে দিশাহারা হয়ে পড়েছিলেন পশ্চিমবঙ্গের হুগলি জেলার সুস্মিতা বন্দ্যোপাধ্যায় (৩৩)। তার অবস্থা এমন হয়ে পড়েছিল যে, বাড়ির লোকজনও তার কাছে ঘেঁষতে ভয় পেত। সন্ধ্যা ঘনিয়ে এলেই সবাই আতঙ্কে থাকত এই বুঝি শুরু হয়ে যাবে রক্তের খেলা। শারীরিক কষ্টের সঙ্গে দুর্বিসহ মানসিক যন্ত্রণাও বইতে হয়েছে সুস্মিতাসহ পুরো পরিবারকে। পিজি হাসপাতালের ইনস্টিটিউট অব সাইকিয়াট্রিতে (আইওপি) চিকিৎসা নিচ্ছেন তিনি। চিকিৎসার পর এখন কিছুটা স্বস্তিতে আছেন।

তিনি জানান, আয়নার সামনে দাঁড়ানোর সাহস পেতেন না। নিজেকে রাক্ষুসী মনে হতো। চোখের কোণে দেড় সেন্টিমিটার জায়গাজুড়ে রক্ত জমাট বেঁধে থাকত। সুস্মিতার স্বামী মানসকুমার বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্য সরকারি কর্মী। তিনি জানান, প্রথম দিকে মাথায় অসহ্য যন্ত্রণা হচ্ছিল তার স্ত্রীর, তারপরই রক্ত বেরুনো শুরু হয়। আর এমনটা হলে অনেক সময় জ্ঞান হারিয়ে ফেলত সুস্মিতা।

২০১৭ সালের জুলাইয়ে প্রথমে স্থানীয় এক নিউরোলজিস্ট দেখেছিলেন সুস্মিতাকে। তার ওষুধ কাজ করেনি। তার পরামর্শেই সুস্মিতাকে পিজি হাসপাতালের ইনস্টিটিউট অব নিউরোলজিতে দেখানো হয়। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, তিনি বিরল ডিসথাইমিয়া ইউথ সাইকোজেনিক পারপিউরাতে আক্রান্ত হয়েছেন। পিজির আইওপির চিকিৎসক প্রদীপ সাহা জানান, রক্তের উপাদানে সমস্যার কারণে অনেক সময় এমনটা হতে পারে। কিন্তু সেটাও বিরল।

"