হাসপাতাল থেকে আবার জেলে নওয়াজ শরিফ

প্রকাশ : ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
ama ami

অসুস্থতার জন্য কিছুদিন আগেই হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ। গত শনিবার তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তাকে পূর্বাঞ্চলীয় লাহোর শহরের কোট লাখপাত কারাগার থেকে একটি সরকারি হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখানেই তার মেডিকেল চেকআপ এবং বিভিন্ন পরীক্ষার পর চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছিল।

ছয় দিন হাসপাতালে থাকার পর বৃহস্পতিবার তাকে আবারও জেলে পাঠানো হয়েছে। নওয়াজের মেয়ে মরিয়ম নওয়াজ বৃহস্পতিবার লাহোরের একটি সরকারি হাসপাতালের বাইরে থেকে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেছেন। তিনি জানিয়েছেন, সরকার তার বাবার অসুস্থতাকে গুরুত্ব দিচ্ছে না। সে কারণে তার বাবার অনুরোধেই তাকে কোট লাখপাত জেলে পাঠানো হয়েছে।

তিনি জানান, ৬৯ বছর বয়সী নওয়াজ শরিফকে গত শনিবার থেকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছিল। কিন্তু সরকার তার শারীরিক অবস্থা নিয়ে মজা নিচ্ছে। তারা কোনো গুরুত্ব দিচ্ছে না। মরিয়ম বলেন, সবাই জানেন যে, তার হৃদযন্ত্রে বেশ কিছু সমস্যা রয়েছে। কিন্তু তারপরেও পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ সরকার তাকে এক হাসপাতাল থেকে অন্য হাসপাতালে স্থানান্তর করেছে।

তাকে যে হাসপাতালে রাখা হয়েছিল সেখানে কোনো হৃদযন্ত্রের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ছিলেন না। ফলে তার জীবন ঝুঁকিতে ছিল। বাবার যদি কোনো কিছু হয় তবে এর দায়ভার প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সরকারকে নিতে হবে বলেও হুমকি দিয়েছেন মরিয়ম নওয়াজ। তার দল থেকে চিকিৎসার জন্য তাকে লন্ডনে পাঠানোর জন্য সরকারের কাছে দাবি জানানো হয়েছে। দুর্নীতির অভিযোগে কারাভোগ করছেন এই সাবেক প্রধানমন্ত্রী। যদিও তিনি তার বিরুদ্ধে আনা সব ধরনের অভিযোগ অস্বীকার করে আসছেন। গত বছর তাকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে অযোগ্য ঘোষণা করে দেশটির সর্বোচ্চ আদালত। তিনি তিনবার দেশের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন। সর্বশেষ গত বছর নির্বাচনে অংশ নিতে দেশে ফেরার পরেই তাকে গ্রেফতার করা হয়।

 

"