লোকসভায় পাস হচ্ছে নাগরিকত্ব বিল

আসাম সংকট বাড়বে

প্রকাশ : ০৯ জানুয়ারি ২০১৯, ০০:০০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

আসামে তুমুল বিরোধিতা চললেও, ভারতের কেন্দ্রীয় লোকসভায় পাস হতে চলেছে বিতর্কিত নাগরিকত্ব বিল।

গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে শুরু হওয়া অধিবেশনে বিলটি তোলা হয়েছে।

এতে করে আসামে নাগরিকত্বের তালিকা নিয়ে সৃষ্ট সংকট আরো পোক্ত হচ্ছে। বাদ পড়া ৪০ লাখ বাসিন্দার জন্য নিজেদের আসামের নাগরিক প্রমাণ করা আরো কঠিন হয়ে পড়বে বলেও মনে করছেন অনেকে। এর প্রতিবাদে আসামে দিনব্যাপী বন্ধ কর্মসূচি পালিত হচ্ছে।

এর আগে একই কারণে গত সোমবার রাজ্য বিজেপির সঙ্গে জোট ও সরকার ছাড়ে আসাম গণপরিষদ। যদিও দলটির জোট ছাড়ায় বিজেপি নেতৃত্বাধীন সর্বানন্দ সোনোয়াল সরকারের কোনো বিপত্তি নেই।

তবে এর মধ্য দিয়ে আন্দোলন আরো জোরালো হবে বলে মনে করছেন গণপরিষদ নেতারা।

নাগরিকত্ব বিলে বলা হয়েছে বাংলাদেশ, পাকিস্তান, আফগানিস্তান, মিয়ানমার ও শ্রীলঙ্কা থেকে আসা হিন্দু, শিখ, বৌদ্ধ, পার্সিসহ ওইসব দেশে সংখ্যালঘুরা যদি অত্যাচারের কারণে ভারতে আসেন তবে তাদের নাগরিকত্ব দেওয়া হবে। কেবল নাগরিকত্ব পাবেন না মুসলিমরা। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিও গত সপ্তাহে এ বিলটির পক্ষে সুর তোলেন। দুপুরে শুরু হওয়া অধিবেশনে বিলটি তোলা হয়েছে।

এতে করে আসামে নাগরিকত্বের তালিকা নিয়ে সৃষ্ট সংকট আরো পোক্ত হচ্ছে। বাদ পড়া ৪০ লাখ বাসিন্দার জন্য নিজেদের আসামের নাগরিক প্রমাণ করা আরো কঠিন হয়ে পড়বে বলেও মনে করছেন অনেকে। এর প্রতিবাদে আসামে দিনব্যাপী বন্ধ কর্মসূচি পালিত হচ্ছে।

এর আগে একই কারণে গত সোমবার রাজ্য বিজেপির সঙ্গে জোট ও সরকার ছাড়ে আসাম গণপরিষদ। যদিও দলটির জোট ছাড়ায় বিজেপি নেতৃত্বাধীন সর্বানন্দ সোনোয়াল সরকারের কোনো বিপত্তি নেই।

তবে এর মধ্য দিয়ে আন্দোলন আরো জোরালো হবে বলে মনে করছেন গণপরিষদ নেতারা।

নাগরিকত্ব বিলে বলা হয়েছে বাংলাদেশ, পাকিস্তান, আফগানিস্তান, মিয়ানমার ও শ্রীলঙ্কা থেকে আসা হিন্দু, শিখ, বৌদ্ধ, পার্সিসহ ওই সব দেশে সংখ্যালঘুরা যদি অত্যাচারের কারণে ভারতে আসেন তবে তাদের নাগরিকত্ব দেওয়া হবে। কেবল নাগরিকত্ব পাবেন না মুসলিমরা। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিও গত সপ্তাহে এ বিলটির পক্ষে সুর তোলেন।

"